হোম /খবর /মালদহ /
আজ পর্যন্ত কখনও ঘটেনি গ্রামে এই ঘটনা, তাই এই দৃশ্য দেখে মাঠে যেতে চাইছেন না কেউ

Crime News: আজ পর্যন্ত কখনও ঘটেনি গ্রামে এই ঘটনা, তাই এই দৃশ্য দেখে মাঠে যেতে চাইছেন না কেউই

গ্রামে তুলকালাম

গ্রামে তুলকালাম

মাঠে কৃষিকাজে গিয়ে ভয়ে আতঙ্কে কৃষকেরা, মাঠের মধ্যে পড়ে রয়েছে ওটা কী, স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা ধর্ষণ করে তারপরে শেষ করে দেওয়া হয়েছে তরুণীকে৷

  • Hyperlocal
  • Last Updated :
  • Share this:

মালদহ: মাঠে চাষ করতে গিয়ে ভয়ে আতঙ্কে পালিয়ে আসছেন সকলে। সকাল থেকেই মাঠমুখী হতে চাইছেন না গ্রামের কেউ। গ্রাম জুড়ে আতঙ্ক। দূর দূরান্তের লোকজনের জমায়েত হতে থাকে গ্রামে। কিন্তু মাঠে যাওয়ার সাহস হচ্ছে না কারো। অবশেষে পুলিশ এসে পৌঁছায় গ্রামে। পুলিশ সঙ্গে গ্রামের অনেক ধীর ধীরে এগিয়ে যান মাঠে। কি এমন হল এলাকায়? হঠাৎ চাষের জমিতে যুবতীর দেহ পড়ে থাকতে দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন স্থানীয়রা।

এর আগে এমন ঘটনা কোনওদিন ঘটেনি। মালদহের কালিয়াচক থানার উজিরপুর গ্রামের ঘটনা।

আরও দেখুন

মঙ্গলবার সকালে অজ্ঞাত পরিচিত যুবতীর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন গ্রামের বাসিন্দারা। মাঠে চাষের কাজে যাওয়ার সময় দেহ পড়ে থাকতে দেখে। দেই উদ্ধারের ঘটনায় কৃষকেরা ভয়ে আতঙ্কে চাষের কাজ ছেড়ে গ্রামে ফিরে আসেন। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকা জুড়ে। স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেয় গোলাপগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়িতে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ। যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়।

আরও পড়ুন -  বখতিয়ার খিলজির আক্রমণ থেকে বাঁচাতে প্রাচীন বিষ্ণুমূর্তি ডোবানো ছিল জলের তলায়, আর আজ সেই মূর্তি

যদিও ওই যুবতীর এখনো নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রাথমিক অনুমান, কেউ বা কারা রাতের অন্ধকারে ওই যুবতীকে খুন করে মাঠে ফেলে গিয়েছে। যুবতীর গলায় ফাঁসের দাগ রয়েছে। মুখে ও শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন। দেখে আতঙ্ক ছড়ায় সকাল থেকে এলাকা জুড়ে। এই বিষয়ে উজিরপুর গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য চন্দ্রশেখর মন্ডল বলেন, ‘‘সকালবেলা গ্রামের কৃষকেরা মাঠে কাজ করতে গিয়ে দেহটি দেখতে পান। আতঙ্কে কাজ ছেড়ে সকলে বাড়ি ফিরে আসেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আমি ছুটে আসি। দেহটি দেখে মনে হচ্ছে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। প্রাথমিক অনুমান আমাদের শ্বাসরোধ করে খুন করেছে। পুলিশ এসছে দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। আমরা দ্রুত দোষীদের শাস্তি চাই। পুলিশ দ্রুত দোষীদের খুঁজে বার করুক।’’

এদিকে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। মৃতের নাম পরিচয় জানতে ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পাশাপাশি দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Harsit Singh
Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Crime, Malda, Woman