Home /News /malda /
Malda News: মাকে ডাইনি অপবাদ গ্রামের সালিশি সভায়, প্রতিবাদ করায় ভয়াবহ অবস্থা ছেলের!

Malda News: মাকে ডাইনি অপবাদ গ্রামের সালিশি সভায়, প্রতিবাদ করায় ভয়াবহ অবস্থা ছেলের!

ডাইনি অপবাদের প্রতিবাদ করায় যুবককে মারধোর

ডাইনি অপবাদের প্রতিবাদ করায় যুবককে মারধোর

Malda News: মাকে ডাইনি অপবাদ দেওয়ায় প্রতিবাদ করায় সালিশি সভায় ছেলেকে পিটিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল গ্রামের মোড়ল সহ প্রতিবেশিদের বিরুদ্ধে।

  • Share this:

    #মালদহ:  মাকে ডাইনি অপবাদ দেওয়ায় প্রতিবাদ করায় সালিশি সভায় ছেলেকে পিটিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল গ্রামের মোড়ল সহ প্রতিবেশিদের বিরুদ্ধে। গুরুতর জখম অবস্থায় ওই যুবক বর্তমানে মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে মালদহের গাজোল থানার আলাল পঞ্চায়েতের ইন্দ্রশাইল গ্রামে। ঘটনায় জখম যুবকের পরিবারের তরফ থেকে জেলা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে গাজোল থানার পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

    জানা গিয়েছে, ইন্দ্রশাইল আদিবাসী অধ্যুষিত গ্রামে রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গ্রামের অনেকেই নানান রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে রোগ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় চলতি মাসের ১৯ তারিখ উত্তর দিনাজপুরের ইটাহার থেকে ডেকে নিয়ে আসা হয়েছিল এক যানগুরু বা ওঝাকে। ২০ তারিখ গ্রামে এক সালিশি সভা বসে। সেখানে যানগুরু গ্রামের মহিলা রাধন হেমব্রম সহ ১৫ জন গ্রামবাসীকে ডাইনি হিসেবে চিহ্নিত করে বলে অভিযোগ। আর তারিখেরে গ্রামে রোগ সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছিল, এমনই অভিযোগ তোলেন ওই ওঝা। সাথে সাথে ঘটনার প্রতিবাদ করে রাধন হেমব্রমের ছেলে সুবোধ হাঁসদা। সালিশি সভায় প্রতিবাদ করায় সুবোধ হাঁসদা কে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল এলাকারই বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

    আরও পড়ুন: প্রাথমিক TET দুর্নীতি মামলায় মানিক ভাট্টাচার্যকে তলব ইডির, আগামিকাল হাজিরা

    প্রথমে জখম অবস্থায় তাকে গাজোল গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। অবস্থার অবনতি হতে থাকায় তাকে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার পর ২১ তারিখ গাজোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে আসে সুবোধ হাঁসদার বাবা। সে সময় গাজোল থানার পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতা করার অভিযোগ ওঠে । অভিযোগ পত্রের ডাইনি কথাটি উল্লেখ করতে বারণ করেন কর্তব্যরত পুলিশকর্তা। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল গ্রামে।

    পরে পরিবারের পক্ষ থেকে জেলা পুলিশ সুপারের দারস্থ হয় জখম যুবককের পরিবার। মোট ছয়জনের বিরুদ্ধে জেলা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি থানার আইসি কেন তার অভিযোগ পরিবর্তন করার নির্দেশ দিল তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। জেলা পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ দায়ের করার পরেই তড়িঘড়ি তদন্ত নামে গাজোল থানার পুলিশ। এখন পর্যন্ত একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব বলেন, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

    হরষিত সিংহ 

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Malda News, North bengal news

    পরবর্তী খবর