Home /News /malda /
Malda News: স্বপ্নাদেশ পেয়ে রথ উৎসবের সূচনা করেছিলেন মালদহের দাস পরিবার

Malda News: স্বপ্নাদেশ পেয়ে রথ উৎসবের সূচনা করেছিলেন মালদহের দাস পরিবার

ব্রজমোহন [object Object]

Malda News:  জগন্নাথের রথযাত্রা হলেও মালদহের দাস পরিবারে পূর্বপুরুষ ধরে ব্রজমোহন রাধারানীকে রথে করে নিয়ে যাওয়া হয় মাসির বাড়ি। মালদহ শহরের মোকদমপুর দাস পরিবারের রথ উৎসব এবারে অনুমানিক ১৭২ বছরে পদার্পণ করল।

  • Share this:

    #মালদহ: জগন্নাথের রথযাত্রা হলেও মালদহের দাস পরিবারে পূর্বপুরুষ ধরে ব্রজমোহন রাধারানীকে রথে করে নিয়ে যাওয়া হয়। মালদহ শহরের মোকদমপুর দাস পরিবারের রথ উৎসব এবারে অনুমানিক ১৭২ বছরে পদার্পণ করল। চার পুরুষ ধরে রথযাত্রা উৎসব হয়ে আসছে। নিয়ম নিষ্ঠার সাথে রথ উৎসব পালিত হয় এখানে। ব্রজমোহন রাধারানীকে মাসির নিয়ে এসে সাতদিন ধরে চলে পুজো অনুষ্ঠান।

    কথিত আছে, স্বপ্নাদেশ পেয়ে এই রথ উৎসবের সূচনা করেছিলেন চিকিৎসক ঠাকুরদাস দাস। মোকদমপুর ঠাকুর বাড়িতে রয়েছে ব্রজমোহন রাধারানীর বিগ্রহ। সেই বিগ্রহকে রথে করে মাসির বাড়ি নিয়ে আসার স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন ঠাকুরদাস বাবু। ঠাকুর বাড়ির বিগ্রহ রথ উৎসবের থেকে বহু পুরনো। সেই বিগ্রহকে নিয়ে রথের সূচনা হয়। এখন পুরনো রীতি নিয়ম মেনে রথযাত্রার আগের দিন সন্ধ্যায় ঠাকুর বাড়ি থেকে বিগ্রহ মাসির বাড়িতে অর্থাৎ দাস পরিবারের মন্দিরে নিয়ে আসা হয়।

    মন্দিরে নিয়ে এসে লুচি ভোগ দিয়ে পুজো হয়। রথের দিন সন্ধ্যা ছয়টা নাগাদ মকদমপুর কানসার্ট মোড় থেকে রথে ওঠানো হয় বিগ্রহ। সেখান থেকে রথ নিয়ে যাওয়া হয় গৌড়রোড মোড় পর্যন্ত। রথটানা শেষে মাসির বাড়িতে বিগ্রহ নিয়ে আসা হয়। সাতদিন ধরে চলে পুজো।প্রতিদিন দুপুরে অন্নভোগ ও সন্ধ্যায় লুচি ভোগ দেওয়া হয়। উল্টো রথের দিনেও অন্নভোগ দেওয়া হয়না। রথটানা শেষে আবার ঠাকুর বাড়ির মন্দিরে নিয়ে যাওয়া হয় বিগ্রহ।মোকদমপুর রথ উৎসবকে ঘিরে আগে সাতদিন ধরে বিশাল মেলা বসত। তবে বর্তমানে দুই দিন বসে মেলা। এখনো জেলার বিভিন্ন প্রান্তের বহু ভক্তদের সমাগম ঘটে এই রথ উৎসবে।

    হরষিত সিংহ

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Bangla News, Malda News, Rath Yatra 2022

    পরবর্তী খবর