চার বছরের লড়াই শেষ, মৃত্যু হল মালদহের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর

চার বছরের লড়াই শেষ। কলকাতার হাসপাতালে মৃত্যু হল মালদহের বৈষ্ণবনগরের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Oct 26, 2017 10:30 AM IST
চার বছরের লড়াই শেষ, মৃত্যু হল মালদহের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর
নিজস্ব চিত্র
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Oct 26, 2017 10:30 AM IST

#মালদহ: চার বছরের লড়াই শেষ। কলকাতার হাসপাতালে মৃত্যু হল মালদহের বৈষ্ণবনগরের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর। প্রতিবেশীর প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। তাই নাছোড় প্রেমিক ঘরে ঢুকে তরুণীর গলায় ঢেলে দিয়েছিল অ্যাসিড। আপাতত দশ বছরের কারাদণ্ডে জেল খাটছে দোষী। মেয়ে নেই। কিন্তু, হত্যাকারীর যাবজ্জীবন শাস্তির দাবিতে অনড় পরিবার।

শখ করে বাবা-মা নাম রেখেছিলেন দীপাবলি। শেষ পর্যন্ত নিভেই গেল রজক পরিবারের সেই আলো। কলকাতায় SSKM হাসপাতালে মৃত্যু হল মালদহের বৈষ্ণবনগরের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর।

সালটা ২০১৪। সাউথ মালদহ কলেজে তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন দীপাবলি রজক। প্রেমের প্রস্তাব নিয়ে রাস্তা-ঘাটে প্রায়ই তরুণীকে উত্যক্ত করত প্রতিবেশী উজ্জ্বল মণ্ডল। কিন্তু, রাজি হননি দীপাবলি। বাড়িতেও জানিয়েছিলেন সব। ছেলের বাড়িতে গিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিল তরুণীর পরিবার। উল্টে ছেলের পরিবারও দফায় দফায় বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে।

২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধেয় বাড়িতে ছিলেন মা ও মেয়ে। আচমকা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘরে ঢুকে পড়ে উজ্জ্বল মণ্ডল। এরপরই তরুণীর গলা টিপে মুখে অ্যাসিড ঢেলে দেয়। মারাত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয় খাদ্যনালী থেকে পাকস্থলী। চলতি মাসেও SSKM এ অস্ত্রোপচার হয়। ঘটনায় অভিযুক্ত উজ্জ্বল মণ্ডলকে গত বছর দোষী সাব্যস্ত করে মালদহের নগর দায়রা আদালত। দশ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে। কিন্তু এই রায়ে খুশি নয় পরিবার।

পড়াশোনা করে কিছু করার ইচ্ছে ছিল। ক্ষতবিক্ষত শরীর নিয়ে তাই লড়াই চালিয়ে গেছেন দীপাবলি। শেষপর্যন্ত অ্যাসিডের জ্বালায় হার মানল চার বছরের লড়াই।

First published: 10:30:50 AM Oct 26, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर