Home /News /local-18 /
West Bardhaman News- জেলা প্রশাসনের আরোপ করা বিধি-নিষেধ উঠে গেল। জেলায় সন্ধ্যার পর স্বাভাবিক বাজার-হাট।

West Bardhaman News- জেলা প্রশাসনের আরোপ করা বিধি-নিষেধ উঠে গেল। জেলায় সন্ধ্যার পর স্বাভাবিক বাজার-হাট।

খুলে দেওয়া হয়েছে সালানপুর ব্লকের নিউ মার্কেট হাটও।

খুলে দেওয়া হয়েছে সালানপুর ব্লকের নিউ মার্কেট হাটও।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জারি করা এই বিধি নিষেধ লাগু ছিল গতকাল ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। আজ থেকে স্বাভাবিক হচ্ছে জীবনযাপন।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান- গত সপ্তাহেও ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ ভয় ধরাচ্ছিল প্রশাসনিক কর্তাদের মনে। নতুন বছরের শুরু থেকেই যেভাবে অণুজীব করোনা দাপাদাপি শুরু করেছিল, তাতে আশঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন বহু মানুষ। রাজ্যে নতুন করে জারি করা হয় বিধি নিষেধ। তবে শুধু রাজ্য নয়, জেলার সংক্রমণে লাগাম টানতেও জেলা প্রশাসনের তরফ থেকেও বেশ কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করা হয় (West Bardhaman News)।

    বিশেষ করে জমায়েতের ক্ষেত্রে পদক্ষেপ করে জেলা প্রশাসন। নাইট কার্ফু এবং সাধারণ বিধিনিষেধের পাশাপাশি, বিশেষ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছিল। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জারি করা এই বিধি নিষেধ লাগু ছিল গতকাল ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত (West Bardhaman News)। তবে আজ বুধবার ১৯ জানুয়ারি থেকে স্বাভাবিক হচ্ছে সেই সব নিয়ম। আজ থেকে শুধুমাত্র রাজ্য সরকার নির্দেশিত বিধিনিষেধই লাগু থাকবে। তবে জেলা প্রশাসন আলাদাভাবে যেসমস্ত বিধি নিষেধ জারি করেছিল, সেই সমস্ত বিধি-নিষেধ বুধবার থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে।

    জেলার চেম্বার অফ কমার্স সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গে আলোচনার পরেই গত ৯ জানুয়ারি থেকে বিধিনিষেধ জারি করেছিল জেলা প্রশাসন। সন্ধ্যে ছয়টার পর থেকে দুর্গাপুর, আসানসোলের বিভিন্ন বাজার বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল (West Bardhaman News)। বাজারগুলিতে কোনভাবে যাতে বেশি লোকের জমায়েত না হয়, তার জন্য কড়া নজর রেখেছিল প্রশাসন। নির্দিষ্ট বেশ কিছু ব্লকের হাট, বাজার বন্ধ রাখা হয়েছিল। তবে বুধবার থেকে সেই সমস্ত বিধিনিষেধ তুলে নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

    জেলায় সংক্রমণ কিছুটা নিম্নমুখী হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি যে সমস্ত জায়গাগুলিতে মাইক্রো কনটেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল, সেই ঘোষণার মেয়াদও ফুরিয়েছে (West Bardhaman News)। ফলে সেই সমস্ত এলাকার মানুষজন এবার স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে পারবেন। সব মিলিয়ে জেলা প্রশাসন বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায়, কিছুটা স্বস্তি পেয়েছেন স্থানীয় ছোট বাজারের এবং বড় বাজারের ব্যবসায়ীরা। সন্ধ্যার পরে বাজার খোলা থাকায় সুবিধা হবে বলেই মনে করছেন জেলাবাসী।

    Nayan Ghosh

    First published:

    Tags: Asansol, COVID-19, Durgapur, West Bardhaman

    পরবর্তী খবর