Home /News /local-18 /
West Bardhaman News: পানীয় জলের বোতলে ভাসছে শ্যাওলা; জল খেয়ে অসুস্থ অনেকে; বিপাকে পড়েছেন বিক্রেতা

West Bardhaman News: পানীয় জলের বোতলে ভাসছে শ্যাওলা; জল খেয়ে অসুস্থ অনেকে; বিপাকে পড়েছেন বিক্রেতা

News [object Object]

দোকান মালিক দেখেন, সত্যি জলের বোতলের ভিতরে শ্যাওলা জমে রয়েছে। একটি, দুটি নয়, প্রায় সব কটি বোতলের জলের মধ্যে একই অবস্থা। অগত্যা ওই পানীয় জলের সংস্থার দেওয়া ফোন নম্বরে যোগাযোগ করেন ওই বিক্রেতা। কিন্তু কোনও সুরাহা হয় নি

  • Share this:

    #পানাগড় : পানীয় জলের বোতলে ভাসছে শ্যাওলা। জল খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অনেকে। ওই জলের বোতল বিক্রি করে বিপাকে পড়েছেন পানাগড়ের ব্যবসায়ী। পানাগড় ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশেই পানাগড় বাইপাস লাগোয়া একটি চায়ের দোকানের মালিকের অভিযোগ, একটি জল প্রস্তুতকারক সংস্থার কাছ থেকে পানীয় জলের বোতল কিনে বেশ কিছু জলের বোতল তিনি বিক্রি করেন। তারই মধ্যে এলাকার বেশ কিছু ক্রেতা তাকে এসে অভিযোগ করেন, তার বিক্রি করা জলের বোতলের জল খেয়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। অনেকেই হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

    এখন অসুস্থ হয়ে পড়া ক্রেতা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা তার কাছে ক্ষতিপূরণ চাইছেন। বিষয়টা শোনার পরেই দোকান মালিক দেখেন, সত্যি জলের বোতলের ভিতরে শ্যাওলা জমে রয়েছে। একটি, দুটি নয়, প্রায় সব কটি বোতলের জলের মধ্যে একই অবস্থা। অগত্যা ওই পানীয় জলের সংস্থার দেওয়া ফোন নম্বরে যোগাযোগ করেন ওই বিক্রেতা। কিন্তু কোনও সুরাহা হয় নি। উল্টে তারা ওই বিক্রেতাকে যা খুশি করে নেওয়ার হুমকি দিতে থাকে বলে অভিযোগ। সমগ্র পানাগড় বাজার জুড়ে অধিকাংশ দোকানেই একই অবস্থা বলে অভিযোগ করেছেন ওই বিক্রেতা।

    স্থানীয় বাসিন্দা জিয়াউল হক জানিয়েছেন, তিনি এক বোতল জল কিনে নিয়ে বাড়ি গিয়ে খাওয়ার পর থেকেই অসুস্থ বোধ করেন। অবশেষে তিনি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা করিয়ে বাড়ি ফিরে আসেন। তারপর জলের বোতলের দিকে তাকিয়ে লক্ষ করেন, জলের বোতলের ভিতরে শ্যাওলা ভাসছে। এরপর তিনি যে দোকান থেকে জলের বোতল কিনেছিলেন, সেই দোকান মালিককে পুরো বিষয়টি জানান। ততক্ষণে আরও বেশ কিছু এলাকার বাসিন্দারাও ওই দোকান মালিকের কাছে অভিযোগ জানায়। এই বিষয়ে দোকান মালিক বাবর আলী জানিয়েছেন, কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করে কোনো সুরাহা মিলছে না। বাধ্য হয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের ক্ষতিপূরণ বাবদ চিকিৎসার খরচ দিতে হচ্ছে। কোম্পানির পক্ষ থেকে কেউ ব্যবস্থা না নিলে, বাধ্য হয়ে তিনি প্রশাসনের দ্বারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন।

    Nayan Ghosh

    First published:

    Tags: Drinking Water, Panagarh, West Bardhaman

    পরবর্তী খবর