• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Bangla news: অন্ডাল এয়ারপোর্টগামী রাস্তায় নেই কোনও দিক নির্দেশিকা ! সমস্যায় মানুষ

Bangla news: অন্ডাল এয়ারপোর্টগামী রাস্তায় নেই কোনও দিক নির্দেশিকা ! সমস্যায় মানুষ

অন্ডালের কাজী নজরুল বিমানবন্দর।

অন্ডালের কাজী নজরুল বিমানবন্দর।

Bangla news: দু'নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে অন্ডাল এয়ারপোর্ট যাওয়ার রাস্তায় নেই কোনও দিক নির্দেশনা। যার ফলে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান:  অন্ডালের কাজী নজরুল বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। পশ্চিম বর্ধমান জেলায় সভা করতে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই বিশ্বমানের বিমানবন্দর হয়ে উঠবে অন্ডাল এয়ারপোর্ট।

    বর্তমানে এখান থেকে বেশ কিছু অন্তর্দেশীয় রুটে ছোট বিমান চালানো হচ্ছে। বিমান বন্দরে বাড়ছে যাত্রীসংখ্যা। তবে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে বিমানবন্দরে পৌঁছানোর রাস্তা নিয়ে। দু নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে অন্ডাল এয়ারপোর্ট যাওয়ার রাস্তায় নেই কোনও দিক নির্দেশনা। যার ফলে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।

    অন্ডাল এয়ারপোর্ট তৈরি হওয়ার পরে, দুই নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে এয়ারপোর্ট যাওয়ার রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। দুই দিকে ফাঁকা মাঠের মধ্যে দিয়েই তৈরি হয়েছে রাস্তা। কম ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা হওয়ার ফলে রাস্তা দিয়ে মানুষের যাতায়াত কম।

    পাশাপাশি ওই রাস্তায় তৈরি করা হয়নি কোন দিক নির্দেশ। ফলে দু'নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে এয়ারপোর্টে পৌঁছতে সমস্যা হচ্ছে যাত্রীদের। রাস্তায় মানুষের যাতায়াত কম থাকার ফলে, রাস্তা চিনিয়ে দেওয়ার লোক সংখ্যাও নগন্য। যে কারণে বাইরের যাত্রীদের জন্য এয়ারপোর্টগামী রাস্তায়, দিকনির্দেশ অবশ্যম্ভাবী বলে মনে করছেন অনেকে।

    অন্ডাল বিমানবন্দর চালু হওয়ার পরে, এই এলাকার ব্যাপক উন্নয়নের আশা করা হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে অন্ডালের কাজী নজরুল বিমানবন্দর থেকে শুরু হয়েছিল বেশ কয়েকটি রুটের উড়ান। তবে যাত্রী সংখ্যা কম হওয়ার জন্য, বিমান সংস্থাগুলি তাদের উড়ান বন্ধ করে দেয়। স্বাভাবিকভাবে বিমানবন্দরে মানুষের আনাগোনা কমে যায়।

    কিন্তু অন্ডাল এয়ারপোর্টের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে জেলার অর্থনৈতিক অবস্থা বদলে যাওয়ার আশা রয়েছে। তাই জেলা প্রশাসনের অনেক কর্তা থেকে স্থানীয় মানুষজন, অন্ডাল এয়ারপোর্ট থেকে ফের উড়ানের দাবি তুলেছিলেন। তৃণমূল সরকারের আমলে উদ্বোধন হওয়া এই বিমানবন্দরটি পুনরায় সচল করতে উদ্যোগী হন মুখ্যমন্ত্রীও।

    তাই লকডাউনের ধাক্কা কাটিয়ে রাজ্য সরকারের হস্তক্ষেপে আবার উড়ান শুরু হয়েছে অন্ডাল এয়ারপোর্ট থেকে। ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই, দিল্লির মত গুরুত্বপূর্ণ রুটে বিমান চালানো হচ্ছে অন্ডাল এয়ারপোর্ট থেকে। স্বাভাবিকভাবেই এয়ারপোর্টে যাত্রীদের আনাগোনা বাড়ছে। বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ছাড়াও ধানবাদ, ঝাড়খন্ড এবং অন্যান্য জায়গার যাত্রীরাও অন্ডাল এয়ারপোর্টে যাতায়াত শুরু করেছেন। ধীরে ধীরে ব্যস্ত হয়ে উঠছে অন্ডাল এয়ারপোর্ট।

    এমত অবস্থায় রাজ্য সরকার অন্ডাল এয়ারপোর্ট এর মান উন্নয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী দু'বছরের মধ্যেই অন্ডাল এয়ারপোর্ট থেকে আন্তর্জাতিক বিমান চালু করার প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। অন্ডালের কাজী নজরুল এয়ারপোর্টকে বিশ্বমানের এয়ারপোর্ট করে তুলতে চাইছে রাজ্য সরকার।

    জেলার এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গার রাস্তায় দিকনির্দেশ না থাকার জন্য, সমস্যায় পড়ছেন মানুষ। যাত্রীরা বলছেন দু নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে অন্ডাল এয়ারপোর্ট যাওয়ার রাস্তায় কোনও দিকনির্দেশনা নেই। রাস্তায় কখনও ডান দিকে, তো কখনও বাম দিকে যেতে হয়। কিন্তু কোনও দিকনির্দেশনা না থাকার ফলে, গাড়ি চালকরা রাস্তা গুলিয়ে ফেলেন। বিমান বন্দরে যেতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হন মানুষ।

    তাই, গাড়িচালক থেকে সাধারণ যাত্রী - সকলেই বলছেন, দু'নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে অন্ডাল এয়ারপোর্ট যাওয়ার রাস্তায় যদি দিকনির্দেশ তৈরি করে দেওয়া হয়, তা চালকদের পক্ষে অনেক সুবিধাজনক হবে। বাইরের মানুষ জন খুব সহজে বিমানবন্দরে পৌঁছতে পারবেন। তাই বিষয়টির দিকে প্রশাসনের নজর দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছেন অনেকেই।

    Nayan Ghosh

    Published by:Piya Banerjee
    First published: