Home /News /local-18 /
Paschim Bardhaman: ছাড়া পেলেন আহত ১১ বিমানযাত্রী, ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা

Paschim Bardhaman: ছাড়া পেলেন আহত ১১ বিমানযাত্রী, ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা

দুর্গাপুরের

দুর্গাপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আহত যাত্রীদের। বিমানবন্দরে যাত্রীরা। 

অন্ডাল বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিপত্তির জেরে গুরুতর ভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছিলেন ১৪ জন যাত্রী। তাদের সকলকেই দুর্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তবে তাদের মধ্যে ১১ জনকে ইতিমধ্যেই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    অন্ডাল, পশ্চিম বর্ধমান : অন্ডাল বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিপত্তির জেরে গুরুতর ভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছিলেন ১৪ জন যাত্রী। তাদের সকলকেই দুর্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তবে তাদের মধ্যে ১১ জনকে ইতিমধ্যেই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর ওই সমস্ত আহত যাত্রীদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে হাসপাতাল থেকে। তবে এখনও পর্যন্ত তিন জন আহত যাত্রী হাসপাতালে ভর্তি, এমনটাই জানা গিয়েছে বিমানবন্দর সূত্রে। চিকিৎসাধীন তিন যাত্রীর মধ্যে এক যাত্রীর মেরুদন্ডে গুরুতর আঘাত লেগেছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে সূত্রের খবর, পাইলটের দক্ষতার জেরে বড়সড় দুর্ঘটনা এড়ানো গিয়েছে। উল্লেখ্য, রবিবার সন্ধ্যায় অন্ডাল বিমানবন্দরে অবতরণের আগে এয়ার টার্বুলেন্স এর মুখোমুখি হয় একটি বিমান। মুম্বাই থেকে অন্ডালগামী স্পাইসজেট এর একটি বিমান যাত্রীদের নিয়ে কাজী নজরুল বিমানবন্দরে আসছিল নির্ধারিত সূচী অনুযায়ী। জানা গিয়েছে, অন্ডাল বিমানবন্দর থেকে ১০০ নটিক্যাল মাইল দূরে বিপত্তির মুখোমুখি হয় বিমানটি। খারাপ আবহাওয়ার জেরে বিমানে শুরু হয় প্রবল ঝাঁকুনি। বিমানের যাত্রীদের বয়ানে জানা গিয়েছে, বিমানটি তিনবার মাঝ আকাশে প্রবল ঝাঁকুনি দেয়। যার জেরে যাত্রীরা আঘাতপ্রাপ্ত হন। অনেকেই সিট থেকে পড়ে যান। অনেকে সোজা গিয়ে ব্যাগপত্র রাখার রেকের সঙ্গে ধাক্কা মারেন। তবে সূত্রের খবর, বিপত্তি বুঝতে পেরে পাইলট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিমানটি অবতরণ করান। এক্ষেত্রে পাইলট দক্ষতার সঙ্গে নিজের কাজ করেছেন বলে মত বিশেষজ্ঞদের। বিমানবন্দর সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে, খারাপ আবহাওয়ার জেরেই বিপত্তির মুখোমুখি হয়েছিল মুম্বাই থেকে অন্ডালগামী বিমানটি। ঘটনায় ১৪ জন যাত্রী আহত হন গুরুতরভাবে। তাছাড়াও সবাই রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এই ঘটনায়। যদিও বিমানটি অবতরণের সঙ্গে সঙ্গেই আহত যাত্রীদের দুর্গাপুর একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবতরণের পর বিমান থেকে নেমে নিজেদের আতঙ্ক এবং ঘটনার কথা প্রকাশ করেছেন যাত্রীরা। তাদের চোখে মুখে স্পষ্ট ভাবে ফুটে উঠেছিল আতঙ্কের ছাপ। প্রাণে রক্ষা পেয়ে ভগবানকে ধন্যবাদ দিয়েছেন তারা। ভয়ঙ্কর এই বিপত্তির কথা ব্যক্ত করেছেন যাত্রীরা। উল্লেখ্য, বর্তমানে প্রতিদিনই মুম্বই এবং অন্ডালের মধ্যে একটি ছোট বিমান চলাচল করে। অন্যান্য দিনের সময়সূচী মতোই রবিবার বিমানটি সন্ধ্যাবেলায় অন্ডাল বিমানবন্দরে অবতরণ করছিল কিন্তু ব্যাপক ঝড়-বৃষ্টির জেরে অবতরণের ঠিক আগে বিমানটিতে ঝাঁকুনি শুরু হয় এবং দুর্ঘটনাটি ঘটে। তবে অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে বিশেষজ্ঞদের মত।

    Nayan Ghsoh
    First published:

    Tags: Andal Airport, Durgapur, Paschim bardhaman

    পরবর্তী খবর