Home /News /local-18 /

বার্নপুরে রাজ্য স্তরের বক্সিং প্রতিযোগিতা, অংশ নিয়েছিলেন পুরুষ-মহিলা উভয়ই

বার্নপুরে রাজ্য স্তরের বক্সিং প্রতিযোগিতা, অংশ নিয়েছিলেন পুরুষ-মহিলা উভয়ই

বার্নপুর স্টেডিয়ামে চলছে বক্সিং প্রতিযোগিতার ম্যাচ।

বার্নপুর স্টেডিয়ামে চলছে বক্সিং প্রতিযোগিতার ম্যাচ।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার মোট ১০৫ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেছিলেন। যার মধ্যে ৭৩ জন পুরুষ প্রতিযোগী ছিলেন।

  • Share this:

    নয়ন ঘোষ, আসানসোল: জনপ্রিয় ইনডোর গেমগুলির মধ্যে অন্যতম বক্সিং প্রতিযোগিতা। রাজ্যের বিভিন্ন বক্সিং প্রতিযোগীকে উৎসাহ দিতে আয়োজন করা হয়েছে এই বক্সিং প্রতিযোগিতার। দু'দিনব্যাপী রাজ্য স্তরের একটি বক্সিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে বার্নপুরে। প্রতিযোগিতা চলছে বার্নপুর স্টেডিয়ামে। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেছেন রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক। প্রতিযোগিতাকে কেন্দ্র করে ক্রীড়াপ্রেমীদের মধ্যে উৎসাহ রয়েছে তুঙ্গে। পাশাপাশি প্রতিযোগিরাও নতুন উদ্যমের সঙ্গে বক্সিং চাম্পিয়নশিপ চালিয়ে যাচ্ছেন। এখানে জয়ী, রানার্স আপদের জন্য রাখা হয়েছে পুরস্কার। ফাইনাল রাউন্ড শেষে এই পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

    পশ্চিম বর্ধমান জেলায় অনুষ্ঠিত হওয়া এই বক্সিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে, অ্যামেচার বক্সিং এসোসিয়েশন। দু'দিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছেন রাজ্যের সব পর্যায়ের বক্সিং প্রতিযোগিরা। দু'দিনব্যাপী এই বক্সিং প্রতিযোগিতা, রাজ্য পর্যায়ের সাব জুনিয়ার প্রতিযোগিতা।

    উল্লেখ্য, বক্সিং ম্যাচগুলি দেখতে ক্রীড়াপ্রেমীদের মধ্যে উৎসাহ রয়েছে। বহু মানুষ এই বক্সিং ম্যাচগুলি দেখতে স্টেডিয়ামে হাজির হচ্ছেন। রবিবার ছুটির দিন থাকায় প্রচুর দর্শক জামায়েত করেছিলেন।

    এদিনের এই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি রূপে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের আইন ও পূর্তমন্ত্রী মলয় ঘটক। এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে রাজ্যের মন্ত্রীকে সম্বর্ধনা জানানো হয়। রবিবার প্রতিযোগিতার শেষদিনে বিভিন্ন ইভেন্টে জয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মন্ত্রী মলয় ঘটক। আগামী দিনে আরও অনেকদূর এগিয়ে যাবার জন্য প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের উৎসাহিত করেন তিনি।

    উল্লেখ্য, পশ্চিম বর্ধমান জেলার মোট ১০৫ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেছিলেন এই প্রতিযোগিতায়। যার মধ্যে ৭৩ জন পুরুষ প্রতিযোগি ছিলেন। বক্সিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিলেন ৩২ জন মহিলা প্রতিযোগী। বস্কিং প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মলয় ঘটক, সেলের ইসকোর আধিকারিক অনুপ কুমার, ইসকোর আধিকারিক সুস্মিতা রায় সহ প্রমুখেরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও অ্যাসোসিয়েশনের একাধিক কর্মকর্তারা হাজির ছিলেন।

    অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগিতারা বলছেন, এই ধরনের প্রতিযোগিতা তাদের মধ্যে উৎসাহ বাড়িয়ে তোলে। জাতীয় স্তরে, আন্তর্জাতিক স্তরে খেলার জন্য তারা নিজেদের প্রস্তুত করতে পারেন। বিভিন্ন সময় এইভাবে ছোট ছোট প্রতিযোগিতার আয়োজন যদি করা হয়, তাহলে তা, তাদের পক্ষেও সুবিধাজনক হয়। পাশাপাশি এই ধরনের প্রতিযোগিতা দেখে, বক্সিংয়ের প্রতি মানুষের আগ্রহও বাড়বে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Asansol, Boxing

    পরবর্তী খবর