Home /News /local-18 /
West Bardhaman- মুরগি কিনে ৮০ লক্ষ টাকার বেশি প্রতারণা। বেসরকারি সংস্থার মামলায় ধৃত অভিযুক্ত।

West Bardhaman- মুরগি কিনে ৮০ লক্ষ টাকার বেশি প্রতারণা। বেসরকারি সংস্থার মামলায় ধৃত অভিযুক্ত।

অভিযুক্ত পার্থ মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে কাঁকসা থানার পুলিশ।

অভিযুক্ত পার্থ মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে কাঁকসা থানার পুলিশ।

প্রায় ৮৬ লক্ষ টাকার মুরগির বাচ্চা কিনেছিলেন কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থা থেকে। তবে বকেয়া টাকা তিনি মেটান নি।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান- মুরগির বাচ্চা কিনে প্রায় ৮৬ লক্ষ টাকার প্রতারণা। কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে অভিযোগ। ঘটনার তদন্তে নেমে অভিযুক্ত প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে কাঁকসা থানার পুলিশ। ধৃত ব্যক্তির নাম পার্থ মন্ডল। তিনি কাঁকসার বিরুডিহার বাসিন্দা। তাকে আদালতে তোলা হলে, বিচারক পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত পার্থ মন্ডল মুরগি খামারের ব্যবসা করেন। তার বাড়ি কাঁকসার বিরুডিহায়। সেখান থেকেই তিনি তার ব্যবসা পরিচালনা করেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি প্রায় ৮৬ লক্ষ টাকার মুরগির বাচ্চা কিনেছিলেন। কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থার থেকে মুরগির বাচ্চা গুলি কিনেছিলেন তিনি। ধারে সেই মুরগির বাচ্চা গুলি ক্রয় করেছিলেন অভিযুক্ত পার্থ দে। তবে বকেয়া টাকা তিনি মেটান নি। এরপরেই তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত নেয় কলকাতার বেসরকারি সংস্থাটি। তাদের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই ঘটনার কথা বলতে গিয়ে, কলকাতা লেলিন সরণির বেসরকারি সংস্থার কর্ণধার শুভদীপ নন্দী জানিয়েছেন, বিপুল পরিমাণ মুরগির বাচ্চা অভিযুক্ত ধারে কিনেছিলেন। সংস্থা থেকে তিনি প্রায় ৮৬ লক্ষ টাকার মুরগির বাচ্চা কিনেছিলেন। কিন্তু টাকা মেটানোর কোনরকম চেষ্টা করছিলেন না অভিযুক্ত। দীর্ঘদিন ধরে সংস্থাটি পার্থ মণ্ডল এর কাছে সেই বকেয়া টাকা মেটানোর জন্য অনুরোধ করে। তবে সে কথায় কর্ণপাত করেন নি পার্থ মণ্ডল। তারপরেই গত ২৩ নভেম্বর কাঁকসা থানায় প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে। ঘটনার তদন্তে নেমে বিরুডিয়া থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে পার্থ মণ্ডলকে। শুধুমাত্র মুরগির বাচ্চা কিনে বিপুল পরিমাণ টাকা প্রতারণার কাণ্ডে হতবাক অনেকেই। তারা বুঝে উঠতে পারছেন না, মুরগির বাচ্চা কিনতে এত বিপুল পরিমাণ ধার কেন করেছিলেন অভিযুক্ত পার্থ মন্ডল। কেনই বা তিনি এই টাকা মেটান নি। যদিও গ্রেফতারের পর, এই বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি অভিযুক্ত। বেসরকারি সংস্থাটিও বকেয়া এই বিপুল টাকা উদ্ধারের জন্য আইনের দ্বারস্থ হয়েছে।

    First published:

    Tags: Chicken, Fraud, West Bardhaman

    পরবর্তী খবর