Home /News /local-18 /

Student Credit Card: জেলার ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে এলো স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড

Student Credit Card: জেলার ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে এলো স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড

ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড

ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড

আর্থিক সমস্যা আর বাধা হয়ে দাঁড়াবে না সুন্দরবনের প্রত্যন্ত এলাকার ছাত্র ছাত্রীদের পড়াশোনায় 

  • Share this:

    রুদ্র নারায়ন রায়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে বেড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের জন্য ক্রেডিট কার্ড চালু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেইমতো অনেক স্টুডেন্টই ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদনপত্র জমা দিয়েছিল। সেই আবেদনের ভিত্তিতে এবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বারুইপুর রবীন্দ্রভবনে, বারুইপুর মহকুমা শাসকের উদ্যোগে একটি স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড বিতরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বারুইপুর পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, বারুইপুর পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক বিভাস সরদার, বারুইপুরের মহকুমা শাসক সুমন পোদ্দার, বারুইপুর পৌরসভার মুখ্য প্রশাসক শক্তি রায়চৌধুরী সহ অন্যান্য সরকারি আধিকারিকরা। বারুইপুর রবীন্দ্রভবন থেকে প্রায় ১৭০ জন ছাত্রছাত্রীর হাতে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড তুলে দেওয়া হয়।

    পাশাপাশি, জেলার বাকি চারটি মহকুমায়ও বিশেষ শিবিরের আয়োজন করা হয়। ক্যানিংয়ে মহকুমা শাসকের অফিসেও হয় অনুষ্ঠান। জেলায় প্রায় সাত হাজার ছাত্রছাত্রী স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদন করেছিল বলে প্রশাসনিক সূত্রে খবর। তার মধ্যে ৬৪৫ জনের ঋণ অনুমোদিত হয় এবং ৪৩২ জনকে কার্ড প্রদান করা হয়েছে বলে জানা যায়।

    বিএসসি নার্সিং-এর ছাত্রী সায়নী পুরকাইত বলেন, 'বাবার ছোট একটা ব্যবসা রয়েছে। দাদা এমবিবিএস পরছে। ফলে আমাদের দুজনের পড়াশোনা খরচ চালানো কার্যত সম্ভব হয়ে উঠছিল বাবার কাছে। মুখ্যমন্ত্রীর এই স্কিম যেভাবে স্টুডেন্টদের সাহায্য করছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আমাদের মতো মধ্যবিত্তদের জন্য এটা খুবই প্রয়োজনীয়।' এর জন্য ছাত্রী আন্তরিক ধন্যবাদও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।অপরদিকে, আইনের ছাত্র তাহের আহমেদ জানান, 'কম সুদে ১০ লক্ষ টাকা অব্দি পাওয়া যাবে, এটা খুব বড় সুযোগ। এখন সকলেই পড়তে পারবে। আর্থিক সমস্যা আর বাধা হয়ে দাঁড়াবে না।'

    জানা যায়, এই প্রকল্পে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবে ছাত্র-ছাত্রীরা। একবারে পুরো ১০ লক্ষ টাকা না নিয়ে, ধাপে ধাপেও সেই টাকা নেওয়া যাবে। এই ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে অনলাইনে। দশম শ্রেণী থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা এই প্রকল্পে ঋণ নিতে পারবেন। ৪০ বছর বয়স পর্যন্ত ঋণ নেওয়া যাবে। তবে এই ছাত্রছাত্রীকে হতে হবে ১০ বছরের জন্য পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। বছরে চার শতাংশ সুদে ঋণ মেটাতে হবে পড়ুয়াদের। সুন্দরবনের প্রত্যন্ত এলাকার ছাত্রছাত্রীরাও স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড হাতে পেয়ে খুশি।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: South 24 Parganas news, Sundarban, West Bengal news

    পরবর্তী খবর