Home /News /local-18 /

বাবা অসুস্থ। সংসারে অভাব ! পরিচারিকার কাজ করেও মাধ্যমিকে দারুণ রেজাল্ট সরিতার

বাবা অসুস্থ। সংসারে অভাব ! পরিচারিকার কাজ করেও মাধ্যমিকে দারুণ রেজাল্ট সরিতার

পড়াশোনার পাশাপাশি সরিতা পরিচারিকার কাজ করে

  • Share this:

     শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ির অদূরে ইলা পাল চৌধুরী মেমোরিয়াল ট্রাইবাল স্কুলের ছাত্রী সরিতা মণ্ডল। বাড়ি সুকনা চা বাগানের শ্রমিক বলয়ের বাসিন্দা। বাবা ধ্বনিলাল মণ্ডলের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল নয়। মা ক্রান্তি মণ্ডল ও বাবা ধ্বনিলালবাবু দু\'জনে চা বাগানে কাজ করে সংসার চালিয়ে যাচ্ছেন। তবুও সংসার সামলানো দায় মা-বাবার। তাই পড়াশোনার পাশাপাশি সরিতা পরিচারিকার কাজ করতে শুরু করে। চলতি বছরের মাধ্যমিকে সরিতা পেয়েছে ৪৪৯। প্রত্যেকটি বিষয়ে ওঁর প্রাপ্ত নম্বর ৬০ শতাংশের ওপরে। সরিতা প্রথম ভাষায় ৭০, দ্বিতীয় ভাষায় ৬৬, গণিতে ৬৩, ভৌত বিজ্ঞানে ৬০, জীবন বিজ্ঞানে ৬০, ইতিহাসে ৬৫ এবং ভূগোলে ৬৫। সরিতা বলে, \'বাবা-মাকে দেখি বাগানে কষ্ট করতে। তাই আমি পরিচারিকার কাজ করি। যাতে ওঁদেরকে একটু সাহায্য করতে পারি।\' অভাবী ছাত্রীটি বলে, \'আমাদের অভাবের সংসার। আমি অন্য বাড়িতে কাজ করেও মাকে সংসারে সাহায্য করি। তারপর আমার এই ফলাফলে আমি খুশি।\' এদিকে সরিতার মা ক্রান্তিদেবী বলেন, \'মেয়ের সাফল্যে খুবই খুশি। খুব ভালো লাগছে। অভাবের সংসারে কি করব মেয়েকে নিয়ে, সেটাই চিন্তার।\' অন্যদিকে, সরিতার বাবা ধ্বনিলালবাবুর কথা, \'অনেক কষ্টে মেয়েকে এতটা দূর আনতে পারলাম। বাড়িতে মোবাইল নেট চলে না। মেয়েকে ইন্টারনেটের ব্যবস্থাও করে দিতে পারিনি। ফলে অনলাইনে যে ক্লাস হয় তাও মেয়ে আমার পায়নি। আজ ওঁর এই সাফল্যের পেছনে ওঁইই একমাত্র দায়ি। তবে মেয়ের দুচোখে অনেক স্বপ্ন। কি করে পূরণ করব জানি না।\' প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সকাল ৯টা নাগাদ এবছরের মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করেন। তিনি জানান, এবার মাধ্যমিকে পরীক্ষার্থী ছিল ১০ লক্ষ ৭৯ হাজার ৭৪৯ জন। পাশের হার ১০০ শতাংশ। অর্থাৎ পরীক্ষার্থীরা সকলেই পাশ করেছেন। ৭৯ জনের প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৭। করোনা সংক্রমণের কারণে এবার পরীক্ষা হয়নি। সেকারণে মেধাতালিকা প্রকাশিত হবে না। সকাল ১০টা থেকে পরীক্ষার্থীরা ওয়েবসাইটে জন্মতারিখ ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে লগ ইন করে পরীক্ষার ফল জানতে পারবে। স্কুল থেকে এদিনই মিলবে মার্কশিট। মার্কশিট নিতে হবে অভিভাবকদের।

    ভাস্কর চক্রবর্তী

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Madhyamik, Siliguri

    পরবর্তী খবর