• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Siliguri- গুনগুনাতে রাহো! মিষ্টি আরাধনা থেকে ডাক্তারের মুখোমুখি, নয়া প্রজন্মের নয়া মাধ্যম 'রেডিও মিষ্টি'

Siliguri- গুনগুনাতে রাহো! মিষ্টি আরাধনা থেকে ডাক্তারের মুখোমুখি, নয়া প্রজন্মের নয়া মাধ্যম 'রেডিও মিষ্টি'

রেডিও মিষ্টি নিয়ে একান্ত সাক্ষাৎকারে নিউজ ১৮ লোকাল

রেডিও মিষ্টি নিয়ে একান্ত সাক্ষাৎকারে নিউজ ১৮ লোকাল

তরুণ প্রজন্মকে আয়ের পথ দেখানো তথা তাঁদের প্রতিভাকে শিরোনামে তুলে ধরছে শিলিগুড়ির রেডিও মিষ্টি ৯৪.৩ এফএম।

  • Share this:

    #শিলিগুড়ি: টিভি, খবরের কাগজ এবং মোবাইল ফোনের যুগে বিলীন হয়ে পড়ছে রেডিও! এই কথা কি বাস্তব? আদৌ কিন্তু না। নবীন প্রজন্মকে আয়ের দিশা দেখাচ্ছে এখন এই রেডিও। পাহাড় থেকে সমতল, সব স্তরেই যেন রেডিও-র পরিচিতি বহাল রয়েছে। এই পরিচিতি একদিনে তৈরি হয়নি। হয়েছে প্রচুর পরিশ্রম এবং কষ্টের পর!

    শিলিগুড়ির বুকে হাকিমপাড়ার পালবাড়ির পরিবেশ! সকাল সকাল পড়তে বসেছিল বিল্টু। হঠাৎ ঠাকুমার বায়না কানে এল, 'একটু রেডিওটা চালিয়ে দে না বাবা!' বিল্টু চট করে ফোনটা অন করে রেডিও চালু করে দিল। তখন রেডিও মিষ্টির সকালের অনুষ্ঠান 'মিষ্টি আরাধনা'-তে মেতেছেন ঠাকুমা। এরপর ভক্তির গানে নিজেকে প্রায় ভাসিয়ে নিলেন বিল্টুর ঠাকুমা। এদিকে, আবার দেশবন্ধুপাড়ার অঙ্কিতার বাবার প্রেশার যেন কমছেই না। কীভাবে  কি করবে না করবে ভেবে উঠতেই পারছেন না বছর ২৬-এর অঙ্কিতা সাহা।অগত্যা বেশ অন্যমনস্ক হয়েই চালিয়ে দিলেন রেডিও। ধুর, ইংলিশ বা হিন্দি গানে মন বসছে না। মন আটকালো সেই ৯৪.৩ এফএমে। সেখানে ডাক্তারবাবু পরামর্শ দিচ্ছেন আরজে-র (RJ-Radio Jockey) সঙ্গে। বাবার প্রেশার নিয়ে যা যা প্রশ্ন ছিল, সব ফোন ঘুরিয়ে জিজ্ঞেস করে নিলেন ডাক্তারবাবুর কাছে। এদিকে সায়ন্তনী ও বিশ্বজিতের দেদার ঝগড়া। সেই দেখা করতে এসে হয়ত একটু দেরী হয়েছে। সেজন্য দুজনের কথা বন্ধ। মন কষাকষিতে সবার প্রথমে সায়ন্তনী। অগত্যা মানাতেই হবে। বিশ্বজিৎ আবার জানে ওর প্রেয়সীর পছন্দ, রেডিও-তে গান শোনা। তাই অন রিকোয়েস্ট (On Request) আরজে (Radio Jockey) কে বলল 'মন মাতানো বলিউডের রোমান্টিক গান.' এই গান চালিয়ে সায়ন্তনী বসুকে ডেডিকেট (Dedicate) করতে। সায়ন্তনী যথারীতি সেই গান শুনে গদগদ! এভাবেই দিন প্রতিদিন কোথাও ভাঙা মন জোড়া লাগিয়ে, কোথাও আবার ভক্তিগীতি শুনিয়ে মন জয় করে নিচ্ছে শিলিগুড়ির বুকে সেভোক রোডে অবস্থিত রেডিও মিষ্টি ৯৪.৩ এফএম। রেডিও স্টেশনের কর্ণধার দিলীপ দুগ্গরের সঙ্গে এই নিয়ে একান্ত সাক্ষাৎকার সারল নিউজ ১৮ লোকাল। এদিন, আমাদের রেডিও মিষ্টির সিইও অর্থাৎ চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (Chief Executive Officer) দিলীপ বলেন, 'মানুষের রেডিও-র প্রতি ভালোবাসার কথা মাথায় রেখেই চালু করা হয় এই স্টেশন। টেন্ডার বিড (Tender Bid) করে অকশন (Auction) করে ২০০৭ সালের ১৪ নভেম্বর থেকে আমাদের পথচলা শুরু। এখানে লোকগান, লোকনৃত্য সবকিছুর পরিবেশন হয়। আমরা বেশিরভাগ স্থানীয় প্রতিভাকে গুরুত্ব দিয়ে থাকি। এভাবে আমরা পাহাড় এবং সমতলের প্রতিভাকে এগিয়ে নিতে চাই বৃহত্তর জগতে।' তিনি আরও বলেন, 'করোনা আমাদের অনেককিছু শিখিয়েছে। কীভাবে নিজেদের সুরক্ষিত রাখব। কীভাবে আয়ের পথে চলব। কিন্তু আমার মতে, সংকট নতুন পথ দেখায়। আমরা থামিনি। আমরা আমাদের কাজ চালিয়ে গেছি। সুদূর পাহাড় থেকে শুরু করে সমতল! সব জায়গার গানবাজনা, আবৃত্তি, নাটক, নাচ, গল্প তুলে ধরতে বদ্ধপরিকর আমরা। গত ১৪ বছর ধরে একভাবে আমাদের রেডিওতে একটি অনুষ্ঠান চলছে, যার নাম ডক্টর্স লাইভ (Doctors Live)। এই অনুষ্ঠানে আমরা বিশিষ্ট ডাক্তারদের আমাদের স্টুডিওতে ডেকে কথা বলি। আমাদের শ্রোতাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরি। এই সমস্যার কথা আবার শ্রোতাদের কাজেও লাগে।' রেডিও মানেই শুধু পছন্দমত গান নয়, জানান দিলীপবাবু। তিনি বলেন, 'শুধুমাত্র হিন্দি বা ইংলিশ গান নয়। আমাদের রেডিওতে শুনতে পাবেন বাংলা ও নেপালী গানও। স্থানীয় ভাষাকে গুরুত্ব দিয়েই আমাদের পথচলা। এছাড়াও স্থানীয় প্রচুর ব্যান্ড (band) আমাদের স্টুডিওতে (Studio) এসে নিজেদের প্রতিভা দেখিয়ে গিয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন টক শো (Talk Show) এর আয়োজন থাকে। থাকে মন ভালো করা গল্প।' এভাবেই তরুণ প্রজন্মকে আয়ের পথ দেখানো তথা তাঁদের প্রতিভাকে শিরোনামে তুলে ধরছে শিলিগুড়ির রেডিও মিষ্টি ৯৪.৩ এফএম। Vaskar Chakraborty
    Published by:Samarpita Banerjee
    First published: