• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Bengal News| Laxmir Bhandar: বাড়ি বাড়ি লক্ষ্মীর ভান্ডারের আবেদনপত্রের ভুল সংশোধন কাজ শুরু হল জেলা শাসকের নির্দেশে

Bengal News| Laxmir Bhandar: বাড়ি বাড়ি লক্ষ্মীর ভান্ডারের আবেদনপত্রের ভুল সংশোধন কাজ শুরু হল জেলা শাসকের নির্দেশে

লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের প্রতীকী ছবি

লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের প্রতীকী ছবি

কাজটি স্থানীয় আশা, অঙ্গনওয়াড়ি ও পঞ্চায়েত কর্মীরা করবেন (Laxmir Bhandar)। সাতদিন ধরে চলবে এই কাজ।

  • Share this:

    তমলুক: লক্ষ্মীর ভান্ডারের (Laxmi Bhandar) ত্রুটিপূর্ণ আবেদন সংশোধন করতে বাড়ি বাড়ি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল পূর্ব মেদিনীপুর (Bengal News, East Midnapore) জেলা প্রশাসন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লক্ষ্মীর ভান্ডার এর আবেদন পত্র সংশোধনের কথা ঘোষণা করেন। সেইমতো পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন লক্ষ্মীর ভান্ডার এর আবেদন পত্র সংশোধনের কাজ করতে উদ্যোগী হয়েছে। ২৫ অক্টোবর সোমবার থেকে জেলার প্রতিটি ব্লকে লক্ষ্মীর ভান্ডার আবেদনের সংশোধন কর্মসূচি শুরু হয়েছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর একজন আবেদনকারীও যাতে প্রকল্প থেকে বঞ্চিত না হয়, তার জন্যই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আরও পড়ুন Bengal News| School to Reopen after 9 years: পড়ুয়ার অভাবে ৯ বছর আগে বন্ধ হওয়া স্কুল ফের চালু করতে উদ্যোগ দুয়ারে সরকার শিবিরের মাধ্যমে পূর্ব মেদিনীপুর (East Midnapore) জেলায় লক্ষ্মীর ভান্ডার (Laxmir Bhandar) প্রকল্পে প্রায় ১০ লক্ষ ৬৭ হাজার ৭৪টি আবেদন জমা পড়ে। আবেদনগুলি জমা পড়ার পর জেলাপ্রশাসন সেগুলি দ্রুত গতিতে যাচাইয়ের কাজ শেষ করে। ইতিমধ্যে জেলার প্রায় ৮ লক্ষ ৭৩ হাজার ৫৬৮ জন মহিলা লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের দু মাসের ভাতা পেয়েছেন। কিন্তু আবেদনের মধ্যে ১ লক্ষ ৮০ হাজার ১৩৪টি আবেদন ত্রুটিপূর্ণ বলে চিহ্নিত হয়। আরও পড়ুন মাছের দাম উঠল ৩৬ লক্ষ! সুন্দরবনে দৈত্যাকার মাছ দেখতে ভিড় সাধারণ মানুষের জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, অনেকের আবেদন পত্রের ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্টের নম্বর ভুল রয়েছে (rectification of Laxmir Bhandar)। কারও নামের সঙ্গে ব্যঙ্ক অ্যাকউন্ট মেলেনি। আবেদনপত্রে দেওয়া অন্যান্য তথ্যেরও গরমিল রয়েছে। পাশাপাশি অনেকে আবেদন পত্রের সঙ্গে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড, জাতিগত শংসাপত্র জমা করতে পারেননি। তাই জেলাপ্রশাসন সিদ্ধান্ত নিয়েছে আগামী সোমবার থেকে প্রতিটি গ্রামে আবেদনকারীর বাড়িবাড়ি যাবেন সরকারি প্রতিনিধিরা। তাঁরা তথ্য যাচাই করে আবেদন পত্রটিকে ত্রুটিমুক্ত করবেন। ওই কাজটি স্থানীয় আশা, অঙ্গনওয়াড়ি ও পঞ্চায়েত কর্মীরা করবেন। সাতদিন ধরে চলবে এই কাজ। আরও পড়ুন Bengal News| Good News: বিশ্বেসেরা বিজ্ঞানীদের তালিকায় বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই অধ্যাপক পূর্ব মেদিনীপুরের (Bengal News, East Midnapore) জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজি বলেন, "লক্ষ্মীর ভান্ডার (Laxmir Bhandar) প্রকল্পে যে আবেদনগুলি ত্রুটিপূর্ণ সেগুলি বাড়াবাড়ি গিয়ে সংশোধন করা হবে। এদিন ২৫ অক্টোবর থেকে কাজ শুরু করা হয়েছে। একজন আবেদনকারীও প্রকল্প থেকে বাদ পড়বেন না। জেলায় প্রায় দু লক্ষ আবেনদকারীর আবেদন মঞ্জুর হলেও এখনও মেলেনি অনুদান।" জেলাশাসক আরও বলেন, “যাঁরা মোবাইলে মেসেজ পেয়েছেন ধাপে ধাপে তাঁদের প্রত্যেকেরই অনুদান চালু হয়ে যাবে। পুজোর সময় ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকায় কিছু সংখ্যক অনুদান ঢোকেনি। খুব শীঘ্রই তাঁরাও টাকা পেয়ে যাবেন।”

    Published by:Pooja Basu
    First published: