Home /News /local-18 /
Purba Medinipur: রয়েছে রেলস্টেশন, নেই কোনও যাত্রী পরিষেবা এমনকি রাস্তাও!

Purba Medinipur: রয়েছে রেলস্টেশন, নেই কোনও যাত্রী পরিষেবা এমনকি রাস্তাও!

হেঁড়িয়া

হেঁড়িয়া রেলস্টেশন

দক্ষিণ পূর্ব রেল শাখার অন্তর্ভুক্ত দিঘা রেল লাইন। এই রেল লাইনের উপরে রয়েছে হেঁড়িয়া রেল স্টেশন। তবে তা অবশ্য শুধুই রেলস্টেশন। যাত্রী পরিষেবার বিন্দুমাত্র কোন কিছুই মেলেনা এখানে।

  • Share this:

    পূর্ব মেদিনীপুর: দক্ষিণ পূর্ব রেল শাখার অন্তর্ভুক্ত দিঘা রেল লাইন। এই রেল লাইনের উপরে রয়েছে হেঁড়িয়া রেল স্টেশন। তবে তা অবশ্য শুধুই রেলস্টেশন। যাত্রী পরিষেবার বিন্দুমাত্র কোন কিছুই মেলেনা এখানে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার খেজুরি এক নম্বর ব্লকে অবস্থিত এই হেঁড়িয়া রেল স্টেশন। স্টেশনে নেই পানীয় জলের ব্যবস্থা, নেই শৌচাগার। প্লাটফর্মে যাত্রীদের জন্য রয়েছে একটি মাত্র যাত্রীশেড। কিন্তু যাত্রীশেডের ছাদের টিন উড়ে গিয়েছে। প্লাটফর্মে বসার জায়গা নেই। অথচ প্রতিদিন কয়েকশো মানুষ এই স্টেশন থেকে লোকাল ট্রেন ধরেন। স্টেশন থেকে দিঘা আপ লোকাল ট্রেনে করে একদিকে কাঁথি, রামনগর দিঘা যাওয়া যায়। ডাউন লোকাল ট্রেনে করে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সদর শহর তমলুক, পাঁশকুড়া মেছেদা নন্দকুমার সহজেই পৌঁছে যাওয়া যায়। প্রতিদিন জীবিকার তাগিদে, চিকিৎসার প্রয়োজনে এবং অফিস যাত্রীসহ কলেজ ছাত্র ছাত্রীরা এই স্টেশন থেকে লোকাল ট্রেন ধরেন। কিন্তু হেঁড়িয়া স্টেশনে আসার জন্য নেই সংযোগকারী রাস্তা। অথচ হেঁড়িয়া স্টেশনের ৫০০ মিটার দূরে রয়েছে ১১৬ বি নন্দকুমার দিঘা জাতীয় সড়ক। এবং ২০০ মিটারের মধ্যে রয়েছে ইটাবেড়িয়া মেছাদা রাজ্য সড়ক। কিন্তু স্টেশনে আসার সংযোগকারী রাস্তা প্রতি বর্ষায় কর্দমাক্ত হয় এবং জলে ডুবে যায়। এবিষয়ে রেল কর্তৃপক্ষ উদাসীন। মাঝে একবার খেজুরি এক নম্বর ব্লক প্রশাসন উদ্যোগী হয়েছিল সংযোগকারী রাস্তা তৈরি করার। কিন্তু জটিলতার কারণে তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। ফলে প্রতিদিন ভোগান্তির মুখে পড়েন নিত্যযাত্রীরা। করোনার আগে এই লাইনে কয়েক জোড়া লোকাল ট্রেন যাতায়াত করত। কিন্তু বর্তমানে দুটি লোকাল ট্রেন যাতায়াত করছে। প্রতিদিন নানা অসুবিধার সম্মুখীন হয়েও যাত্রীরা এভাবেই স্টেশন থেকে লোকাল ট্রেনে করে কর্মস্থলে যাতায়াত করছেন।

    First published:

    Tags: Digha, Purba medinipur

    পরবর্তী খবর