Home /News /local-18 /
Netaji Birth Anniversary- নেতাজির জন্মজয়ন্তীর আগে ফিরে দেখা তমলুক শহরে নেতাজির কর্মকাণ্ড

Netaji Birth Anniversary- নেতাজির জন্মজয়ন্তীর আগে ফিরে দেখা তমলুক শহরে নেতাজির কর্মকাণ্ড

তাম্রলিপ্ত

তাম্রলিপ্ত পৌরসভা

১৯৩৮ সালে ১১ এপ্রিল জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র বসু তমলুক শহরে এসেছিলেন। 

  • Share this:

    #তমলুক: ঐতিহাসিক শহর তমলুক। প্রাচীন তাম্রলিপ্ত নগরী বা তমলুক শহরে বহু বিখ্যাত মানুষের স্মৃতি। তমলুক শহর ভারত বিখ্যাত মানুষের কর্মকাণ্ডের স্মৃতি ধরে রেখেছে বর্তমানেও। ২৩ জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মদিন। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু রাত্রি যাপন করেছিলেন তমলুক শহরে। ১৯৩৮ সালের ১১ এপ্রিল তমলুক শহরে এসেছিলেন তিনি। নেতাজি তৎকালীন জাতীয় কংগ্রেসের বর্তমান সভাপতি। জাতীয় কংগ্রেসের একটি সভা করার উদ্দেশ্যে তিনি তমলুক শহরে এসেছিলেন। এই সভা করার পাশাপাশি তমলুক শহরে অধিষ্ঠাত্রী বর্গভীমা মায়ের মন্দিরে মাতৃদর্শন করেছিলেন তিনি। তিনি তমলুকে রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম আশ্রমে যান। যা রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম এর visitor's বইতে বর্তমানে নেতাজির মন্তব্য সেই সাক্ষ্য বহন করছে।

    ১৯৩৮ সালের ১১ এপ্রিল নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু গাড়িতে করে পাঁশকুড়া হয়ে তমলুক শহরে প্রবেশ করেন। তমলুক শহরে একটি জনসভা করেন। কিন্তু তাঁর এই জনসভা ঘিরে ব্রিটিশ পুলিশের রোষ সহ্য করতে হয় তমলুকবাসীকে। প্রাথমিকভাবে ঠিক হওয়া জনসভার স্থান পরিবর্তন হয় ব্রিটিশ পুলিশের ভয়ে। ব্রিটিশ পুলিশের ভয়ে জনসভার নির্ধারিত স্থানের জায়গা দিতে অস্বীকার করে জমির মালিক। সেই সময় তাম্রলিপ্ত নগরের রাজা সুরেন্দ্র নারায়ন রায় এগিয়ে আসেন। তাম্রলিপ্ত রাজবাড়ির ভেতরে খোসরঙের মাঠে সুভাষচন্দ্র বসুর জন্য জনসভার মঞ্চ তৈরি করেন। খোসরঙের মাঠের আম গাছ কেটে পরিষ্কার করে সুভাষচন্দ্র বসুর জন্য সভাস্থল তৈরি করা হয়েছিল। ১৯৩৮ সালের ১১ এপ্রিল তমলুকে রাত্রি যাপন করেছিলেন  নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: East Medinipur, Netaji Subhas Chandra Bose, Tamluk

    পরবর্তী খবর