Home /News /local-18 /
নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বাতিলের দাবিতে ধর্ণা ও ডেপুটেশন

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বাতিলের দাবিতে ধর্ণা ও ডেপুটেশন

মঙ্গলবার ১৩ জুলাই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) চালুর বিরুদ্ধে ডেপুটেশন ও ধর্ণায় পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নাগরিক সমাজ।

  • Share this:

    মঙ্গলবার ১৩ জুলাই  নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) চালুর বিরুদ্ধে ডেপুটেশন ও ধর্ণায় পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নাগরিক সমাজ। সম্প্রতি ২৮ মে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশিকায় দেশের গুজরাট, রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা ও ছত্তিশগড় সহ পাঁচটি রাজ্যের ১৩ টি জেলায় বসবাসকারী নাগরিকদের নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে বলা হয়েছে। এই নির্দেশিকায় প্রতিবেশী তিনটি দেশ থেকে আসা একটি বিশেষ ধর্মাবলম্বী মানুষদের বাদ দিয়ে অন্য ধর্মাবলম্বী মানুষদের নাগরিকত্বের আবেদন করতে বলা হয়েছে এমনি অভিযোগ নাগরিক সমাজের। পূর্ব মেদিনীপুর নাগরিক সমাজ অভিযোগ করে এই নাগরিকত্ব আবেদন  দেশের ধর্মনিরপেক্ষ নীতি ও ঐতিহ্যের সম্পূর্ণ বিরোধী। এর দ্বারা কার্যত বিজেপি সরকারের পূর্ব পরিকল্পিত 'ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্বের 'নীতি যা সিএএ চালু করার মধ্য দিয়ে তারা প্রণয়ন করতে চাইছে, সেটাই ঘুরপথে পরীক্ষামূলকভাবে চালু  করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তারা আরও অভিযোগ করে আসলে এর দ্বারা সরকার কোটি কোটি বিশেষ ধর্মাবলম্বী জনগোষ্ঠী নাগরিকদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার চক্রান্ত করছে। সারা বাংলা এনআরসি বিরোধী নাগরিক কমিটির পক্ষ থেকে এই আদেশনামার প্রত্যাহারের দাবিতে ধর্ণায় সামিল হয়।  এ দিন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা এন আর সি বিরোধী নাগরিক কমিটির উদ্যোগে তমলুক, কাঁথি, এগরা, হলদিয়া মহকুমা শাসকের কাছে ডেপুটেশন ও ধর্ণায় সামিল হন নাগরিকবৃন্দ। এ দিন তমলুক মহকুমা শাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদানে নেতৃত্বদেন কমিটির অফিস সম্পাদক শম্ভু মান্না এবং সেক মেহবুব আলম, জাহিদুল ইসলাম। হলদিয়া এস ডি ও অফিসে ডেপুটেশনে নেতৃত্ব দেন জেলা কমিটির সদস্য আনসার হোসেন। বিকেলে মানিকতলায় শহীদ মাতঙ্গিনী হাজরার মূর্তির পাদদেশে ধর্না মঞ্চে বক্তব্য রাখেন কমিটির জেলা যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল মাসুদ, শিক্ষক পূর্ণ চন্দ্র সামন্ত, অসীমা পাহাড়ি। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মানিক মাইতি, সমাজকর্মী অনুপ মাইতি, সৈয়দ মালেক্কুজামান প্রমূখ। জেলা যুগ্ম সম্পাদক আবদুল মাসুদ বলেন, "২৮ মে কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গেজেট প্রকাশ করে ঘুরপথে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রয়োগ করতে চাইছে পাঁচটি রাজ্যের ১৩ জেলায়। তার বিরুদ্ধে ১১ থেকে ১৪ জুলাই রাজ্য পর্যন্ত ডেপুটেশন-ধর্ণা চলছে। এদিন আমাদের জেলার সব মহকুমা শাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান ও বিক্ষোভের মাধ্যমে সরকারের কাছে আমরা এই দাবিপত্র পাঠাচ্ছি। সাথে সাথে আবেদন করছি সাম্প্রদায়িক বিভাজনকারী এই অন্যায় সি এ এ আইন বাতিল করতে হবে।"

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: CAA, Tamluk

    পরবর্তী খবর