• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • East Medinipur, Purbo medinipur- পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ধান চাষীদের কথা ভেবে মানবিক সরকার।

East Medinipur, Purbo medinipur- পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ধান চাষীদের কথা ভেবে মানবিক সরকার।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের কার্যালয়

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের কার্যালয়

বন্যা অতিবৃষ্টির কারণে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ধানচষ অনেকটা পিছিয়ে শুরু হয়। তাই এখনও মাঠের ধান উঠে আসেনি। সরকারি উদ্যোগে চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনার জন্য বিতরণ করা হচ্ছে কুপন।

  • Share this:

    পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ধান চাষীদের কথা ভেবে মানবিক সরকার। তমলুক: পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ধান চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনার বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে রাজ্য সরকার। প্রতি বছর নভেম্বর মাসের এক তারিখ থেকে ডিসেম্বর মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত জেলায় জেলায় রাজ্য সরকারের খাদ্য দপ্তর, চাষীদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কিনে থাকে। এ বছরেও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

    রাজ্যের বিভিন্ন ধান উৎপাদক, জেলা থেকে চাষীদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কেনা শুরু করেছে রাজ্য সরকার। পূর্ব মেদিনীপুর ধান চাষের অগ্রণী জেলার মধ্যে পড়ে। জেলায় এবছর ১০ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধান চাষ হয়েছে। অতিবৃষ্টির কারণে ধান চাষ কিছুটা দেরিতে হয়েছে। ফলে এখনো মাঠ থেকে ধান উঠে আসেনি। তাই জেলা প্রশাসন চাষীদের কাছ থেকে ধান কিনতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। পরপর বন্যা ও অতিবৃষ্টির কারণে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা জুড়ে  আমন ধান চাষ অনেকটাই কম হয়েছে। ধান চাষের ফলন স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম। অতিবৃষ্টির কারণে বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়া, ধান রোপনের পর জলে ডুবে পচে যাওয়া, প্রভৃতি কারণে ধান চাষের ক্ষতি হয়েছে। কেলেঘাই নদীর বাঁধ ভেঙে চারটি ব্লকের ধান চাষ সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

    চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনা শুরু করেছে রাজ্য সরকার। জেলায় জেলায় বিভিন্ন সরকারি ধান বিক্রয় কেন্দ্র থেকে ধান কিনছে খাদ্য দপ্তর। পূর্ব মেদিনীপুরের ধানচাষ কিছুটা পিছিয়ে যাওয়ায়, চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনা-বেচা এখনো শুরু হয়নি। কিন্তু  ধান কেনার জন্য, এখন থেকেই টোকেন বিতরণ শুরু করেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন। মাঠ থেকে ধান উঠে এলেই চাষীদের কাছ থেকে ধান কিনবে সরকার।

    দুয়ারে রেশন ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে জেলা সফরে খাদ্য দপ্তর মন্ত্রী রথীন ঘোষ। সফরে এসে তিনি জানান পূর্ব মেদিনীপুরের চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনার জন্য সরকার কুপন বিলি করা শুরু করেছে। মঙ্গলবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুক ব্লকের একাধিক জায়গায় সঠিক ভাবে দুয়ারে রেশন এর মাধ্যমে রেশন সামগ্রী ঠিক ভাবে দেওয়া হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখেন তিনি।  দুয়ারে রেশন ক্যাম্পে গিয়ে, রেশন ডিলারদের সাথে কথা বলেন, কি কি সুবিধা-অসুবিধা হচ্ছে, পাশাপাশি রেশন সামগ্রী নেওয়া গ্রাহকদেরও কি কি সুবিধা-অসুবিধা হচ্ছে রেশন সামগ্রী নেওয়ার ক্ষেত্রে, তাদের সাথে কথা বলেন মন্ত্রী। এছাড়াও তিনি শহীদ মাতঙ্গিনী ব্লক এর একটি সরকারি ধান কেনা বেচা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

    এদিন, দুয়ারে রেশন পরিদর্শনে মন্ত্রী রথীন ঘোষ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা শাসক দিব্যা মুরুগেসান সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা। পরিশেষে জেলাশাসক কার্যালয়ে জেলা শাসক পূর্ণেন্দু কুমার মাজীর সঙ্গে একটি বৈঠক করেন। বৈঠকে জেলাজুড়ে দুয়ারে রেশন প্রকল্প সফল ভাবে শুরু করা ও সরকারি ধান কেনা বেচা কেন্দ্রে চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনা নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠক শেষে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ জানান, "রাজ্য সরকার বিভিন্ন জেলায় সরকারি ধান বিক্রয় কেন্দ্র থেকে ধান কেনা শুরু করেছে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার চাষীদের জন্য সরকার প্রশাসনের মাধ্যমে চাষীদের কাছ থেকে ধান কেনার জন্য কুপন বিলি করা শুরু করছে"

    First published: