Home /News /local-18 /
Purba Medinipur: সংসারে একা হওয়ার কারণে মিলছে না স্বাস্থ্য সাথী কার্ড

Purba Medinipur: সংসারে একা হওয়ার কারণে মিলছে না স্বাস্থ্য সাথী কার্ড

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শাসকের কার্যালয়

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা শাসকের কার্যালয়

স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর নিয়মের জটিলতায় জেলায় অনেকে পাচ্ছে না স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে চিকিৎসার পরিষেবা।

  • Share this:

    কাঁথি: রাজ্য সরকারের (State Government) প্রদত্ত স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর চিকিৎসা (Treatment) করার সুবিধা রয়েছে সব শ্রেণীর মানুষের। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে হচ্ছে অপারেশন (Surgery)। রাজ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে সরকারের প্রদত্ত স্বাস্থ্য সাথী কার্ড বিপ্লব এনেছে। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে বর্তমানে হচ্ছে জটিল রোগের চিকিৎসা। নিয়মমতো স্বাস্থ্য সাথী কার্ড পেতে হলে পরিবারের সঙ্গে যুক্ত থাকতে হবে। আর তাতেই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর (Purba Medinipur) জেলার দেশপ্রাণ ব্লকে। নিঃসন্তান বিধবা মহিলা পায়নি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড। ফলে নিজের চিকিৎসা করাতে পারছেন না ওই মহিলা। পরিবারে একা থাকায় স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থেকে বঞ্চিত হওয়ায় বিডিও’র দ্বারস্থ হলেন অসহায় বিধবা মহিলা মণি বেওয়া। দেশপ্রাণ ব্লকের চৌধুরীবাড় গ্রামের অসহায় বিধবা মণি বেওয়া পরিবারের একা থাকায় হয়নি স্বাস্থ্যসাথী কার্ড। দুয়ারে সরকার ও জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরে আবেদন করলে আবেদনকারী মণি বেওয়াকে জানানো হয় পরিবারের সঙ্গে যুক্ত না থাকলে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড পাওয়া যাবে না। কিন্তু মণি বেওয়া নামের ঐ মহিলার আর কেউ নেই। ফলে কার্ড পুনরায় পাওয়ার জন্য দেশপ্রাণ ব্লকের বিডিও'র কাছে পুনরায় আবেদন জানালেন মণি বেওয়া। দীর্ঘদিন আবেদন করে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড না পাওয়ায় বিনা ব্যায়ে জরুরী অপারেশন তিনি করাতে পারছে না বলে অভিযোগ। স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর নিয়মের জটিলতায় জেলায় অনেকে পাচ্ছে না স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর মাধ্যমে চিকিৎসার পরিষেবা। ওই বিধবা মহিলা যাতে স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড পায় তার জন্য আবেদন জানিয়েছে জেলার প্রাক্তন সহকারি সভাধিপতি। সবিস্তারে জেলাশাসক, জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক ও রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য অধিকর্তাকে জানিয়ে অবিলম্বে মণি বেওয়ার স্বাস্থ্যসাথী কার্ড প্রদান করার আবেদন জানান প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি মামুদ হোসেন। শুধু মণি বেওয়াই নন একা থাকেন বা যাদের পরিবারে আর কেউ নেই তারা কেন স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থেকে বঞ্চিত হবে। রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের সুস্পষ্ট নির্দেশিকার মাধ্যমে কেবলমাত্র একজনকেও পরিবার হিসেবে গণ করে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড প্রদান সুনিশ্চিত করার আবেদন জানিয়েছেন মামুদ হোসেন।

    First published:

    Tags: Purba medinipur

    পরবর্তী খবর