Home /News /local-18 /
জমির জল না নামায় সবজি চাষে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

জমির জল না নামায় সবজি চাষে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

জমির জল না নামায় সবজি চাষে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

জমির জল না নামায় সবজি চাষে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

এখনও জল জমে আছে চাষের জমিতে, আরও ক্ষতির আশঙ্কা সবজি চাষীদের

  • Share this:

    পূর্ব বর্ধমান:  নিম্নচাপের বৃষ্টির জেরে জমেছে জল, নাজেহাল সাধারণ মানুষ। বৃষ্টির দাপট কমলেও ঝাড়খণ্ডে বৃষ্টির জেরে বিপুল পরিমাণে জল ছাড়ছে ডিভিসি। সেই জলেই ফুঁসছে দামোদর। আর ক্যানেলের মাধ্যমে দামোদরের জল ঢুকে পড়ায় ক্ষতির মুখে সবজি চাষ। ধানের জমির পাশাপাশি সবজি চাষের জমিও এখন এক কোমর জলের নিচে। এভাবে আর দু-তিন দিন যদি জল জমে থাকে তাহলে আরও বড় ক্ষতির মুখে পড়তে হবে, এই চিন্তায় ঘুম কেড়েছে চাষীদের। পূর্ব বর্ধমান এ শুধুই যে ধান চাষ হয় তা নয় এখানে একাধিক এলাকায় সবজিও দারুন চাষ হয়। সেইসব এলাকায় এখন কার্যত জলের নিচে। নদী গ্রাম রাস্তা সবই প্রায় মিলে মিশে একাকার। ভুরি, গোহগ্রাম, সাটিনন্দী, গলসী, খণ্ডঘোষ সহ একাধিক এলাকার সবজি চাষের জমি বর্তমানে জলের নীচে।

    স্থানীয়রা জানান, লংকা, ঝিঙে, পটল চাষ করেছিলাম। টানা বৃষ্টির যদি সব নষ্ট হয়ে গেল। এখন সব সবজি জলের নিচে। এত কষ্ট করে ফলানো সবজি বাঁচানো গেল না। একদিকে  লকডাউনে টান পড়েছে রুজি রোজগারে। এখন জেলার অধিকাংশ মানুষের ভরসা চাষাবাদ। তাতেও জল ঢেলেছে এই নিম্নচাপের বৃষ্টি।

    আপাতত জল নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। টানা চারদিন জলের নিচে সবজি। ইতিমধ্যেই পোঁচতে শুরু করেছে পটল, ঝিঙে, লঙ্কার মত একাধিক সবজি।  তবে এর পরিমাণ আরও বেড়ে যাবে যদি এভাবে আরও দুদিন জলের নিচে থাকে সবজি গুলি।

    এনিয়ে ভুরি পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সুবোধ ঘোষ বলেন, \" অঞ্চলে সবজি চাষ ভালো হয়। সব সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। খুব ড়াতাড়ি ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা হবে।

    কৃষি দপ্তরের আধিকারিকরা বলছেন, জমা জল  খুব শীঘ্রই নেমে যাবে। এই বৃষ্টি পাট পচানোর কাজে যথেষ্ট সহযোগী হয়েছে।

    অন্য দিকে, জেলার বেশ কিছু ব্লকে ধানের জমিও জলের তলায়।  ধান চাষের ও অনেক ক্ষতি হয়ে গিয়েছে এই বৃষ্টিতে। সব মিলিয়ে চাষের ক্ষতি হয়েছে অনেকটাই। ফলে এখন শুধুই জমির জল কমার অপেক্ষা করছেন চাষীরা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: East Bardhaman, Farmers, Vegetables

    পরবর্তী খবর