Home /News /local-18 /
East Bardhaman- গ্রাহকদের টাকা নিয়ে চম্পট পোস্টমাস্টার, আটক সহযোগী 

East Bardhaman- গ্রাহকদের টাকা নিয়ে চম্পট পোস্টমাস্টার, আটক সহযোগী 

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাৎ করে গা ঢাকা দিয়েছে পোস্টমাস্টার। তবে পার পেলোনা পোস্টমাস্টারের সহযোগী এক অস্থায়ী কর্মী।

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান: গ্রাহকদের টাকা আত্মসাৎ করে গা ঢাকা দিয়েছে পোস্টমাস্টার। তবে, পার পেলোনা পোস্টমাস্টারের সহযোগী এক অস্থায়ী কর্মী। গ্রাহকদের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর থানার পুলিশ ওই অস্থায়ী কর্মী কৌশিক মাঝিকে গ্রেপ্তার করে। ধৃত শিবতাই গ্রামের বাসিন্দা। জানা গিয়েছে, হুগলীর খানপুর পোস্ট অফিসের অধীনে রয়েছে শিপতাই গ্রামের সাব পোস্ট অফিসটি। ওই সাব পোস্ট অফিসে পোস্ট মাষ্টার পদের দায়িত্বে রয়েছেন শিপতাই গ্রামেরই বাসিন্দা আদিত্য দাস। আর তাঁরই সহযোগী পোস্ট অফিসে অস্থায়ী পদে কাজ করতেন কৌশিক মাঝি। টাকা আত্মসাৎ এর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত পোস্ট মাষ্টার গ্রেপ্তার না হওয়ায়, এদিন শিপতাই পোস্ট অফিসের সামনে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রাহকরা। শিপতাই গ্রামের বাসিন্দা সতীরঞ্জন দাস ও সৌরভ পাল বলেন, শিপতাই গ্রাম সহ আশপাশের কয়েকটি গ্রামের মানুষজন তাঁদের শিপতাই পোস্ট অফিসের গ্রাহক। সঞ্চয়ের টাকা তাঁরা সেখানেই জমা রাখেন। পূর্বে কোন সমস্যা না হলেও ২০১৮ সালের পর থেকে অনৈতিক কাজ কর্ম শুরু হয় পোস্ট অফিসে। তুহিনা বেগম, মৌসুমি দাস বলেন, তাঁরা তাঁদের সঞ্চয়ের টাকা পোস্ট অফিসে জমা দিলে, পোস্ট মাস্টার এ্যাকাউন্ট এর পাসবুকে পেনে লিখে শিল মেরে দিয়ে বলতেন, টাকা জমা হয়ে গেছে। টাকা জমা সংক্রান্ত কম্পিউটার বিল চাইলে, পোস্ট মাষ্টার আদিত্য দাস জানিয়ে দিতেন মেশিন খারাপ। কোন অসুবিধা হবে না বলে, তাঁদের এ্যাকাউন্ট বই পোস্ট মাষ্টার নিজের কাছেই রেখে দিতেন। পোস্ট মাষ্টার তাঁদের গ্রামেরই বাসিন্দা, তাই তাঁর কথা তাঁরা সরল মনে বিশ্বাস করেছিলেন, বলে দাবি করেন গ্রাহকরা। কয়েকদিন আগে পোস্ট মাষ্টার আদিত্য ও তাঁর সহযোগী কৌশিক পোস্ট অফিস বন্ধ করে দিয়ে উধাও হয়ে যায় বলে দাবি স্থানীয়দের। তারপর থেকে পোস্ট অফিস বন্ধই রয়েছে বলে জানান তাঁরা। প্রতারিত হয়েছেন বুঝতে পেরে গ্রামের অনেকে এরপর খানপুর পোস্ট অফিসে যান। সেখানকার আধিকারিকদের তাঁরা এ্যাকাউন্ট নম্বর দিলে, তাঁরা জানিয়ে দেন দীর্ঘ দিন কোনও টাকা তাঁদের এ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি। পোস্ট মাস্টারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন প্রাতারিত গ্রাহকরা। পুলিশ জানিয়েছে, পোস্ট মাষ্টারের সন্ধান চালানো হচ্ছে ঘটনার তদন্ত হবে। অভিযুক্ত উপযুক্ত শাস্তি পাবে।

    First published:

    Tags: Arrest, Bardhaman news, East Bardhaman, Post office

    পরবর্তী খবর