Home /News /local-18 /

East Bardhaman News- বানানো হচ্ছে পিঠে পুলি। ঢেঁকির শব্দের তালের সঙ্গে মেতে উঠেছেন সকলে।

East Bardhaman News- বানানো হচ্ছে পিঠে পুলি। ঢেঁকির শব্দের তালের সঙ্গে মেতে উঠেছেন সকলে।

যন্ত্র ও প্রযুক্তির যুগে আজও ঢেঁকিতে চাল কোটা হয় শস্যগোলায়

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান : পৌষ সংক্রান্তি মানেই বাড়ি বাড়ি পিঠে পুলি উৎসব। এদিন এমন নানা ধরণের পিঠে বানাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন বাড়ির মহিলারা। খেজুর গুড় আর সঙ্গে পিঠে পুলি বাঙালির ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরে। যন্ত্র ও প্রযুক্তির ব্যবহারের যুগে, ঢেঁকিতে চাল কোটার রেওয়াজ কমে গিয়েছে। তবে গ্রাম বাংলার কিছু মানুষ এখনও আগলে রেখেছেন সাবেকি ঢেঁকিকে। আজও ঢেঁকিতে চাল কুটে পিঠে বানান অনেকেই। শস্যগোলা পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর ব্লকের প্রত্যন্ত গ্রাম শিয়ালী ও কোড়ায় আজও ঢেঁকিছাঁটা চাল দিয়ে তৈরি হয় পিঠে পুলি (East Bardhaman News)। গ্রামের অধিকাংশই ঢেঁকিতে ভাঙ্গেন চাল। সংক্রান্তির আগের দিন থেকেই গ্রামে চাল কোটার ব্যস্ততা থাকে তুঙ্গে। সব কাজ ফেলে রেখে বাড়ির মহিলারা ঢেঁকিতে ছাঁটেন চাল। এই কাজে হাত লাগান বাড়ির পুরুষরাও। পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে উৎসবের মেজাজে রয়েছে গোটা গ্রাম।

    এদিন গ্রামে ঘুরতে ঘুরতে দেখা গেল সেই ছবি, যেখানে রাস্তার পাশে একটি খামারে কাঠের ঢেঁকিতে চাল ঢেলে রাখা। ঢেঁকিতে এক নাগাড়ে পা দিয়ে চলছেন এক ব্যক্তি। আর মহিলারা চাল গুড়ি তুলে নিচ্ছেন সেখান থেকে। এভাবেই যেনো ঢেঁকির শব্দের তালের সঙ্গে মেতে উঠেছেন সকলে। (East Bardhaman News) গ্রামের এক বধূ কাকলি ঘোষ বলেন, ৩কেজি চাল গুঁড়ো করেছেন তিনি। তাই দিয়ে পৌষ পার্বনে পিঠে বানিয়ে বাড়ির সকলে খাওয়াবেন। তিনি বলেন, বাজারে মেশিনের দ্বারা তৈরি চাল গুড়ি পাওয়া গেলেও ঢেঁকিতে গুঁড়ো করা চালের স্বাদ আলাদা। তাই কষ্ট হলেও তারা প্রতি বছর ঢেঁকিতেই চাল গুড়ি করেন। গ্রামের আরেক মহিলা কোলে বলেন, ঠাকুরমা ঠাকুরদাদের আমল থেকে চলে আসছে এই রীতি। তাই তাঁরা সেই রীতি মেনেই আজও ঢেঁকিতে চাল কোটেন। মেশিনের চাল গুড়ির থেকে ঢেঁকির চাল গুড়ি খেতে যেমন সুস্বাদু ঠিক তেমন শরীরের পক্ষেও ভালো। আধুনিকতার মোড়কে নিজেদের মুড়িয়ে ফেললেও, এখনও যে আমরা বাংলার ট্রেডিশন পুরোপুরি ভুলে যায়নি তা আবারও প্রমাণ করে দিল জামালপুরের কোড়া গ্রাম। Malobika Biswas
    Published by:Samarpita Banerjee
    First published:

    Tags: East Bardhaman, Makar Sankranti 2022

    পরবর্তী খবর