• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • মাদকবিরোধী প্রচারে অগ্রণী ভূমিকা পুলিশের

মাদকবিরোধী প্রচারে অগ্রণী ভূমিকা পুলিশের

আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে সচেতনতা প্রচার। শিল্পাঞ্চলে মাদক বিরোধী দিবসে অগ্রণী ভূমিকা পালন করলেন পুলিশ আধিকারিক ও কর্মীরা। দু

আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে সচেতনতা প্রচার। শিল্পাঞ্চলে মাদক বিরোধী দিবসে অগ্রণী ভূমিকা পালন করলেন পুলিশ আধিকারিক ও কর্মীরা। দু

আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে সচেতনতা প্রচার। শিল্পাঞ্চলে মাদক বিরোধী দিবসে অগ্রণী ভূমিকা পালন করলেন পুলিশ আধিকারিক ও কর্মীরা। দু

  • Share this:

    আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে সচেতনতার প্রচার পুলিশের। শিল্পাঞ্চলে মাদক বিরোধী দিবসে অগ্রণী ভূমিকা পালন করলেন পুলিশ আধিকারিক ও কর্মীরা। দুর্গাপুরের বিভিন্ন থানায় প্রচারমূলক পদযাত্রার মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করার উদ্যোগ নিলেন তারা। মাদকবিরোধী প্রচারে হাজির ছিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ থেকে উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা।

    শনিবার আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবস উপলক্ষে, দুর্গাপুর কোকওভেন থানার পক্ষ থেকে একটি প্রচারমূলক পদযাত্রার আয়োজন করা হয়। কোভিড বিধি মেনে, মুখে মাক্স পরেসচেতনতা প্রচারে অংশগ্রহণ করেন পুলিশকর্মীরা।এই পদযাত্রায় হাজির ছিলেন থানার সিভিক ভলান্টিয়ারাও। হাতে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার নিয়ে তারা থানার সামনে থেকে বাঁকুড়া মোড় পর্যন্ত একটি পদযাত্রা করেন। এই পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছিলেন দুর্গাপুরের এসিপি অমিত মোল্লা।

    অন্যদিকে, দুর্গাপুরের নিউ টাউনশিপ থানার পক্ষ থেকেও একটি পদযাত্রার আয়োজন করা হয়। আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবসের সকালে নিউ টাউনশিপ থানার পুলিশ কর্মীরাও পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। হাতে ব্যানার নিয়ে সচেতন করা হয় মানুষকে। এই পদযাত্রায় হাজির ছিলেন দুর্গাপুরের মেয়র দিলীপ অগস্তি।সচেতনতামূলক এই প্রচারে অংশগ্রহণ করার পর দুর্গাপুরের এসিপি ডঃ অমিত মোল্লা বলেন, আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে শুধুমাত্র প্রচার করলে হবে না। সারা বছরই এই ধরনের প্রচার মূলক কাজ আয়োজন করতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, সুস্বাস্থ্যের জন্য যে তিনটি দিক তুলে ধরে, সেগুলি হল, শারীরিক-মানসিক এবং সামাজিক সুস্থতা। এই তিনটি ভালোভাবে বজায় থাকলে, তবেই সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া যায়। যারা মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন, তারা এই তিনটি দিক থেকেই বিপর্যস্ত হন। ফলে সমাজের অন্যান্য মানুষ এবং দায়িত্বশীল পদে থাকা আধিকারিকদের, সেই সমস্ত মানুষের পাশে থেকে তাদের সাধারণ জীবন যাপন করতে সাহায্য করা উচিত।

    আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে পুলিশের এই সদর্থক ভূমিকার প্রশংসা করেছেন সমাজের বিশিষ্ট মানুষজন। আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবসে, মাদকাসক্ত এক ব্যক্তি শুনিয়েছেন আসক্তি থেকে বেরিয়ে আসার গল্প। ইচ্ছা থাকলে যে উপায় হয়, সেটা বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। তবে মনোবিদ এবং চিকিৎসকরা বলছেন, শুধু প্রচার বা সচেতনতা নয়, আসক্তি থেকে বেরিয়ে আসার ইচ্ছা থাকতে হবে মাদকাছন্ন হয়ে পড়া ব্যক্তিরও।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: