• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • POLICE AND LOCALS INVOLVE IN CONTROVERSY IN COURSE OF ARRESTING INTOXICATED YOUTHS SDG

মদ্যপ যুবকদের ধরতে গিয়ে পুলিশ-এলাকাবাসীর বচসা, উত্তেজনা কৃষ্ণগঞ্জে

একে কোভিডের বাড়বাড়ন্ত। কোভিডের প্রথম ঢেউয়ে কিছুটা নিয়ন্ত্রন ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমনের সংখ্যাটা এক লাফে বেড়ে গেছে কয়েক গুণ।

একে কোভিডের বাড়বাড়ন্ত। কোভিডের প্রথম ঢেউয়ে কিছুটা নিয়ন্ত্রন ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমনের সংখ্যাটা এক লাফে বেড়ে গেছে কয়েক গুণ।

  • Share this:

    #কৃষ্ণগঞ্জ: একে কোভিডের বাড়বাড়ন্ত। কোভিডের প্রথম ঢেউয়ে কিছুটা নিয়ন্ত্রন ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমনের সংখ্যাটা এক লাফে বেড়ে গেছে কয়েক গুণ।  সংক্রমনের নিরিখে ভারত বর্ষ অধিকার করেছে প্রথম স্থান।কোভিডওয়ার্ড গুলিতে পাওয়া যাচ্ছে না বেড। অক্সিজেনের অভাবে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। হাসপাতাল থেকে শ্মশান সব জায়গায় রোগী এবং মৃতদেহের লাইন লেগে আছে দিনের পর দিন। করোনার সংক্রমণ রুখতে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জারি করা হয়েছে আংশিক লকডাউন। কিন্তু প্রশাসনের নিয়মের তোয়াক্কা করছে না অনেকেই। আইনের চোখ এড়িয়ে মানুষের জমায়াত দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন এলাকায়। তারই দৃষ্টান্ত পাওয়া গেল নদীয়ার কৃষ্ণগঞ্জের বাবলাবনে।

    রাত হতেই মাঠের ধারে কয়েকজন যুবক মদ্যপান করছিল। নাইট কার্ফুর জেরে পুলিশি টহলদারি চলছিল এলাকার বিভিন্ন জায়গায়। আচমকা ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে চার মদ্যপ যুবককে গ্রেফতার করে। পুলিশ ওই যুবকদের গাড়িতে তুলে নিয়ে আসতে গেলে তারা চিৎকার করতে থাকে। ওই যুবকদের চিৎকার শুনে আশেপাশের এলাকা থেকে লোকজন জমায়েত হতে থাকে। পুলিশ অভিযুক্ত যুবকদের নিয়ে যেতে গেলে এলাকার লোকজন বাধা দেয়। শুরু হয় পুলিশের সাথে কথা কাটাকাটি এবং ধস্তাধস্তি। উত্তেজিত জনতা পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করে বলেও অভিযোগ। এরপর ঘটনাস্থলে পুলিশের চারটি গাড়ি এসে দুইজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। ঘটনাস্থলের পাশেই চলছিল একটি শ্রাদ্ধের অনুষ্ঠান। এলাকাবাসীদের অভিযোগ পুলিশ সেই বাড়িতে হানা দেয় অভিযুক্তদের তল্লাশির জন্য। এবং সেখানেও পুলিশের সাথে এলাকাবাসীর তর্ক বিতর্ক হয়। যদিও সম্পূর্ণ অভিযোগ অস্বীকার করেছে প্রশাসন।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: