হোম /খবর /উত্তর ২৪ পরগণা /
স্বরূপনগরের সুনীতাকে জীবনসঙ্গী করে আজ সুখী উত্তম

North 24 Parganas News- অ্যাসিড হামলায় চলে গিয়েছে রূপ, স্বরূপনগরের সুনীতাকে জীবনসঙ্গী করে আজ সুখী উত্তম

সুখী দাম্পত্য জীবনে প্রবেশ সুনীতা ও উত্তমের

সুখী দাম্পত্য জীবনে প্রবেশ সুনীতা ও উত্তমের

দয়া নয়, ভালবেসেই সুনীতাকে বিয়ে করেছে উত্তম

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা: কোনো গুরুতর অপরাধ না করেও যখন শাস্তি পেতে হয়, তখন তা সবসময়ই বেদনাদায়ক হয়। আর সেই শাস্তির স্মৃতি যদি আজীবন বয়ে নিয়ে যেতে হয়, তাহলে তো আর কোন কথাই নেই! আবারও বাস্তব জীবনের এমনই এক হার না মানা লড়াইয়ের সাক্ষী হয়ে রইল উত্তর ২৪ পরগনার ছোট শহর স্বরূপনগর (North 24 Parganas News)। মাত্র ১৪ বছর বয়সে, ২০১০ সালে পাশের বাড়ির এক যুবকের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায়, সুনীতার মুখে ছোঁড়া হয়েছিল বিষাক্ত অ্যাসিড। ঝলসে গিয়েছিল নাবালিকা সুনীতার মুখ চোখ সহ শরীরের বিভিন্ন অংশ।

    আর পাঁচজন মেয়ের মতো সুনীতাও চেয়েছিল আরো বহুদূর পড়াশোনা করে, স্বনির্ভর হতে। সেই সময় সে প্রস্তুত ছিল না বিয়ের জন্য, আর সেটাই ছিল তার অপরাধ। তারপর কেটে গিয়েছে ১২ বছর। ঘটনার পর মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছিলেন সুনীতা। কোন এক সময় দাঁড়িয়ে নিজেকে শেষ করে দেওয়ার কথাও মাথায় আসে তার। কিন্তু কেন হেরে যাবেন তিনি? কোন অপরাধ তো করেননি। এই প্রশ্ন সামনে আসতেই, নিজের মানসিক ইচ্ছাশক্তির জোরেই ঘুরে দাঁড়ান সুনীতা। শত ঝড় ঝাপটা অতিক্রম করে আজ প্রতিষ্ঠিত সে। জীবনে এসেছে পরিবর্তন। খুঁজে পেয়েছে নিজের সঠিক সঙ্গীকে। বিয়ে করেছেন সুনীতা।

    অ্যাসিড আক্রান্ত স্বরূপনগরের মেয়ে সুনীতার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন বর্ধমানের বাসিন্দা উত্তম আঁকুড়র(North 24 Parganas News)। পেশায় উত্তম একজন চাইনিজ রেস্টুরেন্টের সেফ। কয়েক মাস আগেই আলাপ হয়েছিল দুজনের। উত্তমের কথায়, কোন প্রকার দয়া নয়, ভালোবেসেই সুনীতার হাত ধরেছেন তিনি। সুনীতা আজ যেন একটি লড়াইয়ের নাম। সুনীতা 'চিৎকার' নামে সামাজিক সংগঠনের একজন সক্রিয় কর্মী। সংগঠনের মূল উদ্দেশ্যই হল খোলা বাজারে অ্যাসিড বিক্রির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো ও অ্যাসিড আক্রান্ত মেয়েদের পাশে দাঁড়িয়ে, তাদের এগিয়ে চলার সাহস যোগানো।

    সুনীতা নিজেকে কখনো থামিয়ে রাখেননি। কখনও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে, তো কখনো নিজে হাতে লিখে, আবার কখনও নানান পত্র পত্রিকার মাধ্যমে নিজের কথা তুলে ধরেছে সকলের সামনে। লিখেছে তার জীবনের হার না মানার কাহিনী।সরকারি হিসেব অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ৮০ জন মানুষ অ্যাসিড হামলার শিকার হন। তাদের মধ্যে বহু ঘটনাই রয়ে যায় অগোচরে(North 24 Parganas News)। দীর্ঘ আন্দোলনের পর ২০১৩ সালে আইন পাশের মাধ্যমে খোলা বাজারে অ্যাসিড বিক্রি বেআইনি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু বাস্তবে তা এখনও বন্ধ হয়নি। এই অপরাধ বন্ধ করতে চাই সামাজিক সচেতনতা। তবেই হাজার হাজার সুনীতারা স্বাধীনভাবে বাঁচতে পারবেন। এই সমাজ যে তাদেরও।

    Rudra Narayan Roy

    First published:

    Tags: North 24 Pargana news