• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Bangla News: কাজ পাওয়ার আশায় ১৫ বছরের শুভাশিস, সেই আশায় জল ঢেলে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ

Bangla News: কাজ পাওয়ার আশায় ১৫ বছরের শুভাশিস, সেই আশায় জল ঢেলে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ

চাকরি দেওয়ার নামে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ।

চাকরি দেওয়ার নামে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ।

কোম্পানিতে কাজ দেওয়ার নাম করে দত্তপুকুর অরবিন্দ পল্লীর এক কিশোরের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ উঠল দুই-তিন জন কিশোরের বিরুদ্ধে। 

  • Share this:

    রাতুল ব্যানার্জি, উত্তর ২৪ পরগনা : করোনা মহামারীর কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে বহু মানুষ। ফলে অনেকেই বেছে নিয়েছে অন্য পথ। কিন্তু তার মাঝেও বউ মানুষ সংসার চালানোর দায় এখনো খুঁজে চলেছে কাজ। আরে কাজ খুঁজতে খুঁজতেই প্রতারণার ছকের মধ্যে পা বাড়াচ্ছে বহু মানুষ। তারই এক উদাহরণ হিসেবে এদিন দত্তপুকুর এর এক ১৫ বছরের যুবকের লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ হল। কোম্পানিতে কাজ দেওয়ার নাম করে দত্তপুকুর অরবিন্দ পল্লীর এক কিশোরের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ উঠল দুই-তিন জন কিশোরের বিরুদ্ধে।

    দত্তপুকুর অরবিন্দ পল্লীর বছর ১৫ এর শুভাশিস দাস এর এক বন্ধুর পরিচিত দুই কিশোর তাকে এক কোম্পানি কাজ করিয়ে দেওয়ার নাম করে ধাপে ধাপে লক্ষাধিক টাকা নেয়।কোম্পানির কিছু প্রোডাক্টও দেয়। কিন্তু তারপর কেটে যায় বহুদিন। চাকরির আর কোন ব্যবস্থা হয় না। শুভাশিসের মা নেই, বাবাকে জানিয়ে বাবার কাছ থেকে ধাপে ধাপে সে এই টাকা নেয়। যখন কোন উপায় বের না হয়, তখন দত্তপুকুর থানার দ্বারস্ত হয় শুভাশিসের পরিবার। পুলিশ মূল অভিযুক্ত দুই কিশোর ও শুভাশিসকে থানায় নিয়ে গিয়ে মিমাংসা করার প্রচেষ্টা করে। তিনদিন সময়ও নেয় তারা। কিন্তু গতকাল শুভাশিস এর বাবা জয়ন্ত দাসকে আটক করে নিয়ে যায় দত্তপুকুর থানার পুলিশ। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, অভিযুক্ত দুই কিশোরকে দা দিয়ে ভয় দেখিয়েছেন তিনি। দা বের করে যে জয়ন্ত দাস ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছিল তা স্বীকারও করে নেন তিনি। এদিন জামিনে মুক্ত পায় জয়ন্ত দাস।পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ রয়েছে এই প্রতারিত পরিবারের।দত্তপুকুর ১ নম্বর পঞ্চায়েত প্রধানকেও লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে তাদের তরফে।

    দত্তপুকুর থানাতেও একই অভিযোগের কপি দেওয়া হয়েছে। অসহায় পরিবার পঞ্চায়েত সহ পুলিশ প্রশাসনের তরফে আবেদন তাদের টাকা পুরোটা উদ্ধার করা না গেলেও যেন কিছু টাকা উদ্ধার হয়। ভোগ কষ্টের মাধ্যমে এই টাকা একত্রিত করা হয়েছিল শুধুমাত্র ছেলের কথা ভেবেই আজ তার নিঃস্ব। তবে সূত্রের খবর এখনো পর্যন্ত কোন টাকায় উদ্ধার করা যায়নি। এখন দেখার আগামী দিনে শুভাশিসের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে টাকা উদ্ধার হয় কিনা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: