Home /News /local-18 /
North 24 Parganas News- অপহরণের আট ঘণ্টার মধ্যেই বিনা মুক্তিপণে শিশুকে উদ্ধার করল বসিরহাট পুলিশ

North 24 Parganas News- অপহরণের আট ঘণ্টার মধ্যেই বিনা মুক্তিপণে শিশুকে উদ্ধার করল বসিরহাট পুলিশ

উদ্ধার হওয়া শিশুকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ

উদ্ধার হওয়া শিশুকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ

বিনা মুক্তিপণে শিশুকে উদ্ধার করল বসিরহাট পুলিশ, মা-বাবার কোলে ফিরলো শিশু

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগণা : অপহরণের আট ঘণ্টার মধ্যে জীবিত শিশুকন্যা কে ফিরে পেলন বাবা - মা। সাড়ে চার লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চাওয়ার পাশাপাশি খুনের হুমকিও দেওয়া হয় অপহরণকারীদের পক্ষ থেকে। অবশেষে পুলিশের সাহায্যে মায়ের কোলে ফিরল শিশুকন্যা৷ ঘটনাটি বসিরহাট মহকুমার মাটিয়া থানা খোলাপোতা গ্রাম পঞ্চায়েতের মথুরাপুর গ্রামের (North 24 Parganas News)৷ গত তিনমাস আগে মুর্শিদাবাদ সাগরদিঘী থানা এলাকা থেকে মা সোমা বিবি ও বাবা রেজাউল ইসলাম মন্ডল তাদের আড়াই বছরের শিশুকন্যাকে নিয়ে কর্মসূত্রে বসিরহাটের মথুরাপুর গ্রামে আসেন ফেরিওয়ালার কাজ করতে ৷

    ঘটনায় অভিযুক্ত বছর ৩২ - এর মইদুল সেখ মাছ ব্যবসায়ী, সাগরদিঘী থানা এলাকায় বাড়ি। মইদুল ফেরিওয়ালা ওই পরিবারের সঙ্গে তার পূর্ব পরিচিত সূত্রে আলাপ জমায়। মুর্শিদাবাদের একই জায়গায় বসবাসের সুবাদে। এদিন বসিরহাটের মথুরাপুর গ্রামে আসে মইদুল। সেই সময় বাড়িতে ছিলেন সোমা বিবি ও তার শিশুকন্যা। বাবা রেজাউল ইসলাম তখন কাজে বেরিয়েছিল। সেই সুযোগে, তার আড়াই বছরের শিশুকন্যাকে চকলেট দেওয়ার নাম করে অপহরণ করে মইদুল বলে অভিযোগ৷ এরপর ওই শিশুর মা মইদুলকে ফোন করে মেয়েকে বাড়ি ফিরিয়ে দিয়ে যাওয়ার কথা বলতেই, মুক্তিপণ চেয়ে ফোনে হুমকি দেয় সে (North 24 Parganas News)। এমনকি পুলিশকে জানালে শিশুটিকে খুন করে মৃতদেহ প্যাকিং করে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলেও ভয় দেখাতে থাকে।

    শিশু কন্যার মা কোন উপায় না ভেবে মাটিয়া থানার পুলিশের দ্বারস্থ হয়। নড়েচড়ে বসে বসিরহাট জেলা পুলিশ। এরপর, মাটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ আধিকারিক তাপস ঘোষের নেতৃত্বে বিশেষ দল গঠন করা হয়। একটি দল অপহরণকারীর মোবাইল ফোন ট্র্যাক করতে শুরু করে। অপর দল অপহরণকারী মইদুল ও শিশুকন্যা যেখানে ছিল সেই এলাকা ঘিরে ফেলে৷ পুলিশকে দেখে ঘটনাস্থল থেকে অপহৃত শিশু কন্যাকে ফেলে রেখেই মইদুল পালিয়ে যায়। পুলিশ শিশু কন্যাকে উদ্ধার করে। এসডিপিও অভিজিৎ সিনহা মহাপাত্র বলেন, "আমাদের প্রথম কাজ ছিল শিশুকন্যাকে জীবিত অবস্থায় বাবা- মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়া। আমরা তা দিতে পেরে খুব খুশি।" অভিযুক্তও খুব দ্রুত গ্রেফতার হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। শিশুকন্যা অপহরণের আট ঘণ্টার মধ্যে পুলিশের এই সাফল্যকে রীতিমতো কুর্নিশ জানিয়েছেন অপহৃত শিশুর বাবা-মা থেকে সমাজের বিভিন্ন মহল।

    Rudra Narayan Roy
    First published:

    Tags: Basirhat, North 24 Pargana news

    পরবর্তী খবর