Home /News /local-18 /
Nadia: মাংসের ঝোলে লবণ ভেবে দেওয়া হল নাইট্রিক!

Nadia: মাংসের ঝোলে লবণ ভেবে দেওয়া হল নাইট্রিক!

পরিবারের

পরিবারের অসুস্থ সদস্যদের নিয়ে আসা হয়েছে হাসপাতালে

প্রাথমিক চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি দেখে  চারজনকে কল্যাণী জহরলাল নেহরু হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে

  • Share this:

    শান্তিপুর: মাংস খেতে ভালোবাসেন প্রত্যেক আমিষপ্রেমী মানুষ। তবে এই মাংস খেয়েই বিপত্তি নদিয়ার শান্তিপুরে। লবণ ভেবে মাংসের তরকারি তে মেশানো হল নাইট্রিক, খেয়ে একই পরিবারের গুরুতর অসুস্থ নয় জন।সুতো রং করার কাজে ব্যবহৃত নাইট্রিক লবণ ভেবে করা হল মাংস রান্না। আর সেই মাংস খেয়ে গুরুতর অসুস্থ একই পরিবারের নয় জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার মধ্যে রয়েছে তিন জন শিশু এবং মহিলা সহ মোট নয় জন। ঘটনাটি নদিয়ার শান্তিপুর থানার হরিপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। হরিপুর হাই স্কুল সংলগ্ন এলাকায় বাসিন্দা তপন সরকার। দুপুরে প্রতিদিনের মতোই রান্না করে প্রত্যেকেই খেয়েছিল মাংস ভাত। কিন্তু সুতোর রং করার কাজে ব্যবহৃত নাইট্রিক লবণ ভেবে তরকারিতে দিয়ে ফেলে। দুপুরে খাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই শুরু হয় শারীরিক অসুস্থতা। সঙ্গে তীব্র বমি শুরু হয় তাদের। এরপরেই বাড়ির সকলের নজরে আসে লবণের জায়গায় দিয়ে ফেলা হয়েছে বিষ জাতীয় নাইট্রিক। এরপরই সকলকে তড়িঘড়ি শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি দেখে তিনজনকে কল্যাণী জহরলাল নেহরু হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে দুই জন শিশু রয়েছে। পরে গভীর রাতে আরও একজনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ও কল্যাণী হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। তবে আদেও কি কারণে তারা অসুস্থ হয়ে পড়লেন সম্পূর্ণ শারীরিক চিকিৎসার পরে সেটা জানা যাবে।

    First published:

    Tags: Nadia, Shantipur

    পরবর্তী খবর