• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • NADIA KALYANI AIMS HOSPITAL LAUNCHES BIOMEDICAL LABORATORY SERVICE WITH WATERLESS TECHNOLOGY AC

কল্যাণীর এইমস হাসপাতালে চালু ওয়াটারলেস টেকনোলজির মাধ্যমে বায়োমেডিকেল ল্যাবরেটরি সার্ভিস

কল্যাণীর এইমস হাসপাতালে চালু হলো অত্যাধুনিক মানের ওয়াটারলেস টেকনোলজির মাধ্যমে বায়োমেডিকেল ল্যাবরেটরি সার্ভ

এর জন্য বছরে প্রায় ১ লক্ষ্য ৬০ হাজার লিটার জল সাশ্রয় করা যাবে বলে দাবি কর্তৃপক্ষের

  • Share this:

    করোনায় জর্জরিত গোটা বিশ্ব তথা দেশ। তৃতীয় ঢেউ রুখতে চারিদিকে রয়েছে নানা রকম বিধি-নিষেধ। বিধি নিষেধ ভঙ্গ করলেই প্রশাসন নিচ্ছে কড়া ব্যবস্থা। কিছুদিন আগে বাস চালু করলেও বন্ধ হয়ে আছে লোকাল ট্রেন। জ্বালানির দাম বাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সেরও ভাড়া বেড়েছে অনেকখানি। ফলে উন্নত মানের চিকিৎসার জন্য জেলার বাইরে যেতে পারছেন না অনেকেই। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে মুমূর্ষু রোগী ও তার পরিবারদের কিছুটা স্বস্তি দিল কল্যাণীর এইমস হাসপাতাল।

    কল্যানীর AIIMS  (অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সাইন্স)এ চালু হলো অত্যাধুনিক মানের ওয়াটার লেস টেকনোলজির মাধ্যমে বায়োমেডিকেল ল্যাবরেটরি সার্ভিস। ভিটরোস-৪৬০০ নামক আধুনিক যন্ত্র ব্যবহার করে এখানে রোগ পরীক্ষা করা হবে। যার জন্য বাইরে থেকে জলের কোন প্রয়োজনই হবে না। কর্তৃপক্ষের দাবি, এর জন্য বছরে প্রায় ১ লক্ষ্য ৬০ হাজার লিটার জল সাশ্রয় করা যাবে। এই ল্যাবরেটরির থেকে ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৮৪৫টি পরীক্ষা করা যাবে। ওয়াটারলেস এই টেকনোলজির মাধ্যমে পরিষেবা দিল্লির এইমসের পর প্রথম কল্যাণীর এইমসে শুরু হলো বলে জানা গিয়েছে। এখান থেকে সাধারণ মানুষ যেমন কম খরচে রোগ পরীক্ষার রিপোর্ট দ্রুত হাতে পেয়ে যাবেন। তেমনি পরিবেশ রক্ষার দিকেও নজর রাখা হয়েছে। এখান থেকে শিশুদের ক্ষেত্রে নাম মাত্র নমুনা সংগ্রহ করে রোগ পরীক্ষা করা যাবে। এইমসের বহির্বিভাগে দেখাতে আসা রোগীরা এই সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন বলে জানা গিয়েছে। এখান থেকে রেনাল ফাংশন টেস্ট, লিভার ফাংশন টেস্ট, লিপিট প্রফাইল, প্রোটিনস, অ্যানিমিয়া প্রোফাইল, ইলেক্ট্রোলাইটস, ক্যালসিয়াম, ফসফরাসের মত বিভিন্ন টেস্ট করানো যাবে। এছাড়াও করোনার জন্যেও বিশেষ কিছু পরীক্ষা এখান থেকে করানো যাবে বলে জানা গিয়েছে।  ফলে পরিবেশ রক্ষায় এটা একটা ভূমিকা পালন করবে। এবং তার সাথে কিছুটা হলেও স্বস্তি পাবে রোগী এবং তাদের পরিবার।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: