Home /News /local-18 /
Lakshmi Puja 2021| Nadia: ফেলে দেওয়া থার্মোকল দিয়ে লক্ষ্মী পুজোর সরঞ্জাম বানালেন রানাঘাটের গৃহবধূ

Lakshmi Puja 2021| Nadia: ফেলে দেওয়া থার্মোকল দিয়ে লক্ষ্মী পুজোর সরঞ্জাম বানালেন রানাঘাটের গৃহবধূ

লক্ষ্মী পূজার সরঞ্জাম বানাচ্ছেন গৃহবধূ

লক্ষ্মী পূজার সরঞ্জাম বানাচ্ছেন গৃহবধূ

Lakshmi Puja 2021| Nadia:টিভি ফ্রিজের পেটির থার্মোকল ফেলে দেয়ার পরে সে গুলোকে সংগ্রহ করে তা দিয়ে তৈরি হচ্ছে লক্ষ্মী পুজোর নানান উপকরণ।

  • Share this:

    #নদিয়া: ফেলে দেওয়া থার্মোকল দিয়ে লক্ষ্মী পুজোর (Lakshmi Puja 2021) বিভিন্ন উপকরণ তৈরি করছেন নদিয়ার রানাঘাটের গৃহবধূ টুকি মালাকার। তিনি বলেন এতে প্রকৃতি যেমন পরিষ্কার হচ্ছে তেমন পুজোর কাজে লেগে যাচ্ছে থার্মোকল। টিভি ফ্রিজের পেটির থার্মোকল বা শোলা ফেলে দেয়ার পরে সে গুলোকে কুড়িয়ে বা সংগ্রহ করে পরিষ্কার করে তা দিয়ে তৈরি হচ্ছে লক্ষ্মী পুজোর নানান উপকরণ।

    কদম ফুল চাঁদ মালা ঝাড়বাতি সহ আরো অনেক কিছু। লক্ষ্মী পূজার (Lakshmi Puja 2021)বিভিন্ন উপকরণ বাইরে কিনতে গেলে বেগ পেতে হয় সাধারণ মানুষকে। একদিকে যেমন খানিকটা সস্তায় মিলছে লক্ষ্মী পূজার বিভিন্ন উপকরণ। তাছাড়াও পরিবেশ পরিষ্কার ও জঞ্জালমুক্ত হচ্ছে। ব্যবহারের অযোগ্য ফেলে দেওয়া বস্তু দিয়ে তৈরি জিনিসপত্র শোভা বাড়াচ্ছে গৃহস্থের।গতবার কোভিডের কারণে ধনদেবীর পুজোতেও(Lakshmi Puja 2021) ভাটা পড়েছিল ব্যবসায়। এবছর লক্ষ্মী লাভের আশায় ফুল তৈরি করতে ব্যস্ত  প্রস্তুতকারীরা।তবে তাদের এই কাজ প্রথম নয়। বংশ-পরম্পরা ধরে বহু বছর ধরে চলে আসছে শোলার চাঁদ মালা কদম ফুল। অন্যদিকে রাত পোহালেই বাঙালির ঘরে ঘরে কোজাগরী লক্ষ্মী পূজা(Lakshmi Puja 2021)। করোনা ভাইরাসের কারণে প্রায় দুই বছর ধরে বাঙালির উৎসবে ভাটা পড়েছে। কাজ হারিয়ে আর্থিক সংকটে ভুগছেন মধ্যবিত্ত এবং নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষরা। প্রতিদিন তিন বেলা খাবার জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

    এমন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে পুজো (Lakshmi Puja 2021)করবেন কিভাবে। গতবছর অধিকাংশ বাড়িতেই লক্ষ্মী আর্থিক অবস্থার কারণে পা রাখতে পারেননি। মানুষের আর্থিক পরিস্থিতি সামান্য কিছুটা পরিবর্তন হলেও সেই অর্থ দিয়ে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে মানুষ। এই অবস্থায় উৎসব করবেন কিভাবে সাধারণ মানুষ। মূলত সেই কারণেই চিন্তার ভাঁজ পড়েছে মৃৎশিল্পীদের। তার কারণ নদিয়া জেলার অধিকাংশ মৃৎশিল্পী মূলত এই অনুষ্ঠান গুলির উপর সারা বছর তাদের সংসার নির্ভর করে। নদীয়ার (Nadia) মৃৎশিল্পী সন্তু পাল এবং কাশীনাথ পাল বলেন, এবছর বিক্রি সামান্য কিছু বললেও কতটা বিক্রি হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তার কারণ আমরা আগে থেকেই মূর্তি বানিয়ে থাকি।

    মূর্তি বানানোর সরঞ্জাম এর দাম অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেকটাই বেড়েছে। এই কারণেই সব মূর্তি বিক্রি না হলে পড়ে পড়ে নষ্ট হবে। তাই লাভের কথা তো দূর অস্ত খরচের টাকা উঠবে কিনা তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন তারা।

    Mainak Debnath

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Lakshmi puja, Nadia, Ranaghat

    পরবর্তী খবর