Home /News /local-18 /
Murshidabad News:বড়ঞায় আবাস যোজনা ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগ উপ প্রধানের বিরুদ্ধে

Murshidabad News:বড়ঞায় আবাস যোজনা ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগ উপ প্রধানের বিরুদ্ধে

title=

বড়ঞা এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধানের প্রকাশিত ঘরের তালিকায় নিজের আত্মীয়দের সমেত পরিবারের ১৮ জনের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন। কিন্তু এদের প্রত্যেকেরই পাকা বাড়ি রয়েছে।

  • Share this:

    বড়ঞা, মুর্শিদাবাদ: বড়োসড়ো দুর্নীতির পর্দা ফাঁস মুর্শিদাবাদের বড়ঞা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে। পঞ্চায়েতের উপপ্রধানের বিরুদ্ধে উঠে এল বিস্তর স্বজনপোষণ ও দুর্নীতির অভিযোগ । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee) গরীব দুঃস্থদের মাথার উপর ছাদ দেবার জন্য ব্যবস্থা করেছেন বাংলা আবাস প্রকল্পের বাড়ির মাধ্যমে। ইতিমধ্যেই গ্রামে গ্রামে শুরু হয়েছে এই প্রকল্পের আওতাধীন বাড়ি তৈরীর কাজ । রাজ্য সরকার সদ্য এই প্রকল্পের একটি পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করেছেন প্রতি গ্রাম পঞ্চায়েতের নিরিখে। সম্প্রতি, বড়ঞা এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনে থাকা কুড়িটি গ্রাম সংসদের বাংলা আবাস যোজনায় ঘরের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে ৩৮৭ জনের নাম। আর এখানেই ধরা পড়েছে গলদ। মুর্শিদাবাদের (Murshidabad)বড়ঞা থানা এলাকার বড়ঞা এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত। এই গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান শরিফ দেওয়ানের বিরুদ্ধেই উঠেছে বাংলা আবাস যোজনায় দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ।

                      গ্রামের মানুষের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই বড়ঞা এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদ্য প্রকাশিত বাংলা আবাস যোজনা(Bangla Abas Yojona) ঘর তৈরির তালিকা ধরে অভিযোগ আনা হয়েছে প্রশাসনের কাছে। স্থানীয় বাসিন্দা আজাদ মল্লিক জানিয়েছেন, বড়ঞা এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান শরীফ দেওয়ান, প্রকাশিত ঘরের তালিকায় নিজের বাবা বাকাই দেওয়ান কাকা আসেবর দেওয়ান, ভাই নুর জামাল দেওয়ান সহ পরিবারের ১৮ জনের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন। কিন্তু এদের প্রত্যেকেরই পাকা বাড়ি রয়েছে। আমরা চাই প্রশাসন পুরো বিষয়টির তদন্ত করুক এবং উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করুক। এই বিষয়ে বড়ঞার এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ঝর্ণা বড়ালের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছেন , যখন এই তালিকা তৈরি করা হয়েছিল তখন গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের চেয়ারে আমি ছিলাম না। কি হয়েছে বলতে পারব না। তবে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন অন্যায়ের সঙ্গে কোনো আপস নয়। পুরো বিষয়টা তদন্ত করে দেখা হবে। আইন মেনে সবকিছু হবে। নাম থাকলেই যে বাড়ি হবে সেরকম কোনো কথা নেই । তবে উপপ্রধান শরীফ দেওয়ান যে ভুল করেছে সে কথা মেনে নিয়ে উপপ্রধানের বাবা বাকাই দেওয়ান জানিয়েছেন, আমার বাড়ি রয়েছে ঠিকই, আমি না বুঝেই এই অন্যায় কাজ করেছি। নিজেই তালিকায় নাম তুলেছি । যদিও বিষয়টি নিয়ে বড়ঞার বিডিও মণীশ নন্দী জানিয়েছেন, উল্লেখিত ঘটনার লিখিত অভিযোগ ইতিমধ্যেই জমা হয়েছে বিরোধী দলের পক্ষ থেকে। পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবার পর দোষী ব্যক্তির শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    কৌশিক অধিকারী

    First published:

    Tags: Murshidabad, Murshidabad news

    পরবর্তী খবর