• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • MAN GETS DOUBLE DOSE OF VACCINE AT SAME DAY HE IS HEALTHY ACCORDING TO DOCTORS AC

শিলিগুড়িতে একইদিনে জোড়া ডোজ! উদ্বেগ বাড়লেও ডাক্তারি পরীক্ষায় আপাতত সুস্থ সুজিত

শিলিগুড়িতে একইদিনে জোড়া ডোজ! উদ্বেগ বাড়লেও ডাক্তারি পরীক্ষায় আপাতত সুস্থ সুজিত

শিলিগুড়িতে একইদিনে জোড়া ডোজ! উদ্বেগ বাড়লেও ডাক্তারি পরীক্ষায় আপাতত সুস্থ সুজিত

  • Share this:

    ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি: কথায় আছে, 'চোখের আড়াল হলেই মনের আড়াল হয়'। কিন্তু এখানে দেখা যাচ্ছে অন্য গল্প! টিকার আকাল থেকে ভুয়ো ভ্যাকসিনকাণ্ডে যখন জেরবার রাজ্য, তখন করোনা প্রথম টিকা নিতে গিয়ে জোড়া ডোজ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন শিলিগুড়ির সুজিত চন্দ্র দেবনাথ। বাড়ি ভারতনগর এলাকায়। স্বাস্থ্যকর্মীদের পারস্পরিক গল্প করার জেরেই এমন বিপত্তি বলে অভিযোগ টিকাপ্রাপক সুজিতবাবুর। অন্যদিকে, সুজিতবাবুর জোড়া প্রথম ডোজ নেওয়ায় যেমন চিন্তিত তাঁর পরিবার, তেমনই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহরজুড়ে।

    এদিন সুজিতবাবু জানান, কয়েকদিন আগে তিনি চয়নপাড়ায় ৪ নং উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা নিতে যান। আর সেখানেই ঘটে বিপত্তি। সুজিতবাবুর কথায়, \'আমাকে ওঁরা প্রথম ডোজ দেয়। তারপর আমি টিকা নিয়ে বসেছিলাম। আমাকে যে ভয়েলটা থেকে টিকা দেওয়া হয়, সেটাই শেষ ভয়েল ছিল। সেইসময় ওঁরা নতুন ভয়েল বের করে আমায় আবার টিকা দিতে আসে। আমি তখন বারণ করি। কিন্তু আমার একটি কথাও ওঁরা শোনেনি। আমাকে কোভিশিল্ডের প্রথম ডোজটি  দেওয়ার পরেই আবার আরেকটি ডোজ দিয়ে দেয় ওঁরা। একইদিনে পরপর দুটি কোভিশিল্ডের ডোজ দেওয়া হয় আমাকে। এরপরই আমি ওঁদের সুচ ফোটানোর দাগ দেখাই। কিন্তু ওঁরা আমার সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে আমাকে বাড়ি ফিরেয়ে দেন। কিন্তু আমি এখন আতঙ্কিত। যদিও ওই উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে আমাকে পরবর্তীতে টেলিফোন করে জানানো হয়, যদি কোনও সমস্যা হয় তাহলে আমি যেন ওই উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করি।\'

    এদিকে, সুজিতবাবু সঙ্গে ঘটা ঘটনা চাউর হতেই শোরগোল পড়ে যায় চিকিৎসক মহলে। এদিন, উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজের কোভিড কেয়ার নেটওয়ার্কের চিকিৎসক তথা প্যাথোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ কল্যাণ খাঁ, সুজিতবাবুর বাড়ি পৌঁছন। সেখানে পৌঁছে তিনি টিকাপ্রাপক সুজিতবাবুর স্বাস্থ্য পরীক্ষাও করেন। এরপর ডাঃ খাঁ বলেন, \'কোভিশিল্ডের একটি নয়, দুটি ডোজই পেয়েছেন সুজিতবাবু। তবে, ভয়ের কোনও কারণ নেই। চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণ ও পরামর্শে থাকতে হবে সুজিতবাবুকে। টিকা নেওয়ার পরে কী কী উপসর্গ দেখা যাচ্ছে, সেগুলি নজরে রাখতে হবে। তবে আপাতত সুস্থই আছেন সুজিতবাবু। আমি খোদ সুজিতবাবুকে তদারকিও করব।\'

    পাশাপাশি কল্যাণবাবু বলেন, \'সুজিতবাবুর সঙ্গে যা হয়েছে তা একটি অপরাধ। এই ধরনের ভুল করে ধামাচাপা দেওয়া উচিত নয়। বরং এখন আমাদের সকলের উচিৎ সুজিতবাবুর পাশে দাঁড়ানো। আমিও যখন সংবাদমাধ্যমে খবরটি পাই আমার খুব খারাপ লাগে। তাই আমি নিজে সুজিতবাবুকে দেখতে এলাম। ভালো লাগল যে উঁনি ঠিক আছেন।\'

    উল্লেখ্য, সম্প্রতি কেরলে এক মহিলাকেও ভুলবশত প্রথমবারের টিকায় জোড়া ডোজ দেওয়া হয়। ৪৮ ঘন্টার মতো তাঁর শরীরে জ্বর, শরীরে ব্যথা সমেত টিকাদানের পরবর্তীকালের প্রতিক্রিয়াগুলি তীব্র আকার ধারণ করে। কিন্তু সেই মহিলা পরবর্তীতে একেবারে সুস্থ হয়ে ওঠেন। আরেকটি ঘটনা ঘটে রাজস্থানে। দাউসাতে নাঙ্গল স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বছর ৪০-এর এক মহিলাকে একদিনে দুটি ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়া হয়। ওই মহিলারও টিকার পরবর্তীকালে জ্বর আসলেও তিনি বর্তমানে সুস্থই রয়েছেন। তবে প্রশ্ন, যখন টিকা নিয়ে চারিদিকে এত শোরগোল, সতর্কতা, সরকারের ও প্রশাসনের তরফে সচেতনতা; তখন ঠিক কী করে একজন স্বাস্থ্যকর্মীর এতটা খামখেয়ালিপনা থাকতে পারে? কী করেই বা এতটা গাফিলতি হতে পারে? সংশ্লিষ্ট সেই টিকাকেন্দ্র কেনই বা কোনও পদক্ষেপ করল না? যদি সেই টিকাপ্রাপকের অর্থাৎ সুজিতবাবুর কোনও ক্ষতি হত? দায়ী থাকত কে? প্রশ্ন অজস্র থাকলেও, সদুত্তর নেই কোনও।

    যদিও, সমস্ত ওঠা অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মীরা। তাঁদের দাবি, কোনও ভুল হয়নি। টিকার একটি ডোজই পেয়েছেন সুজিতবাবু। কোনও কারণে হয়ত ওঁ বলছেন তাঁকে দুটো ডোজ দেওয়া হয়েছে। তবে এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি।

    যদিও চিকিৎসকরা সুজিতবাবুকে এসে দেখে গিয়েছেন ঠিকই। কিন্তু আতঙ্কে এখনও রয়েছেন সুজিতবাবু সহ গোটা দেবনাথ পরিবার। বলাবাহুল্য, সুজিতবাবুর সঙ্গে ঘটা ঘটনা যেমন একাধারে \'গল্প হলেও সত্যি\', তেমন স্বাস্থ্য ও প্রশাসনের \'অব্যবস্থার\' অন্যতম নজির বলেই মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: