Home /News /local-18 /
Malda: স্বস্তির বৃষ্টি, তবে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও আম

Malda: স্বস্তির বৃষ্টি, তবে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও আম

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির একাংশ

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির একাংশ

তীব্র গরমের পর স্বস্থির বৃষ্টি মালদহে। তবে এদিন ঝড়ের সাথে হাল্কা শিলাবৃষ্টি হয়েছে জেলার বিস্তৃণ এলাকায়। রাত আটটা নাগাদ মুষুলধারে বৃষ্টি।

  • Share this:

    মালদহ: তীব্র গরমের পর স্বস্থির বৃষ্টি মালদহে। তবে এদিন ঝড়ের সাথে হাল্কা শিলাবৃষ্টি হয়েছে জেলার বিস্তৃণ এলাকায়। রাত আটটা নাগাদ মুষুলধারে বৃষ্টি। তীব্র গরমের পর বৃষ্টির জেরে কিছুটা স্বস্থি মিললেও জেলার বেশ কিছু এলায় ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাড়ি ঘর থেকে জমির ফসল। জেলার অধিকাংশ ব্লকে আমের ক্ষতির সম্ভাবনা করছেন কৃষকরা। মূলত ঝড় ও শিলা বৃষ্টির ফলে আমের ক্ষতি হয়েছে।ইংরেজবাজার ব্লকের সাট্টারি, চন্ডীপুর, কাজিগ্রাম, কাশিমবাজার এলাকায় ঝড়ে একাধিক কাঁচা বাড়ি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অধিকাংশ বাড়ির চাল উড়ে গিয়েছে। সাট্টা বাজার চত্বরে দোকান ঝড়ে ভেঙে পড়েছে। একটি বেসরকারি স্কুলের চাল উড়ে গিয়েছে। এলাকার অধিকাংশ কাঁচা বাড়িতে ঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঝড়-বৃষ্টি থামতেই স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধার কাজ শুরু করেন। তবে ঝড়-বৃষ্টিতে সাটারি বাজারের একাধিক দোকানের সামনে উড়ে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। মুদি দোকান থেকে শুরু করে মোবাইলের দোকান ও অন্যান্য দোকানের সামনে গিয়ে বৃষ্টিতে নষ্ট হয়ে গেছে বহু জিনিসপত্র ‌। স্থানীয় মোবাইল ব্যবসায়ী পরেশ কর্মকার বলেন, আমার দোকানের সামনে উড়ে গিয়েছে ঝড়ে। দোকানের ভেতরে নামিদামি কোম্পানির নতুন মোবাইল ও বহু পুরাতন মোবাইল রিপেয়ারিং এর জন্য দিয়েছিলেন গ্রাহকেরা। বৃষ্টির জলে সমস্ত মোবাইল নষ্ট হয়ে। এখন এই ক্ষতিপূরণ কিভাবে পূরণ হবে ভেবে পাচ্ছিনা।শুধু ইংরেজবাজার নয়, এদিন রাতে মানিকচক, কালিয়াচক-২, রতুয়া ও পুরাতন মালদা ব্লকে ঝড়ের প্রভাব পড়েছে। জেলার প্রতিটি ব্লকে এদিনের ঝরে আমের ব্যাপক ক্ষতির সম্ভাবনা করছেন কৃষকরা। শিলা বৃষ্টির ফলে আম নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। শুধু তাই নয় এদিনের শিলাবৃষ্টি অঝরে বোরো ধানের ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। রাতে মালদা জেলায় ঝড় বৃষ্টি হওয়ায় ক্ষতির পরিমাণ এখনো সঠিক জানা যায়নি। তবে বেশ কিছুদিন তীব্র গরমের পর বৃষ্টিপাতের জেরে কিছুটা স্বস্তি মিললেও জেলায় ক্ষতির সম্ভাবনা ব্যাপক এমন আশঙ্কা করছেন প্রশাসনের একাংশ।

    First published:

    Tags: Malda, North Bengal

    পরবর্তী খবর