Home /News /local-18 /
Malbazar Vaccination: 'টিকা নেব এবার আমরাও', মালবাজারে উৎসাহের সঙ্গে চলল ছোটদের টিকাকরণ

Malbazar Vaccination: 'টিকা নেব এবার আমরাও', মালবাজারে উৎসাহের সঙ্গে চলল ছোটদের টিকাকরণ

প্রথম ডোজ এসে পৌঁছেছে বিভিন্ন স্কুল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। 

প্রথম ডোজ এসে পৌঁছেছে বিভিন্ন স্কুল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। 

মাল সুপারস্পেশালিটি এবং মহকুমা হাসপাতালে সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ সুরজিৎ সেনের করোনা রিপোর্ট (corona report) পজিটিভ (positive) আসে।

  • Share this:

    #মালবাজার: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘোষণার পর নড়েচড়ে বসেছে বিভিন্ন প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতর। জেলার বিভিন্ন জায়গায় ৩ জানুয়ারি শুরু হয়ে গিয়েছে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের টিকাকরণ। জানা গিয়েছে, কোভ্যাকসিনের (Covaxin) প্রথম ডোজ এসে পৌঁছেছে বিভিন্ন স্কুল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। পড়ুয়াদের স্কুলে এবং স্কুলছুটদের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে প্রশাসনের তরফে।

    প্রয়োজনীয় তথ্যের মধ্যে ছাত্র বা ছাত্রীর পরিচয়পত্র আবশ্যিক। এছাড়া তারা কোউইন অ্যাপে (Cowin App) আগে থেকেই নিজেদের নাম নথিভুক্ত করে রাখতে পারে। টানা তিনদিন ধরে চলল টিকাকরণ। মালবাজার শহরে প্রথম টিকাকরণ কেন্দ্র করা হয়েছিল মাল আদর্শ বিদ্যাভবনকে (Malbazar Vaccination)। এদিন পড়ুয়া এবং অভিভাবকদের উৎসাহী হয়ে টিকাকরণ কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়। সকলেই এই উদ্যোগে খুশি প্রকাশ করেন। অনেকেই জানান, এখন তাঁরা ও তাঁদের সন্তানরা নিশ্চিন্ত আগের থেকে। অনেকেই প্রথমে ভয় পেলেও নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগিতা করে। স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথম দিনে মাল আদর্শ বিদ্যাভবনে আয়োজিত টিকাকরণ কর্মসূচি থেকে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সী ৫০ জন পড়ুয়া টিকা পেয়েছে। দ্বিতীয় দিনে ২০০ জনকে টিকা দেওয়ার কথা বলা হয়। জানা গিয়েছে, তিনদিনই সুষ্ঠুভাবে শৃঙ্খলা মেনে টিকাকরণ হয় (Malbazar Vaccination)। মাল পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের কোঅর্ডিনেটর সুপ্রতীম দাসের বক্তব্য, "স্কুলগুলোতে কোভিড টিকাকরণে জোর দিচ্ছি। এছাড়াও আমরা ক্রমাগত স্বাস্থ্যবিধি মানা নিয়ে শহর এবং শহর লাগোয়া এলাকায় মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছি"। এদিন মাল পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারপার্সন স্বপন সাহা বলেন, "পড়ুয়াদের টিকাকরণের ক্ষেত্রে বিশেষ জোর দেওয়া উচিৎ। কারণ ওরাই ভবিষ্যৎ। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে আমরা টিকাকরণ কর্মসূচি চালু রেখেছি"। মাল আদর্শ বিদ্যাভবনের এক ছাত্র প্রীতম দে জানায়, টিকা নিতে সে এসেছিল মায়ের সঙ্গে। প্রথম প্রথম ভয় লাগলেও আগামীর কথা ভেবে টিকা নিয়ে নেয় সে। অভিভাবকরাও এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অনেককে বলতে শোনা গিয়েছে, "এতদিন এই দিনটার অপেক্ষায় ছিলাম। বড়দের তো সবার টিকা হয়ে গেল। ওরাই বাকি ছিল। এবার কিছুটা হলেও নিশ্চিন্ত লাগছে"। এদিকে, জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা। মাল সুপারস্পেশালিটি এবং মহকুমা হাসপাতালে সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ সুরজিৎ সেনের করোনা রিপোর্ট (corona report) পজিটিভ (positive) আসে। স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্তমানে সুপারিনটেনডেন্ট নিভৃতবাসে (home isolation) রয়েছেন। সুপার ছাড়াও করোনা সংক্রমিত হয়েছেন হাসপাতালে কর্মরত এক আধিকারিক, নার্সিং স্টাফ। প্রশাসনের তরফে ক্রমাগত সতর্ক করার পাশাপাশি স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। আতঙ্কিত হতে বারণ করেছেন আধিকারিকরা। Vaskar Chakraborty
    Published by:Samarpita Banerjee
    First published:

    Tags: Corona vaccination, Jalpaiguri, Malbazar, Siliguri

    পরবর্তী খবর