Home /News /local-18 /
Darjeeling: নতুন নির্দেশিকায় ছাড় মেলায়, বিয়েতে! বিপাকে পর্যটন শিল্প

Darjeeling: নতুন নির্দেশিকায় ছাড় মেলায়, বিয়েতে! বিপাকে পর্যটন শিল্প

এই বছরের তুষারপাত

এই বছরের তুষারপাত

অল্প সময়ের জন্য পর্যটন খুললেও চলতি মাসে ফের নির্দেশিকা জারি করে পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। একপ্রকার দেও?

  • Share this:

    দার্জিলিং ও সিকিম: দেড় বছরের আগের স্মৃতি যেন এসেছে ফিরে। ফের দৈনিক জীবনে রাশ টানল করোনা (Covid-19) নামক অদৃশ্য দস্যু। করোনার (Covid-19) তৃতীয় ঢেউয়ের থাবা বসেছে উত্তরবঙ্গেও। সংক্রামিত হয়েছেন বেশ কয়েকজন চিকিৎসক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ।

    করোনা (Covid-19) সংক্রমণ ঠেকাতে উত্তরবঙ্গের সমস্ত পর্যটনকেন্দ্র, অভয়ারণ্য ও উদ্যানে পর্যটকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাজ্য সরকার। এর জেরে বিপাকে পড়েছে পর্যটনশিল্প (Tourism Industry)। মাঝে বেশ কিছুদিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুব অল্প সময়ের জন্য পর্যটন খুললেও চলতি মাসে ফের নির্দেশিকা জারি করে পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। একপ্রকার দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে পর্যটন ব্যবসায়ীদের।এদিকে, রাজ্য সরকারের তরফে মেলার অনুমতি দেওয়ার পাশাপাশি বিয়ে বাড়িতে ২০০জনের প্রবেশের অনুমতিতে ছাড় দেওয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই আরও হতাশ হন পর্যটন ব্যবসায়ীরা। নিজেদের বাঁচার তাগিদে ও পর্যটন শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে এবং সরকারের দৃষ্টি আকর্ষন করতে এবার তাই আইনের দ্বারস্থ হতে চলেছে পর্যটন ব্যবসায়ীরা। সম্প্রতি ফের বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় সেই গ্রাফ উর্দ্ধমুখী। ভয় এবং আতঙ্কে রাশ টানতে বেশ কিছু নির্দেশিকা জারি করেছিল রাজ্য সরকার। তবে এতে কোনও আপত্তি ছিল না ব্যবসায়ীদের। ২০২১এর শেষ থেকে ২০২২ এর শুরুতে পাহাড়ে টানা তুষারপাত হওয়ায় পর্যটন ব্যবসায়ীদের মুখে হাসি ফুটেছিল। তবে, ফের ঘোষণা হয় বিধিনিষেধ মেনে চলার বিষয়। দেড় বছর পর আশার আলো দেখতে শুরু করেছিল পর্যটন ব্যবসায়ীরা। ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত বুকিংও ভর্তি হয়েছিল। কিন্তু আচমকা ফের বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়েন ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে স্থানীয়রা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতে পুনরায় পর্যটন চালু করা হয় সেই দাবিতে পর্যটন সংস্থার তরফে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেওয়ার পাশাপাশি নীরব বিক্ষোভও প্রদর্শন করা হয়েছে। কিন্তু তারপরও কোনও সদুত্তর আসেনি রাজ্য সরকারের তরফে। হিমালয়ান হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম নেটওয়ার্কের (Himalayan Hospitality and Tourism Network) সাধারণ সম্পাদক (general secretary) সম্রাট সান্যাল বলেন, 'আমাদের দিকে লক্ষ্য দিচ্ছে না সরকার। আমরা চূড়ান্ত হতাশ। মুখ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেওয়ার পর আমাদের আশা ছিল যে নতুন নির্দেশিকায় পর্যটনের ছাড় দেওয়া হবে। কিন্তু মেলা আর বিয়ের কথা চিন্তা করা হলেও আমাদের কথা চিন্তা করল না সরকার। সেজন্য আমরা সমস্ত পর্যটন সংস্থার সঙ্গে মিলে আমরা আইনের সাহায্য চাওয়ার কথা চিন্তা করছি।' ইস্টার্ন হিমালয়ান ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের (eastern himalayan travel and tour operator association) সভাপতি দেবাশীষ মৈত্র বলেন, 'আমাদের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। আমাদের কথা কেউ চিন্তা করছে না। মেলা আর বিয়ে বাড়ির ছাড় দেওয়া হল। সেখান থেকে কোন কর পায় না রাজ্য। অথচ পর্যটন বন্ধ থাকলেও কর আদায় করা হচ্ছে। এরপর আমাদের রাস্তায় নামা ছাড়া কোনও পথ থাকবে না।' প্রসঙ্গত, দার্জিলিংয়ের পাশাপাশি সিকিমের পর্যটন শিল্পে ভাটা পড়েছে। এর মধ্যেই সিকিমের স্বরাষ্ট্র দফতর জারি করা নতুন কোভিড -১৯ নির্দেশিকায় অন্যান্য বিধিনিষেধের মধ্যে পাহাড়ি রাজ্যে প্রবেশের জন্য আরটি-পিসিআর নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করেছে। এই নতুন নির্দেশিকা আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত বহাল থাকবে। সবার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে শুধুমাত্র জোড় ও বিজোড় রেজিস্টার্ড (odd and even registered number) নম্বর সহ যানবাহন চলাচলের অনুমতি দিয়েছে সিকিম। Vaskar Chakraborty
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Darjeeling, Jalpaiguri

    পরবর্তী খবর