Home /News /local-18 /
Jalpaiguri: প্রথমে চিতাবাঘ, এবার হরিণ! লোকালয়ে বন্যরা

Jalpaiguri: প্রথমে চিতাবাঘ, এবার হরিণ! লোকালয়ে বন্যরা

বনকর্মীরা

বনকর্মীরা হরিণটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় 

চিতাবাঘ, হাতির পর এবার হরিণ। হরিণ কারও কোনও ক্ষতি না করলেও গ্রামবাসীদের মনে অন্য ভয়। যদি আবার বাঘ এর লোভে ঢুকে পড়ে? এদিন জঙ্গল থেকে বেরিয়ে সোজা একটি বাড়ির স্নানাগারে ঢুকে পড়ল একটি পূর্নবয়ষ্ক হরিণ।

  • Share this:

    ভাস্কর চক্রবর্তী,জলপাইগুড়ি: বেশ কয়েকদিন আগে রীতিমতো কেঁপে উঠেছিল ক্রান্তি এলাকার বাসিন্দারা। খাটের নীচে চিতাবাঘ দেখে তো ঘুম উড়েছিল সকলের। লোকালয়ে বন্যপ্রাণের হানার ঘটনা নতুন কিছু নয়। কিন্তু বারবার এমন ঘটনা চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে প্রায় সকলেরই কপালে।চিতাবাঘ, হাতির পর এবার হরিণ। হরিণ কারও কোনও ক্ষতি না করলেও গ্রামবাসীদের মনে অন্য ভয়। যদি আবার বাঘ এর লোভে ঢুকে পড়ে? এদিন জঙ্গল থেকে বেরিয়ে সোজা একটি বাড়ির স্নানাগারে ঢুকে পড়ল একটি পূর্নবয়ষ্ক হরিণ। এদিন সকালে এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটল ধূপগুড়ি ব্লকের গধেয়ার কুঠি গ্রাম পঞ্চায়েতের দক্ষিণ ঝাড়আলতা জমাদারপাড়া এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে এলাকায় আচমকাই ঢুকে পড়ে একটি হরিণ ঢোকার খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকায় ভিড় জমায় প্রচুর সাধারণ মানুষ। ভিড় জমতেই ভয়ে হরিণটি ঢুকে পড়ে স্থানীয় বিমল রায়ের বাড়ির স্নানাগারে। সেখান থেকে বেড়িয়ে ফের হরিণটি আশ্রয় নেয় পাশের আরেক বাড়ির রান্নাঘরে। সেই মুহূর্তে সেখানেই ঘরের ভেতরে হরিণটিকে আটকে রেখে এলাকাবাসী খবর দেয় বনদফতরে। পরবর্তীতে, বনকর্মীরা এসে ঘরের ভেতর থেকে হরিণটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এদিন তৃণভোজীকে দেখতে এলাকায় ভিড় জমায় প্রচুর মানুষ। আচমকা এভাবে লোকালয়ে হরিণ ঢুকে পড়ায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। স্থানীয় এক গৃহবধূ বলেন, 'প্রথমে আমরা কেউ বুঝে উঠতে পারিনি বিষয়টি। এরপর রাস্তা থেকে দেখলাম দৌঁড় দিয়ে এসে ঘরের ভেতরে ঢুকে গেল। অনেকক্ষণ বাদে আমরা বুঝতে পারি, সেটি হরিণ। বনদফতরে খবর দেওয়া হলে তাঁরা নিয়ে চলে যায় হরিণটিকে।'

    First published:

    Tags: Jalpaiguri

    পরবর্তী খবর