Home /News /local-18 /
Jalpaiguri: জাতীয় ভারোত্তলনে সোনা জয় শুভার্থীর

Jalpaiguri: জাতীয় ভারোত্তলনে সোনা জয় শুভার্থীর

পদক

পদক হাতে শুভার্থী

জলপাইগুড়ির ঐতিহ্য রাজবাড়ি, তিস্তা ও সংস্কৃতি। এবার খেলাধুলোতেও পিছিয়ে রইল না উত্তরের অন্যতম বড় এই শহর তথা জেলা।

  • Share this:

    ভাস্কর চক্রবর্তী, জলপাইগুড়ি: জলপাইগুড়ির ঐতিহ্য রাজবাড়ি, তিস্তা ও সংস্কৃতি। এবার খেলাধুলোতেও পিছিয়ে রইল না উত্তরের অন্যতম বড় এই শহর তথা জেলা। দেশের দরবারে জলপাইগুড়িকে তুলে ধরল শহরেরই 'সোনা' মেয়ে শুভার্থী। মাহাতো পরিবার উচ্ছ্বসিত এই খবরে। মেয়ের জয় জয়কার তো বটেই, সঙ্গে এই শহরের জয় জয়কার হল এবার জাতীয়স্তরে।জাতীয় ভার উত্তোলন (National weight lifting) প্রতিযোগিতায় সোনা জিতে এশিয়ান মিটে (Asian meet) অংশ নেওয়ার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলেন জলপাইগুড়ির মেয়ে শুভার্থী মাহাতো। জলপাইগুড়ি থেকে শুভার্থী ও তাঁর প্রশিক্ষক (coach) বাসুদেব দাস গিয়েছিল এই প্রতিযোগিতায়। কেরলে অনুষ্ঠিত ন্যাশনাল ক্লাসিক পাওয়ার লিফটিং (National Classic Powerlifting)-এ ৬৯ কেজি বিভাগের দুটি ইভেন্টে পদক জয় করেছেন জলপাইগুড়ির এই সোনার মেয়ে। শুভার্থী পেয়েছেন একটি সোনা ও একটি রুপোর পদক। শুভার্থীর এই সাফল্য সাড়া ফেলেছে জাতীয় স্তরে। ইতিমধ্যেই তাঁকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে জলপাইগুড়ি। এদিন শুভার্থী বলেন, 'খুব খুশি আমি। আগামীতে আরও বড় লক্ষ্য রয়েছে যাতে দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক স্তরের প্রতিযোগিতায় নিজের নাম লেখাতে পারি। এবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে যাতে এভাবেই আমি সাফল্য অর্জন করতে পারি, এই আশীর্বাদ চাইব সকলের কাছে।' সকলকেই স্বাস্থ্যের প্রতি নজর দেওয়া উচিৎ বলে জানান শুভার্থী। তিনি বলেন, 'জিম হোক বা যোগা।শরীর ও মন ভালো রাখার জন্য যেকোনও শারীরিক ব্যয়াম ভীষণ দরকারি। এটা করলে মানুষ ডিপ্রেশন থেকে মুক্ত পায়।' জলপাইগুড়ির আনন্দচন্দ্র কলেজে কলাবিভাগের স্নাতক পাশ করা এই ছাত্রী বর্তমানে জলপাইগুড়ির একটি ব্যামাগারে প্রশিক্ষকের কাজ করেন। এদিকে শুভার্থীর এই সাফল্যে খুশি তাঁর মা সরস্বতী মাহাতো ও বাবা শংকর মাহাতো। তাঁরা চান, তাঁদের মেয়ে আরও বড় ক্রীড়াবিদ হয়ে দেশের সম্মান বৃদ্ধি করুক। ইতিমধ্যেই জলপাইগুড়ি শহরের এই কৃতি ক্রীড়াবিদকে তাঁর সাফল্যের জন্য সংবর্ধনা দেওয়ার প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছে।

    First published:

    Tags: Jalpaiguri

    পরবর্তী খবর