Home /News /local-18 /
Siliguri: হঠাৎ বদল মুখ্যমন্ত্রীর সভাস্থল!

Siliguri: হঠাৎ বদল মুখ্যমন্ত্রীর সভাস্থল!

পরিদর্শনে

পরিদর্শনে পুলিশ

পাহাড় সফরে আঞ্চলিক দলের নেতাদের সঙ্গেও বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। বৈঠক করতে পারেন হামরো পার্টির সঙ্গেও। ভোটের ফলের পরই তৃণমূল নেতৃত্ব জানিয়ে দেয় পাহাড়ের উন্নয়নে হামরো পার্টিকে সবরকম সহযোগিতা করবে তারা। 

  • Share this:

    ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি: ২৭ মার্চ চারদিনের সফরে দার্জিলিং (Darjeeling) আসছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। ২৭ তারিখ কলকাতা থেকে শিলিগুড়ির (Siliguri) কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে একটি সরকারি অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর (CM Mamata Banerjee)। সভাস্থল পরিবর্তন করে কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামের বদলে বেছে নেওয়া হয়েছে কাওয়াখালির মাঠকে। মুখ্যমন্ত্রীর (CM Mamata Banerjee) সফরের আগে এদিন শিলিগুড়ি সংলগ্ন কাওয়াখালির মাঠ পরিদর্শন করেন শিলিগুড়ির (Siliguri) পুলিশ কমিশনার গৌরব শর্মা। জানা গেছে মুখ্যমন্ত্রী ২৭ মার্চ শিলিগুড়িতে সরকারি অনুষ্ঠান সেরে চলে যাবেন দার্জিলিং। সেখানে বেশ কয়েকটি সরকারী অনুষ্ঠান রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। রয়েছে ঢালা রাজনৈতিক কার্যকলাপ ও কর্মসূচি। ৩১ মার্চ তাঁর কলকাতা ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে। প্রসঙ্গত, চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে চার দিনের দার্জিলিং সফরে আসতে চলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসনিক সূত্রে খবর ছিল, ২৮ মার্চ শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা ক্রীড়াঙ্গন মাঠেই সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন মুখ্যমন্ত্রী। স্টেডিয়ামের কোথায় মঞ্চ করা হবে, দর্শকদের বসার জায়গা কোথায় হবে, তা পুলিশের পদস্থ কর্তাদের দ্বারা খতিয়ে দেখাও হয়। কিন্তু কাঞ্চনজঙ্ঘা ক্রীড়াঙ্গন স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ফেল নাকি অন্য কোনও কারণে মুখ্যমন্ত্রীর সভাস্থল বদল তা এখনও স্পষ্ট নয়। জানিয়ে রাখি, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি শিলিগুড়ি পুরভোটের ফলপ্রকাশের বিকেলেই শহরে এসেছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই প্রথম শিলিগুড়ি পুরসভা এককভাবে তৃণমূল দখল করার পর প্রকাশ্য মঞ্চে সভা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে শিলিগুড়ির মসনদে ঘাসফুল ফোটানোর ছিল দীর্ঘ প্রতীক্ষার ফল। অন্যদিকে, সামনেই পাহাড়ের জিটিএ'য়ের ভোট। সদ্য সমাপ্ত পুরভোটে তৃণমূল বা তার দুই বন্ধু দল সে অর্থে সাফল্য পায়নি। শৈলশহরের পুরবোর্ড দখল করে হামরো পার্টি। তাই জিটিএ'য়ের নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রীর এই পাহাড় সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। পাহাড় সফরে আঞ্চলিক দলের নেতাদের সঙ্গেও বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। বৈঠক করতে পারেন হামরো পার্টির সঙ্গেও। ভোটের ফলের পরই তৃণমূল নেতৃত্ব জানিয়ে দেয় পাহাড়ের উন্নয়নে হামরো পার্টিকে সবরকম সহযোগিতা করবে তারা। এবারে মুখ্যমন্ত্রী কী ঘোষণা করেন সেদিকেই নজর পাহাড়ের।

    First published:

    Tags: CM Mamata Banerjee, Jalpaiguri, Siliguri

    পরবর্তী খবর