Home /News /local-18 /

ভবিষ্যতে ডাক্তার হতে চাই, বলল জেলায় মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক আশুতোষ মান্না

ভবিষ্যতে ডাক্তার হতে চাই, বলল জেলায় মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক আশুতোষ মান্না

জেলায় মাধ্যমিকে একমাত্র সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক আশুতোষ মান্না। জানালেন নিজের অভিজ্ঞতার কথা।

জেলায় মাধ্যমিকে একমাত্র সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক আশুতোষ মান্না। জানালেন নিজের অভিজ্ঞতার কথা।

জেলায় মাধ্যমিকে একমাত্র সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক আশুতোষ মান্না। News18 কে এক্সক্লুসিভ জানালেন নিজের অভিজ্ঞতার কথা।

  • Share this:

    করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আগমনের ফলে CBSE , ICSE র মতো সর্বভারতীয় বোর্ড এক্সামগুলি একের পর এক বাতিল হতে থাকে । রাজ্যজুড়ে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে , প্রথমদিকে স্থগিত রাখা হলেও শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে যায় এই বছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা । পরীক্ষার ফল নির্ধারিত করা হয় নবম শ্রেণীতে প্রাপ্ত নম্বর ও একটি ইন্টার্নাল অ্যাসেসমেন্টের মাধ্যমে । আর এর জেরেই এই বছর রাজ্যে জয়জয়কার মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের । সর্বকালীন রেকর্ড গড়ে ৬৯৭ নম্বর পেয়ে রাজ্যে এই বছর মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপকদের মধ্যে রয়েছে মোট ৭৯ জন ছাত্র ছাত্রী । প্রতি জেলা থেকে অন্তত কমপক্ষে চার থেকে পাঁচ জন পরীক্ষার্থী মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে পাশ করেছে । যদিও হাওড়ার ক্ষেত্রে এই চিত্রটি সম্পূর্ন ভিন্ন । মাধ্যমিকে প্রথম দশ সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপকদের মধ্যে হাওড়ার মোট ৩৬ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত থাকলেও , মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে হাওড়া থেকে মাত্র একজন । হাওড়ার উদয়নারায়নপুরের সারদা চরণ ইনস্টিটিউশনের আশুতোষ মান্না এই বছর মাধ্যমিকে জেলা থেকে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে । জেলার একমাত্র সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপক হওয়ায় খুশির হাওয়া আশুতোষের পরিবার - পরিজন , বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকা ও উদয়নারায়নপুরের সিংটি গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দাদের মধ্যে । নিউজ ১৮ লোকালকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে আশুতোষ জানালেন তার অভিজ্ঞতার কথা । ঘড়ি দেখে না পড়লেও , সব মিলিয়ে প্রতিদিন প্রায় আট ঘন্টারও বেশি সময় ধরে পড়তো আশুতোষ । অবসর সময়ে কাটুন দেখাই ছিল তার হবি । আশুতোষ , নিজের এই সাফল্যের পিছনে কঠোর পরিশ্রম , মা - বাবার সব কাজে পাশে থাকা , বিদ্যালয় ও প্রাইভেট শিক্ষকদের কৃতিত্ব কেই গুরুত্ব দিয়েছে সে । পাশাপাশি সে জানায় ভবিষ্যতে ডাক্তারি পড়ে উচ্চশিক্ষিত হওয়ার স্বপ্ন তার । কিছুদিন আগেই বিনা চিকিৎসায় নিজের ঠাকুমাকে হার্টের অসুখে হারানোর ফলে সে চায় কার্ডিওলজিস্ট হতে । তার ঠাকুমার মতো কেউ যাতে না গ্রাম্য এলাকায় বিনা চিকিৎসায় মারা যায় সেই ব্যবস্থাও করতে চায় আশুতোষ । যদিও তেমন কোনো পরীক্ষা না দিয়েই মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ায় সেই আক্ষেপের কথাও জানালো সে । পরীক্ষা দিয়ে ভালো নম্বর পাওয়ার আনন্দটা না পাওয়ায় কিছুটা মনমরা সে । তবে তার এই কৃতিত্বে গর্বিত তার বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র থেকে শুরু করে শিক্ষকমন্ডলীরা । আশুতোষের এই কৃতিত্বে তাকে সম্মান জানিয়েছেন উদয়নারায়নপুরের বিধায়ক শ্রী সমীর পাঁজা । তাকে ভবিষ্যতে পড়াশোনায় আরও এগিয়ে যাওয়ার জন্য সব রকম সাহায্যের আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি ।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Madhyamik Result

    পরবর্তী খবর