Home /News /local-18 /
Hawker to Crorepati: ৩০ টাকাতেই ভাগ্য বদল বীরভূমের এই ফেরিওয়ালার, কয়েক ঘণ্টাতেই হলেন কোটিপতি

Hawker to Crorepati: ৩০ টাকাতেই ভাগ্য বদল বীরভূমের এই ফেরিওয়ালার, কয়েক ঘণ্টাতেই হলেন কোটিপতি

৩০ টাকাতেই ভাগ্য বদল বীরভূমের এই ফেরিওয়ালার, কয়েক ঘন্টাতেই হলেন কোটিপতি

৩০ টাকাতেই ভাগ্য বদল বীরভূমের এই ফেরিওয়ালার, কয়েক ঘন্টাতেই হলেন কোটিপতি

Hawker to Crorepati: এই ফেরিওয়ালারই জীবন বদলে গেল সোমবার। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তিনি ফেরিওয়ালা থেকে হয়ে উঠলেন কোটিপতি ।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : ফেরি করেই দিন কাটে। গড়ে রোজ ২০০ টাকা রোজগার। এই টাকা দিয়েই চলে সংসার। ২০০ টাকায় দুই সন্তান, স্ত্রী এবং বাবা মাকে নিয়ে সংসার চালাতে গিয়ে জীবনে কোন শখ পূরণ হয়নি। এমনকি এই ফেরিওয়ালার (hawker) আর্থিক অবস্থা এতটাই খারাপ যে মাটির বাড়ির খড়ও ঠিক সময় বদলে নেওয়ার ক্ষমতা নেই। বর্তমানে ওই মাটির বাড়ি পৌরসভার দেওয়া ত্রিপল দিয়ে ঢাকা।

    তবে এই ফেরিওয়ালারই (hawker) জীবন বদলে গেল সোমবার (Hawker to Crorepati)। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তিনি ফেরিওয়ালা থেকে হয়ে উঠলেন কোটিপতি (Crorepati)। তার এই কোটিপতি হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়েছেন ৩০ টাকার একটি লটারির টিকিট। কয়েক ঘন্টায় কোটিপতি হয়ে ওঠা এই ফেরিওয়ালা হলেন বীরভূমের (Birbhum) দুবরাজপুর পৌরসভার ইসলামপুরের আশরাফী পাড়ার বাসিন্দা শেখ এহসান।

    শেখ এহসান জানিয়েছেন, তিনি দিনে যে টাকা রোজগার করেন সেখান থেকে প্রায় প্রতিদিনই ৬০ টাকার লটারির টিকিট (Lottery) কেনেন। সেইমতো সোমবার সকালে তিনি ৩০ টাকার একটি লটারির টিকিট কেনেন। সেই টিকিটের রেজাল্ট বের হয় এদিন দুপুর একটার সময়। তারপরেই দেখতে পাওয়া যায় প্রথম পুরস্কার হিসেবে সেই টিকিটে উঠে এসেছে এক কোটি টাকা।

    এক কোটি টাকা জেতার খবর পেয়েই তিনি দুবরাজপুর থানার দ্বারস্থ হন নিরাপত্তার জন্য। পাশাপাশি তার কোটিপতি (Crorepati) হওয়ার খবর এলাকায় চাওর হতেই স্থানীয় বাসিন্দারা তার বাড়িতে এসে ভিড় জমাতে শুরু করেন। কোটিপতি হওয়ার খবরে ওই যুবকের আত্মীয় স্বজন থেকে প্রতিবেশীদের চোখেমুখে উজ্জ্বল হাসি।

    এহসান জানিয়েছেন, "আমাদের ঠিকঠাক বাড়ি নেই। এই টাকা দিয়ে পছন্দমত একটি বাড়ি তৈরি করব। টাকার অভাবে আমরা পড়াশোনা করতে পারিনি, এই টাকা দিয়ে আমি আমার সন্তানদের পড়াশোনা করে বড় করে তুলবো।"

    এহসানের মা নুরেমা বিবি ছেলের এই প্রতিপত্তি হওয়ার খবরে চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি। তিনি আনন্দে চোখের জলে জানিয়েছেন, "আমার ছেলে বৌমা ও তাদের সন্তানরা ভালোভাবে মানুষ হোক, ভালোভাবে থাকুক এটাই চেয়েছি সব জায়গায়। আমাদেরও ভালোভাবে, ভালো খাইয়ে-দাইয়ে রাখবে এটাই আমাদের স্বপ্ন। আজ সেই স্বপ্ন পূরণ হলো।"

    এহসানের বাবা সেখ জাফর আলী জানিয়েছেন, "আমি নিজেও ফেরি করে সংসার নির্বাহ করি। তাই ছেলেও ওই কাজের সাথে যুক্ত। সে লটারিতে টাকা পেয়েছে শুনে আমরা খুব খুশী।"

    প্রসঙ্গত, ফেরিওয়ালা (hawker) থেকে কোটিপতি (Hawker to Crorepati) হওয়া দুবরাজপুরের এই এহসানের পরিবারে রয়েছে দুই সন্তান, স্ত্রী ও বাবা মা। এর পাশাপাশি তাঁর আরও এক ভাই রয়েছে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Crorepati, Hawker, Lottery

    পরবর্তী খবর