Home /News /local-18 /

যত্রতত্র পড়ে থাকা তেরঙ্গার যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণে মান রক্ষার চেষ্টা সিউড়ির যুবকদের

যত্রতত্র পড়ে থাকা তেরঙ্গার যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণে মান রক্ষার চেষ্টা সিউড়ির যুবকদের

দেশ যখন স্বাধীনতার ৭৫ বছরে পা রাখলো তখনো কোথাও যেন সচেতনতার অভাবের ছবি চোখে পড়ে।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : 'মুক্তির মন্দির সোপানতলে কত প্রাণ হল বলিদান, লেখা আছে অশ্রু জলে'। এই অজস্র প্রাণের বলিদানের মধ্য দিয়েই আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। তবে দেশ যখন স্বাধীনতার ৭৫ বছরে পা রাখলো তখন কোথাও যেন সচেতনতার অভাবের ছবি চোখে পড়ে। সরকারিভাবে তেরঙ্গার সঠিক সম্মান প্রদর্শনের জন্য বারংবার প্রচার সত্বেও এখনও সেই সচেতনতা আসেনি একাংশের মধ্যে। যে কারণে স্বাধীনতা দিবস হোক অথবা প্রজাতন্ত্র দিবস, সম্মান প্রদর্শনের পর দিনের ছবিটা থাকে ভিন্ন। রাস্তায় যত্রতত্র পড়ে থাকতে দেখা যায় কাগজ অথবা প্লাস্টিকের ছোট ছোট জাতীয় পতাকা।

    তবে কিছু সচেতন মানুষ সেগুলিকে কুড়িয়ে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের মধ্য দিয়ে মান রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যান। এই সকল মানুষদের মধ্যে রয়েছেন বীরভূমের সিউড়ি শহরের বেশ কয়েকজন যুবক। সিউড়ির এই কয়েকজন যুবক গত তিন বছর ধরে স্বাধীনতা দিবস হোক অথবা প্রজাতন্ত্র দিবস, ঠিক তার পরদিন থেকে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে বেড়ান যত্রতত্র পড়ে থাকা তেরঙ্গা সংগ্রহ করতে। তারা সেগুলিকে সংগ্রহ করার পর সুন্দরভাবে বাক্সবন্দি করে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তুলে দেন সিউড়ি থানার পুলিশ আধিকারিকদের হাতে। অন্যান্য বছরের মতো এ বছরও তারা তাদের এই দায়িত্ব পালন করলেন। তবে তাদের এই মহৎ কাজের ছবি প্রতিবছরই সোশ্যাল মিডিয়া অথবা মানুষের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু তা সত্বেও এমন ঘটনার বিরতি নেই।

    এই সকল যুবকদের দলের এক সদস্য অপূর্ব দাস জানিয়েছেন, "আমরা তিন বছর ধরে এই কাজ চালাচ্ছি। যে কারণে এই সকল ঘটনার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এদিন আমরা অর্ক প্রভা দাস, রুমন দত্ত, সৃতর দে, অর্ক দেব মাহারা, শেখ সোহেল সহ বেশ কয়েকজন মিলে সাইকেল চালিয়ে সিউড়ি বাসস্ট্যান্ড, বড় বাগান সহ একাধিক এলাকা ঘুরে দেখি। অনেক জায়গায় ছোট ছোট তেরঙ্গা মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায়, আবার অনেক জায়গায় সেগুলিকে বিশ্রীভাবে ঝুলে থাকতে দেখা যায়। আমরা এই সকল অপ্রীতিকর অবস্থায় পড়ে থাকা পতাকাগুলি একে একে সংগ্রহ করি। তারপর সেগুলিকে সম্মানের সাথে জোর করে একটি বাক্সে রেখে সিউড়ি থানার পুলিশ আধিকারিকের হাতে তুলে দিই।"

    পাশাপাশি ওই যুবক আরও জানিয়েছেন, "দেশের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্যই আমরা এই কাজ বেছে নিয়েছি। আমি চাইবো প্রত্যেকেই অনুষ্ঠানের সমাপ্তির পরে যেন যথোপযুক্ত সম্মান প্রদর্শনের জন্য তেরঙ্গার সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। তাতে আমাদের দেশের জন্য যে সকল শহীদরা প্রাণ বিসর্জন করেছেন তারা আরও শান্তি পাবেন।" তবে প্রতিবছর এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটার সঙ্গে সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই বেশ কয়েকটি প্রশ্ন ওঠে, কেন বারংবার নাগরিকদের একাংশ এমন ভুল করবেন? কেন বারংবার প্রচার সত্ত্বেও একদিনের সম্মান প্রদর্শনের জন্য আরেকদিন অবমাননার শিকার হতে হবে দেশের মান, দেশের শান জাতীয় পতাকাকে?

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    Tags: Birbhum, Independence day, National Flag, Suri

    পরবর্তী খবর