Home /News /local-18 /
Birbhum: পৌষমেলার বিকল্প মেলা: বিশ্বভারতীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উদ্যোক্তারা গড়লেন সৌজন্য

Birbhum: পৌষমেলার বিকল্প মেলা: বিশ্বভারতীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উদ্যোক্তারা গড়লেন সৌজন্য

মেলা উদ্যোক্তারা আমন্ত্রণপত্র হাতে

মেলা উদ্যোক্তারা আমন্ত্রণপত্র হাতে

চলতি বছর শান্তিনিকেতনের পূর্ব পল্লীর মাঠে হচ্ছে না ঐতিহ্যবাহী পৌষ মেলা।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : চলতি বছর শান্তিনিকেতনের (Shantiniketan) পূর্ব পল্লীর মাঠে হচ্ছে না ঐতিহ্যবাহী পৌষ মেলা। পৌষ মেলা হবে না এমনটা বুঝেই আগেভাগে বিকল্প একটি মেলা করার পরিকল্পনা গ্রহণ করে বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চ এবং বোলপুরের (Bolpur) ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা। এই দুই যৌথ মঞ্চের উদ্যোগে বোলপুর (Bolpur) ডাকবাংলো মাঠে এই বছর বসতে চলেছে পৌষ মেলার বিকল্প মেলা।

    পৌষ মেলার বিকল্প মেলা গড়ে যেমন বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চ এবং ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা শান্তিনিকেতনের (Shantiniketan) ঐতিহ্য ধরে রাখার চেষ্টা চালাচ্ছেন, ঠিক তেমনি নতুন এই মেলার আয়োজন রুজি-রোজগার নিয়ে আশার আলো দেখছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী থেকে হস্তশিল্প বাউল শিল্পীরা। বিকল্প এই মেলা তৈরি করে যেমন তারা নজির গড়েছেন, ঠিক তেমনি আরও একটি নজির গড়লেন তারা। বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে বিকল্প এই মেলা না হলেও যাতে বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী মেলায় উপস্থিত থাকেন তার জন্য বিকল্প মেলা উদ্যোক্তারা আমন্ত্রণপত্র নিয়ে পৌঁছে গেলেন বিশ্বভারতীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। যেখানে তারা এই মেলায় উপস্থিত থাকার জন্য উপাচার্যকে আমন্ত্রণ জানান। মেলা উদ্যোক্তাদের এই আমন্ত্রণপত্র উপাচার্যের আত্মসহায়ক গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন তারা।

    বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চের পক্ষ থেকে মনীষা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, "শান্তিনিকেতন ও বিশ্বভারতীর সঙ্গে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত বিকল্প পৌষ মেলার যে আয়োজন আমরা করেছি সেই শুভ কাজে আমরা উপাচার্যকে চাই। সেই জন্যই আমরা এদিন এই আমন্ত্রণপত্র তাকে দিয়ে এলাম। যদিও সেই আমন্ত্রণ পত্র সরাসরি উপাচার্য গ্রহণ করেননি। পরিবর্তে তার বিশেষ সচিব আমন্ত্রণপত্র গ্রহণ করেছেন।"

    এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, চলতি বছর করোনা সংক্রমণ কিছুটা কম থাকায় আপামর বোলপুরের বাসিন্দাদের মধ্যে আশা ছিল আগের মত না হলেও ছোট করে পূর্ব পল্লীর মাঠে পৌষ মেলার আয়োজন করবে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। মেলার আয়োজন এর জন্য একাধিক পক্ষের তরফ থেকে আবেদন করা হয়। তবে সেই সকল আবেদনে সাড়া দেয়নি বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। তারপরেই এই বিকল্প পৌষ মেলা আয়োজন। বিকল্প এই পৌষ মেলা বোলপুর ডাকবাংলো মাঠে আগামী ২৩ ডিসেম্বর থেকে ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত আয়োজিত হবে। জানা যাচ্ছে, বিকল্প এই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন বিশ্ববাংলা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্বপন দত্ত, বিশ্বভারতীর প্রাক্তন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য সবুজকলি সেন সহ শান্তিনিকেতন ট্রাস্টের সদস্যরা। এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেয়ে বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী কতটা সাড়া দেন তার দিকেই এখন তাকিয়ে আপামর বোলপুরের বাসিন্দারা।

    First published:

    Tags: Birbhum, Bolpur, Shantiniketan

    পরবর্তী খবর