Home /News /local-18 /
Birbhum News: হাসপাতালে রক্ত সঙ্কট, মসিহা হয়ে দাঁড়ালেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যুবক-যুবতীরা

Birbhum News: হাসপাতালে রক্ত সঙ্কট, মসিহা হয়ে দাঁড়ালেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যুবক-যুবতীরা

হাসপাতালে রক্ত সঙ্কট, মসিহা হয়ে দাঁড়ালেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যুবক-যুবতীরা

হাসপাতালে রক্ত সঙ্কট, মসিহা হয়ে দাঁড়ালেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যুবক-যুবতীরা

শীতের শুরুতেই বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্ত সংকট শুরু হয়েছে। এই রক্ত সংকট মেটাতে বেশ কয়েকটি রক্তদান শিবির করেও সংকট মেটেনি।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : শীতকালে প্রতিবছর বিভিন্ন হাসপাতালে ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্ত সংকট লক্ষ্য করা যায়। সেই সংকটের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এই বছর শীতের শুরুতেই বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্ত সংকট শুরু হয়েছে। এই রক্ত সংকট মেটাতে বেশ কয়েকটি রক্তদান শিবির করেও সংকট মেটেনি। এমত অবস্থায় দিন কয়েক ধরেই এই হাসপাতালে ব্লাড ব্যাংকে AB (পজিটিভ) এবং O (পজিটিভ) রক্তের সবচেয়ে বেশি সংকট লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

    এই দুই গ্রুপের রক্ত সংকটের ছাড়াও হঠাৎ শুক্রবার থেকে নতুন করে সঙ্কট শুরু হয় A গ্রুপের। হাসপাতালের রোগীদের সংখ্যা এবং থ্যালাসেমিয়া রোগীর সংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে জরুরী ভিত্তিতে ১০ ইউনিট A এবং O গ্রুপের রক্তের প্রয়োজন হয়ে পড়ে। এমত অবস্থায় ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ দিশেহারা হয়ে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার শরণাপন্ন হয়। এই সংকটময় পরিস্থিতিতে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যুবক-যুবতীরা মসিহা হয়ে দাঁড়ালেন।

    বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ব্লাড ব্যাঙ্কে কর্তৃপক্ষ ব্লাড ব্যাঙ্কের রক্ত সংকট মেটাতে যোগাযোগ করেন বীরভূমের ইলামবাজার ব্লকের 'প্রত্যাশা' নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে। এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সভাপতি আব্দুল খালেক মল্লিক এমন সংকটের কথা শুনে সঙ্গে সঙ্গে প্রস্তুতি শুরু করেন যুবক-যুবতীদের নিয়ে হাসপাতালে রক্তদানের।

    জরুরী ভিত্তিতে রক্ত সংকট মেটাতে হাসপাতালে ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কাছে অন্ততপক্ষে 10 জন A ও O গ্রুপের রক্তদাতা চেয়ে পাঠান। পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তরফ থেকে ১০ জনের পরিবর্তে ১৪ জন যুবক-যুবতীকে রক্তদাতা হিসাবে তার পরদিনই বোলপুর হাসপাতালে পাঠানো হয়। ওই যুবক যুবতীরা এসে বোলপুর হাসপাতালের ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্তদান এবং সাময়িকভাবে এই রক্ত সংকট দূর করা সম্ভব হয়।

    প্রত্যাশা নামে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার এক সদস্য ঝিলিক বসু রায় জানিয়েছেন, "আগেও আমরা এইভাবে রক্ত দান করেছি। এখন হঠাৎ রক্ত সংকটের কথা জানতে পারলাম। সেই কথা জানতে পেরেই দ্রুত আমরা ছুটে এসেছি রক্তদানের জন্য।"

    এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার আরো এক কান্ডারী ইয়াকুব খাদিম জানিয়েছেন, "আমাদের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যদের রক্তের গ্রুপ নিয়ে একটি তালিকা তৈরি করাই থাকে। সেই অনুযায়ী আমরা এই হাসপাতালে বর্তমানে এই সকল গ্রুপের রক্তের অভাব রয়েছে জানতে পেরে সেই মতো আমরা ১৪ জন রক্তদাতাকে নিয়ে হাসপাতালে হাজির হয় এবং সংকট মেটাতে রক্ত দান করা হয়।"

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Birbhum, Blood Bank, Bolpur

    পরবর্তী খবর