• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • Birbhum News: বোলপুরে রাস্তার পাশেই জমছে আবর্জনা, দুর্ভোগের শিকার বাসিন্দারা

Birbhum News: বোলপুরে রাস্তার পাশেই জমছে আবর্জনা, দুর্ভোগের শিকার বাসিন্দারা

বোলপুরে রাস্তার পাশেই জমছে আবর্জনা, দুর্ভোগের শিকার বাসিন্দারা

বোলপুরে রাস্তার পাশেই জমছে আবর্জনা, দুর্ভোগের শিকার বাসিন্দারা

বোলপুরের মত শহর, যে শহরের নাম রয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে, সেই শহরেই রাস্তার আশেপাশে জমছে আবর্জনা।

  • Share this:

    মাধব দাস, বীরভূম : বোলপুরের মত শহর, যে শহরের নাম রয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে, সেই শহরেই রাস্তার আশেপাশে জমছে আবর্জনা। স্তূপাকারে এই আবর্জনা জমে থাকার কারণে যেমন স্থানীয় বাসিন্দারা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন, ঠিক তেমনই শহরের মান নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। নোংরা আবর্জনা জমে থাকার কারণে দুর্গন্ধে ভরে যাচ্ছে এলাকা, পাশাপাশি রোগ জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় আতঙ্কিত পথচলতি ও পার্শ্ববর্তী বাসিন্দারা।

    বোলপুর পৌরসভার অন্তর্গত কালি পুকুর, ডাকবাংলো সহ বিভিন্ন জায়গায় এমন অস্বস্তিকর পরিবেশের ছবি ধরা পড়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে সঠিক পরিকল্পনার অভাবে বহু মানুষকেই রাস্তার পাশে আবর্জনা ফেলে যেতে। আবর্জনা ফেলার জায়গার অভাবে যেমন স্থানীয় বাসিন্দারা যত্রতত্র আবর্জনা ফেলছেন, ঠিক তেমনই আবার পৌরসভার কর্মীদেরও যত্রতত্র আবর্জনা ফেলতে লক্ষ্য করা গিয়েছে। আর এরই পরিপ্রেক্ষিতে বোলপুর পৌরসভার দায়িত্ব কর্তব্য নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

    স্থানীয় বাসিন্দা সোমা শর্মা জানিয়েছেন, "রাস্তার পাশে এই ভাবেই নোংরা আবর্জনা জমে থাকার কারণে আমাদের স্বাভাবিকভাবেই দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে। দুর্গন্ধে ভরে যাচ্ছে এলাকা, পাশাপাশি দৃষ্টিকটুও হয়ে পড়েছে। রোগ জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।"

    অন্যদিকে রাজ্যের বেশকিছু জেলায় ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ার খবরও আসছে জেলার বাসিন্দাদের কাছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে এমন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন হীন পরিস্থিতি বোলপুরের বাসিন্দাদেরও আতঙ্কিত করে তুলেছে। স্থানীয় বাসিন্দা এস কে দাস জানিয়েছেন, "মাঝে মাঝে দেখতে পাই পৌরসভার কর্মীরা আবর্জনা তুলে নিয়ে যান। কিন্তু তাতেও এই স্তূপাকারে আবর্জনা আর শেষ হয় না। অসুবিধা অবশ্যই হচ্ছে। পাশাপাশি আতঙ্কও তৈরি হচ্ছে ডেঙ্গু সহ অন্যান্য রোগ নিয়ে।"

    যদিও বোলপুর পৌরসভার প্রশাসক পর্ণা ঘোষ এমন পরিস্থিতির জন্য শহরের বাসিন্দাদের একাংশকেই দায়ী করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, "পৌরসভার তরফ থেকে বাড়িতে বাড়িতে নোংরা ফেলার জন্য পাত্র দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি নির্দিষ্ট জায়গায় ভ্যাট করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অনেকেই তা ব্যবহার না করে যেখানে খুশি নোংরা ফেলে দিচ্ছেন। কিছু বলা হলে একে অপরের দিকে আঙুল তুলছেন।"

    কিন্তু পৌরসভার যেসকল কর্মীরা নিয়ম না মেনে রাস্তার ধারে আবর্জনা ফেলছেন! এই বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন, "এই বিষয়টি নিয়ে অবশ্যই আমরা খতিয়ে দেখব। যখন আমরা এই গাফিলতির কথা জানতে পেরেছি তখন অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আমরা চাই শহরের বাসিন্দারা সুস্থ থাকুক।"

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: