• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • local-18
  • »
  • AN NGO HELP ASANSOL BASED SAFE HOMES AMID WORST COVID SITUATION IN BENGAL SDG

আসানসোলের সেফ হোমগুলিকে সাহায্যের হাত বাড়ালো স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা

করোনাকালে একদিকে যেমন সরকারের তরফে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ করা হচ্ছে, অন্যদিকে এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংগঠনগুলোও।

করোনাকালে একদিকে যেমন সরকারের তরফে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ করা হচ্ছে, অন্যদিকে এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংগঠনগুলোও।

  • Share this:

    #আসানসোলঃ করোনাকালে একদিকে যেমন সরকারের তরফে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ করা হচ্ছে, অন্যদিকে এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক সংগঠনগুলোও। পশ্চিম বর্ধমানের শিল্পনগরী আসানসোলে এভাবেই সেফহোমগুলোর দিকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিল একটি বেসরকারি সংস্থা। রাজ্যের অন্যান্য জায়গার মতোই পশ্চিম বর্ধমান জেলাও যথেষ্ঠ প্রভাবিত হয়েছে এই অতিমারিতে।  বিশেষত আসানসোলের মতো একটি শহর যেখানে জনঘনত্ব তুলনামূলকভাবে বেশি, সেখানে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইএ সরকারি ও বে-সরকারি বিভিন্ন সংস্থাকেই এগিয়ে আসতে হবে।

    এ রকমই এক সহযোগিতার নজির রাখল একটি বেসরকারি সমাজসেবী সংস্থা। এ দিন আসানসোলের সেফ হোমগুলোর জন্য সোসাইটি অফ ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশন এগিয়ে এল বেশ কিছু চিকিৎসা সংক্রান্ত সরঞ্জাম নিয়ে। এ দিন আসানসোলের সেন্ট যোশেফ স্কুলের সেফ হোমে উপস্থিত হয়ে সংস্থার কর্মীরা সংস্থার পক্ষ থেকে ২০০০টি পিপিই কিট, পাঁচটি অক্সি ফ্লো মিটার সমেতঅক্সিজেন সিলিণ্ডার তুলে দেয় প্রশাসনের হাতে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য।

    এছাড়াও এ দিনের এই অনুষ্ঠানে ১০ টি অক্সিপালস মিটার, ২০০০ টি মাস্ক এবং ৫০০ হ্যাণ্ডগ্লাভসও তুলে দেওয়া হয়েছে জেলা প্রসাশনের হাতে৷ সংস্থাটির পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে পাঁচ লক্ষ টাকার অনুদান তুলে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান সংস্থার কর্ণধার৷ এ দিন সংস্থার পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক সত্যেন্দ্র দাস বলেন, কোভিড পরিস্থিতিতে মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে তাদের সংস্থা৷ এর আগেও তারা কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন ৷ এ ধরণের কাজ করতে পেরে তারা খুবই আনন্দিত বলেও জানান তিনি। এ দিনের এইঅনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের আইন ও পুর্ত দফতরের মন্ত্রী মলয় ঘটক ছাড়াও জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক অভিজিৎ শেভালে, প্রাক্তন পুরপিতা অনিমেষ দাস এবং স্থানীয় ব্যবসায়ী মহলের প্রতিনিধিরাও৷

    অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মলয় ঘটক বলেন, কোভিড পরিস্থিতিতে রাজ্যজুড়ে মানুষের সহায়তায় যেভাবে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলি এগিয়ে আসছে তা যথেষ্ঠ প্রশংসনীয়। তবে এক্ষেত্রে তাঁদের দলের কর্মীরাও যে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন সেকথাও মনে করান মন্ত্রী মলয় ঘটক। অন্যদিকে, এইসমস্ত সরঞ্জাম কোভিড আক্রান্তদের বেশ উপকারে লাগবে বলে জানানো হয় প্রশাসনের তরফে। পাশাপাশি, আশা করা হয় যে এ ভাবেই যেন অন্যান্য সমাজসেবী সংগঠনগুলি বর্তমান পরিস্থিতিতে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয় প্রশাসনের দিকে।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: