• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • মহিষাদলের রথ যাতায়াতের রাস্তার জবরদখল সরালো ব্লক প্রশাসন

মহিষাদলের রথ যাতায়াতের রাস্তার জবরদখল সরালো ব্লক প্রশাসন

মহিষাদলের রথ যাতায়াতের রাস্তার জবরদখল সরালো ব্লক প্রশাসন।

মহিষাদলের রথ যাতায়াতের রাস্তার জবরদখল সরালো ব্লক প্রশাসন।

মহিষাদলের রথ যাতায়াতের রাস্তার জবরদখল সরালো ব্লক প্রশাসন

  • Share this:

    মহিষাদল: এদিন সকাল থেকেই শুরু হয়েছে রথ  যাতায়াতের সড়কের দুই পাশে জবরদখল সরানোর কাজ। নয় জুলাই শুক্রবার সকাল থেকে মহিষাদল ব্লক প্রশাসন মহিষাদলের ঐতিহ্যবাহী রথ যাতায়াতের সড়কের দুইপাশে জবরদখল কারীদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে।

    মহিষাদলের ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা এবছর ২৪৬ বছরে পা দিলো। করোনা আবহে ২০২০ সালের পর এবছরও এই ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে আগেই। তাই গড়াবে না রথের চাকা। তবে পালকি চড়ে মাসির বাড়ি যাবেন জগন্নাথ বলরাম সুভদ্রা। সেই সঙ্গে পালকি চড়ে মাসির ঘঘরা গ্রামে যাবেন মহিষাদল রাজবাড়ির কুলদেবতা গোপাল জিউ। এবছর রথযাত্রা বন্ধ থাকলেও রথ যাতায়াতের রাস্তা উদ্ধারে নেমেছে মহিষাদল ব্লক প্রশাসন।

    দীর্ঘদিন ধরে মহিষাদলের রথতলা থেকে মাসির বাড়ি ঘঘরা গ্রাম পর্যন্ত রথ যাতায়াতের সড়কের দুই পাশে স্থানীয় বাসিন্দারা জবর দখল করে রেখেছিল। কোথাও অস্থায়ী দোকান ঘর নির্মাণ, কোথাও আবার ঝোপঝাড় হয়ে থাকে এমন জাতীয় গাছপালা লাগিয়ে অবৈধভাবে রাস্তার পাশ দখল করে স্থানীয় বাসিন্দারা। আবার কোথাও বাড়ি নির্মাণ সামগ্রী ইঁট , বালি , স্টোনচিপস ফেলে রাস্তার পাশে জায়গা দখলের অভিযোগ উঠছিল। আজ সকালে মহিষাদল ব্লক প্রশাসন মহিষাদল থানার পুলিশের সাহায্যে জেসিবি দিয়ে অবৈধ দখলদারীদের উচ্ছেদ করে। ভেঙে ফেলা হয় রাস্তার পাশে অবৈধ অস্থায়ী নির্মাণ।

    ব্লক প্রশাসন সূত্রে জানা যায় , এই অবৈধ দখলদারীদেরকে নোটিশ পাঠিয়ে সাত জুলাইয়ের মধ্যে রাস্তার পাশে জায়গা পরিষ্কার করতে বলা হয়। ব্লক প্রশাসনের দেওয়া নির্দিষ্ট তারিখ পার করতেই প্রশাসনের তরফ থেকে নয় জুলাই এই অবৈধ দখলদারদের বিরূদ্ধে অভিযান চালায়। উপস্থিত ছিলেন মহিষাদলের বিধায়ক তিলক কুমার চক্রবর্তী।

    তিলক কুমার চক্রবর্তী বলেন, \"মহিষাদলের রথযাত্রা একটি ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা। পুরি ও মাহেশের রথের পর মহিষাদলের রথের নাম আসে। সুতরাং মহিষাদলের ঐতিহ্যের সঙ্গে কোন কিছু আপস করা হবে না। মহিষাদলের ঐতিহ্য রক্ষায় আমরা সবাই বদ্ধপরিকর। এই ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রার সড়কের পাশের জায়গা দীর্ঘদিন ধরে দখল করেছিল স্থানীয়রা। এর আগে ব্লক প্রসাশন থেকে সাত জুলাই পর্যন্ত দখলদারদের সময় দেওয়া হয়েছিল। তাতে কেউ কেউ শুনলেও অনেকেই সরিয়ে নেয়নি নিজেদের জিনিসপত্র। তাই আজ সকাল থেকেই জেসিবি দিয়ে দখলদারদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়েছে। এরপর কেউ যদি আবার রথযাত্রার সড়কের পাশের জায়গা দখলের চেষ্টা করে প্রসাশনের নিয়মে দখলকারীর খরচেই প্রশাসন দখল উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।\"

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: