ঝুঁকি নিয়ে খেয়া পারাপার করতে গিয়ে অল্পের জন্য বাঁচলেন বাইক-সহ দুই যাত্রী

ঝুঁকি নিয়ে খেয়া পারাপার করতে গিয়ে অল্পের জন্য বাঁচলেন বাইক সমেত দুই যাত্রী, দাবি উঠছে প্রশাসনের কড়া নজরদারির

সরকারি নজরদারির অভাবে এবং মানুষের সচেতনতার ঘাটতির কারণে ঝুঁকি নিয়ে নদী পারাপার চলছে নদীঘাট গুলোতে

  • Share this:

    নদিয়া- সরকারি নজরদারির অভাবে এবং মানুষের সচেতনতার ঘাটতির কারণে ঝুঁকি নিয়ে নদী পারাপার চলছে নদীঘাট গুলোতে।

    নদিয়ায় ভাগীরথী নদী ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করার সময় অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন দুই ভাই। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নদীর অপর তীরের বর্ধমান জেলা থেকে আসা দুই ব্যক্তি নদিয়ারশান্তিপুর-নৃসিংহপুর ঘাটে মোটর বাইক নিয়ে যান নৌকোয় করে নদী পারাপারের জন্য। কার্যত লকডাউনে নৌকা পারাপার বন্ধ থাকায় নৌকার মাঝি বেশি টাকা নিয়ে পারাপার করাতে রাজি হয়। রফিক আলী ও কামাল উদ্দিন আলীবর্ধমান জেলার কালনাঘাটে পৌঁছবেন বলে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে নৌকো ভাড়া করেন খেয়া পারপারের জন্য। সেই মতোই ওই দুই ভাইতাদের মোটর বাইক নিয়ে নৌকাতে ওঠেন। নৌকা কিছুদুর গিয়ে খারাপ আবহওয়ায় কারণে কাত হয়ে যায় এবংদুটি মোটর বাইক সমেত দুজনেই পড়ে যান ভাগীরথী নদীতে। এরপর এক ভাই সাঁতার জানলেও আরেকজন সাঁতার জানতেন না। স্দুথানীয়দের চেষ্টায় কোন রকমে ডাঙ্গায় উঠতে সক্ষম হন। কিন্তু বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকায় মোটরবাইক দুটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি তখন। পরে অবশ্য বাইক দুটি উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় শান্তিপুর থানায় এবং সেখান থেকে ফেরত দেওয়া বাইক দুটো।

    প্রাকৃতিক দুর্যোগে যেভাবে সরকারের তরফে নদী পারাপারের জন্য দির্দেশিকা জারি করা হয়েছে তা অবমাননার কারণেইদুর্ঘটনাটি ঘটে এদিন। কপালজোরে এদিন ওই দুই ভাই বেঁচে বাড়ি ফিরলেও বছর তিনেক আগে প্রাণে বাঁচতে পারেননি একটি নৌকোর প্রায় আশিজন যাত্রী এই ঘাটেই। শান্তিপুর নৃসিংহপুর কালনা ঘাটে নৌকাডুবির দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন প্রায় ৭০ থেকে ৮০ জন যাত্রী সেদিন। এরপর থেকে ঘাট চত্বরে প্রশাসনিক নিরাপত্তা ছিল যথেষ্ট। কিছুদিন কড়া বাধানিষেধ মানাও হয়েছিলো। তরপর যত দিন গেছে এং মানুষের মন থেকে সেই ভয়াবহ দুর্ঘটনার স্মৃতি মুছেগেছে ততই ফের বেপরোয়া হয়েছেমানুষ। বর্ষার প্রাক মুহুর্তে এই ঘটনা ফের নতুনকরে উস্কে দিয়েছে বিগতদিনের সেই ভয়াবহ দুর্ঘটনার স্মৃতিকে স্থানীয়দের কাছে। এই পরিস্থিতিতে প্রশাসন যদি কড়া নজরদারি চালানো শুরু না করে তাহলে বড় সড় দুর্ঘটনা অচিরেই ঘটবে বলে আশঙ্কা স্থানীয়দের।

    মৈনাক দেবনাথ

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: