• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • বিশ্ব এইডস দিবস ২০২০: মারণব্যাধির এই প্রাথমিক উপসর্গগুলো না জানলেই নয়!

বিশ্ব এইডস দিবস ২০২০: মারণব্যাধির এই প্রাথমিক উপসর্গগুলো না জানলেই নয়!

Representative Images

Representative Images

১৯৮৮ সালের ১ ডিসেম্বর এই দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। সেই শুরু, তার পর আর এই বিশেষ দিনটির উদযাপন বন্ধ হয়নি।

  • Share this:

#কলকাতা: সবার প্রথমে উল্লেখ না করলেই নয় যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা WHO নিজে যে ক'টি রোগ নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে একেকটি দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিশ্ব এইডস দিবস তাদের মধ্যে সবার প্রথমে । ১৯৮৮ সালের ১ ডিসেম্বর এই দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। সেই শুরু, তার পর আর এই বিশেষ দিনটির উদযাপন বন্ধ হয়নি।

তবে শুরুর বছর দুয়েক পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই উদ্যোগ কম সমালোচনার মুখে পড়েনি। তার জন্য অবশ্য সংগঠনের নিজের সিদ্ধান্তই দায়ী, এ কথা নির্দ্বিধায় বলা যেতে পারে। জানা যায় যে প্রথম যখন এই দিনটি উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, তখন এর লক্ষ্য ছিল বিশ্বের তরুণ সম্প্রদায়।

কিন্তু রোগ তো আর বয়স অনুযায়ী ভেদাভেদ করে না। ফলে খুব স্বাভাবিক ভাবেই বিশ্ব জুড়ে শুরু হওয়া তুমুল বিক্ষোভের মুখে WHO নিজের সিদ্ধান্ত বদলে নিতে বাধ্য হয়। ভুল স্বীকার করে পরের দিক থেকে এই দিনটি সার্বিক ভাবে মানবকল্যাণের ব্রতে নিয়োজিত হয়। মূল লক্ষ্য অবশ্যই হিউম্যান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস বা HIV থেকে আক্রান্ত অ্যাকোয়ার্ড ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি সিনড্রোম (AIDS) বা এইডস-এর রোগীরা- যাঁরা এই মারণব্যাধিতে ভুগছেন এবং যাঁরা ইতিমধ্যেই এই রোগাক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন।

যেহেতু এই রোগের কোনও চিকিৎসাপদ্ধতি নেই, সুস্থ হয়ে ওঠার কোনও ওষুধ নেই, তাই কয়েকটি বিষয়ে আজীবন সতর্ক থাকা প্রয়োজন। যাতে এই রোগে আক্রান্ত হতে না হয়!

কী ভাবে সংক্রমিত হয় একের শরীর থেকে অন্যের শরীরে এই রোগ:

১. বডি ফ্লুইড, যেমন রক্ত, সিমেন, প্রি-সেমিনাল ফ্লুইড, ভ্যাজাইনাল ফ্লুইড, রেকটাল ফ্লুইডের মাধ্যমে একের শরীর থেকে অন্যের শরীরে এই রোগ সংক্রমিত হয়। এইডস-আক্রান্ত মা শিশুকে স্তন্যপান করালেও এই রোগ সংক্রমিত হয়। ২. অসুরক্ষিত যৌনতায় একের শরীর থেকে অন্যের শরীরে এই রোগ সংক্রমিত হয়। ৩. একজনের ব্যবহার করা ইঞ্জেকশনের সূচ, দাড়ি কামানোর ব্লেড থেকেও অন্যের শরীরে এই রোগ সংক্রমিত হয়। অন্য সব রোগের মতো এইডস-এরও কিছু উপসর্গ আছে। যদি এই উপসর্গগুলো দেখা দেয়, তা হলে দেরি না করে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করাটাই উচিৎ হবে। এই উপসর্গগুলি হল- ১. জ্বর ২. গলায় ব্যথা ৩. ত্বকে র‍্যাশ বেরিয়ে যাওয়া ৪. বমি-বমি ভাব ৫. সারা শরীরে ব্যথা ৬. মাথাব্যথা ৭. পেটখারাপের সমস্যা

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: