Home /News /life-style /
Healthy Tea|| বিশ্বের অন্যতম স্বাস্থ্যকর পানীয় 'ল্যাভেন্ডার দুধ চা', কেন জানেন? কীভাবে বানাবেন বাড়িতেই?

Healthy Tea|| বিশ্বের অন্যতম স্বাস্থ্যকর পানীয় 'ল্যাভেন্ডার দুধ চা', কেন জানেন? কীভাবে বানাবেন বাড়িতেই?

ল্যাভেন্ডার দুধ চা। সংগৃহীত ছবি।

ল্যাভেন্ডার দুধ চা। সংগৃহীত ছবি।

Lavender Milk Tea Is The Healthiest Tea in the World: ল্যাভেন্ডার দুধ চায়ে যেমন দুধের প্রোটিন আছে ঠিক তেমনই সূক্ষ্ম ও প্রশান্তিদায়ক ফুলের সুগন্ধও আছে।

  • Share this:

#কলকাতা: সকাল বেলা হোক বা বিকেল বেলা, এক কাপ ধোঁয়া ওঠা গরম চা শরীর ও মন জুড়িয়ে দেয়। সম্প্রতি জানা গিয়েছে যে ল্যাভেন্ডার দুধ চা বিশ্বের অন্যতম স্বাস্থ্যকর চা। ক্যাফেইন মুক্ত এই চা পানের পরামর্শ দিচ্ছেন ডাক্তার থেকে বিজ্ঞানী সবাই। কেন এই চায়ের এত কদর?

ল্যাভেন্ডার দুধ চা আসলে কী?

দুধ ফোটানোর সময় তার মধ্যে ল্যাভেন্ডার ফুলের শুকনো পাপড়ি দিয়ে দেওয়া হয়। এই ফুল আসে ল্যাভেন্ডুলা অ্যাঙ্গুস্টিফোলিয়া থেকে। এই সুগন্ধযুক্ত চা শরীর ও মন তরতাজা করে দেয়। বিভিন্ন সময়ের ইতিহাসে ল্যাভেন্ডারের উপকারিতা পাওয়া যায়। হিপোক্রেটিস বলেছিলেন যে মস্তিষ্ক তরতাজা রাখে এই ল্যাভেন্ডার। আবার পারকিন্সন নামে এক ডাক্তার মন্তব্য করেন যে উত্তেজিত মস্তিষ্ককে শান্ত করতে ল্যাভেন্ডারের প্রয়োজন আছে। ল্যাভেন্ডার দুধ চায়ে যেমন দুধের প্রোটিন আছে ঠিক তেমনই সূক্ষ্ম ও প্রশান্তিদায়ক ফুলের সুগন্ধও আছে।

আরও পড়ুন: নিজের রাশি অনুযায়ী রূপচর্চা করেছেন কখনও? জানুন কোন রাশির কী দরকার

কেন এই চা এত স্বাস্থ্যকর?

ল্যাভেন্ডার চা বা ব্ল্যাক ল্যাভেন্ডার চা মস্তিষ্ক তরতাজা রাখে, মানসিক চাপ কমায়, মস্তিষ্কের ক্রিয়া দ্রুত করে দেয়, ভালো ঘুম নিয়ে আসে, ব্যথা কমিয়ে দেয় এবং ত্বক ভালো রাখে।

এছাড়াও প্রোটিন সমৃদ্ধ দুধ ও শুকনো ল্যাভেন্ডারের পাপড়ি একযোগে এনার্জি বাড়ায়, উদ্বেগ কমায় ও মুড সুইং নিয়ন্ত্রণে রেখে মেজাজ ঠাণ্ডা রাখে। বহু যুগ আগে থেকেই ল্যাভেন্ডারের ব্যবহার চলে আসছে। এটি একটি অত্যন্ত সফল অ্যান্টি ডিপ্রেস্যান্ট। তাই ঘুমানোর আগে এক কাপ ল্যাভেন্ডার চা পান করলে স্নায়ুতন্ত্র নিয়ন্ত্রণে আসে ও ভালো ঘুম হয়।

এর মধ্যে কী কী গুণ আছে?

ল্যাভেন্ডারে আছে লিনাইল অ্যাসিটেটের স্বাস্থ্য সমৃদ্ধ পুষ্টি উপাদান। এই উপাদান কোষের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। ল্যাভেন্ডারে আরও একটি প্রাকৃতিক উপাদান আছে। সিনিওল নামের এই প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক ফুসফুস থেকে কফ অপসারণ করতে সাহায্য করে। এই চায়ে ট্যানিনের উপস্থিতি প্রদাহ দূর করতে সাহায্য করে। ল্যাভেন্ডারের উরসোলিক অ্যাসিড অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন যা এথেরোস্ক্লেরোসিস প্রতিরোধ করে এবং শরীরকে ক্যানসার কোষের সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে।

বাড়িতে কীভাবে তৈরি করা যায় এই চা?

একটি পাত্রে ১ কাপ জল ফুটিয়ে এক টেবিল চামচ ল্যাভেন্ডার ফুলের পাপড়ি বা কুঁড়ি ১৫-২০ ভিজতে দিতে হবে। আধ কাপ কম ফ্যাটযুক্ত দুধ বা ভেগান (বাদাম দুধ) গরম করে ঝাঁকিয়ে ফেনা করতে হবে। কাপে চা ছেঁকে এক টেবিল চামচ মধু/ম্যাপেল সিরাপ সহ ফেনাযুক্ত দুধ দিতে হবে।

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Tea

পরবর্তী খবর