Home /News /life-style /
Weight Loss Tips: এবার অফিসে বসে বসেই ওজন কমবে! শুধু যদি এই ৫ নিয়ম মানতে পারেন

Weight Loss Tips: এবার অফিসে বসে বসেই ওজন কমবে! শুধু যদি এই ৫ নিয়ম মানতে পারেন

How To Lose Weight With An Office Job

How To Lose Weight With An Office Job

Weight Loss Tips: সঠিক লাইফস্টাইল কিংবা জীবনযাত্রায় কিছু পরিবর্তন এনেই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।

  • Share this:

Weight Loss Tips: এক জায়গায় বসে কাজ এবং সেই কাজের মারাত্মক চাপের কারণে আজকাল ওজন বৃদ্ধির সমস্যা ঘরে ঘরে! সাত-সকালে বেরিয়ে সেই রাত করে ঘরে ফেরা- এর মাঝে আর এক্সারসাইজ বা শারীরিক কসরত করে ওঠা হয় না। সেই সঙ্গে কোপ পড়ে স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়ার অভ্যেসেও। হাতের কাছে যা পাওয়া যায়, তা-ই খাওয়ার অভ্যেস বেড়ে ওঠে। ফাস্ট ফুড, স্ন্যাকস জাতীয় খাবার, জাঙ্ক ফুড খাওয়ার অভ্যেস তৈরি হয়ে যায়। ফলে বাড়তে শুরু করে ওজন। আর ওজন বৃদ্ধি মানেই তো শরীরে একগাদা রোগের বাসা! আর গোটা দিন অফিসের কাজ সামলে ওজন কমানো কি মুখের কথা!

তবে বিষয়টা এমন কিছু কঠিনও নয়। কারণ সঠিক লাইফস্টাইল কিংবা জীবনযাত্রায় কিছু পরিবর্তন এনেই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। আলোচনা করে নেওয়া যাক, সেই সব উপায়ের বিষয়ে।

আগে থেকেই পরিকল্পনা ছকে রাখা:

সারা দিনে অফিসে বসে কী কী খাওয়া হবে, তার একটা পরিকল্পনা ছকে রাখতে হবে। এই পরামর্শই দিয়ে থাকেন পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা। লাঞ্চের সঙ্গে তার আগে এবং পরে কী খাওয়া হবে, সেইটাও প্ল্যান করা জরুরি। আসলে লাঞ্চে বড় মিল খাওয়ার আগে কিংবা পরে আমাদের খিদে পেয়ে যায়। আর সেই সময় ভুলভাল অস্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস খাওয়া হয়ে যায়। এমনকী বাইরে থেকেও ফাস্ট ফুড অর্ডার করে খাওয়ার প্রবণতা বাড়ে। এগুলো বন্ধ করতে আগে থেকেই প্ল্যান করতে হবে এবং বাড়িতে তৈরি খাবার খাওয়ার অভ্যেস বাড়াতে হবে। তবে সপ্তাহে এক দিন চিট-ডে হিসেবে রাখা যেতে পারে। সে-দিনই শুধুমাত্র নিজের পছন্দের ফাস্ট ফুড খাওয়া যাবে। আর এই ভালো অভ্যেস তৈরি হলে সময় এবং টাকা-পয়সাও বেঁচে যাবে।

আরও পড়ুন - তুমুল ঝগড়ার পর এইভাবে মিলন হবে আরও সুখকর, শরীরের চাহিদা বেড়ে যাবে তিনগুণ

অস্বাস্থ্যকর স্ন্যাকসজাতীয় খাবার একেবারেই নয়:

কাজের মাঝে চিপস, চকোলেট, ক্যান্ডির মতো মুখরোচক খাবার খাওয়ার মজাই আলাদা! ফলে অধিকাংশ জনের ডেস্কেই পর্যাপ্ত পরিমাণে রাখা থাকে এ-সব খাবার। চিপস-চকোলেট কাজের মাঝে আনন্দ দিতে পারে ঠিকই, কিন্তু এর প্রভাব শরীরের উপর পড়ে। বাড়তে থাকে মেদের পরিমাণও। তাই এই ধরনের খাবার খাওয়ার অভ্যেস ত্যাগ করতে হবে। তার বদলে আমন্ড, বাদাম, ফল এবং দইয়ের মতো স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস জাতীয় খাবার খেতে হবে।

উচ্চ ক্যালোরিযুক্ত পানীয় বাদ:

কাজের মাঝে হামেশাই কফির কাপে চুমুক দেন অধিকাংশ লোকজন। আর দিনে অতিরিক্ত চা বা কফি পান করলে ক্যালোরি বাড়ে। আসলে চিনিযুক্ত বা মিষ্টি পানীয় ক্যালোরির পরিমাণ অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়, ফলে দেহের ওজনও বাড়তে শুরু করে। এক কাপ মিষ্টি কফিতে ১০০ ক্যালোরি থাকে। ফলে দিনে ৩-৪ কাপ কফি খেলে কতটা ক্যালোরি শরীরে প্রবেশ করছে, সেই হিসেবটা নিশ্চয়ই এবার পরিষ্কার! তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চিনি ছাড়া ব্ল্যাক কফি সেবনের অভ্যেস গড়ে তোলা যেতে পারে।

আরও পড়ুন - পুরুষদের ক্ষমতা বাড়বে তড়তড়িয়ে, দুধের সঙ্গে এক চামচ মেশালেই বিছানায় উঠবে ঝড়

কাজের মাঝেও শারীরিক কসরত:

প্রতিদিন অফিসে আট-দশ ঘণ্টা ধরে কাজের মাঝেই শারীরিক কসরতের জন্য আলাদা করে সময় বার করা খুবই চাপের ব্যাপার। এমনকী সকালের দিকে জিমে যেতে বা এক্সারসাইজ করতেও ইচ্ছে করে না। ফলে রোজকার কাজকর্মের অভ্যেস বানাতে হবে। বেশি পরিমাণে হাঁটাচলা করে নিজেকে সচল রাখতে হবে। অফিসে যাওয়ার পথে বাড়ি থেকে হেঁটেই স্টেশনে পৌঁছতে হবে। সেই সঙ্গে এলিভেটরের পরিবর্তে ব্যবহার করতে হবে সিঁড়ি। কাজের ব্রেকে অল্প হাঁটাহাঁটি এবং স্ট্রেচিং করতে হবে। এই ছোট্ট ছোট্ট পদক্ষেপের মাধ্যমেই ক্যালোরি সহজেই ঝরানো যাবে এবং ওজনও থাকবে নিয়ন্ত্রণে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Fitness, Weight Loss

পরবর্তী খবর